বাংলায় ভোট শিয়রে, মমতার সরকার দুয়ারে দুয়ারে, প্রকল্প পৌঁছায় নি মানুষের কাছে, তাই শিবিরে ভিড়

725
বাংলায় ভোট শিয়রে, মমতার সরকার দুয়ারে, প্রকল্প পৌঁছায় নি মানুষের কাছে, তাই শিবিরে ভিড়
বাংলায় ভোট শিয়রে, মমতার সরকার দুয়ারে, প্রকল্প পৌঁছায় নি মানুষের কাছে, তাই শিবিরে ভিড়

বাংলায় ভোট শিয়রে, মমতার সরকার দুয়ারে দুয়ারে; প্রকল্প পৌঁছায় নি মানুষের কাছে, তাই শিবিরে ভিড়। এমনটাই অভিযোগ বিরোধীদের। রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির সমালোচনায়; সরব হলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সমালোচনা করেছেন, সিপিএম বিধায়ক; সুজন চক্রবর্তী। সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে দুই নেতাই বলেন; “সরকারের টাকা খরচ করে, ভোটের আগে; দলের প্রচার করতেই এই প্রকল্প”। “প্রকল্প পৌঁছায় নি মানুষের কাছে; তাই শিবিরে ভিড়”; একযোগে অভিযোগ বাম বিজেপির। অন্যদিকে, বাম বিজেপির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন; পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। বলেছেন, সরকার এবার মানুষের দরজায় পৌঁছে যাচ্ছে; তাই বিরোধীরা ভয় পাচ্ছে”। সবমিলিয়ে দুয়ারে দুয়ারে সরকার নিয়ে; তরজা তুঙ্গে।

নজরে একুশের ভোট। মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দিতে; রাজ্যে শুরু হল ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি। রাজ্যে হয়েছে ২০ হাজার ক্যাম্প। সরকারের দাবি, এই ক্যাম্পগুলি থেকে; ১১টি প্রকল্পে চটজলদি সমাধান মিলবে। সরকারি পরিষেবা সাধারণের নাগালে পৌঁছে দিতে; মঙ্গলবার থেকে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত রাজ্যের ৩৪৪টি ব্লকে হবে শিবির। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে; রাজনৈতিক বিতর্ক।

আরও পড়ুনঃ “অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় চো’র, ডা’কাত, কয়লা মা’ফিয়া”, ভাইপো নয় নাম করেই আ’ক্রমণ

মঙ্গলবার দিলীপ ঘোষ বলেন, “উনি দলের মঞ্চ থেকে; সরকারি কর্মসূচি ঘোষণা করে দেন। ওনার দলের মুখপাত্র; সরকারি প্রকল্পের ঘোষণা করছেন। ওদিকে মুখ্যসচিব একই কথা বলছেন। সরকার আর পার্টি বলে; আলাদা কিছু নেই। সরকারি টাকা পার্টির টাকা; হয়ে গিয়েছে এখন”। দিলীপ ঘোষ আরও বলেন; “এর আগে মমতা ব্যানার্জির পার্টি-সরকার এই ধরণের অনেক প্রকল্প ঘোষণা করেছে। কিন্তু বাস্তবে মানুষ কিছু পায়নি। পার্টির লোকেরা; কাটমানি পেয়েছেন। এগুলো সব স্ট্যান্ট। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে; স্টান্ট হচ্ছে। আর কিছু না”।

সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী বলেছেন; “সরকারি প্রকল্প মানুষ পায়নি; তাই সরকারকে আজ ক্যাম্প খুলে কাজ করতে হচ্ছে; এটা সরকারের কাছে খুব লজ্জার। মানুষ কিছুই পায়নি; তাই দলে দলে ক্যাম্পে আসতে হচ্ছে”। তবে, সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন; পুরমন্ত্রী ও কলকাতার প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। বলেছেন, “মমতার প্রকল্পে ভয় পেয়েছেন বিরোধীরা; তাই অভিযোগের পাহাড় নিয়ে আসছে”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন