বাংলার জেলায় ভুমিকম্প, ঘরে থাকব না বাইরে যাব, এটাই প্রশ্ন

773
বাংলার জেলায় ভুমিকম্প, ঘরে থাকব না বাইরে যাব, এটাই প্রশ্ন
বাংলার জেলায় ভুমিকম্প, ঘরে থাকব না বাইরে যাব, এটাই প্রশ্ন

আগুনের পর ভুমিকম্প; বাংলায় হচ্ছে টা কি? জোর ভুমিকম্প; ঘরে থাকব না বাইরে যাব; এটাই এখন প্রশ্ন বাঁকুড়া জেলার বাসিন্দাদের। বাঁকুড়া জেলার শুশুনিয়া পাহাড়ে লেগেছে আগুন; আবার অন্যদিকে জেলায় হয়ে গেল ভুমিকম্প। এক দিকে ‘করোনা’ সতর্কতায়; ‘লক ডাউনে’ মানুষ গৃহবন্দি। অন্যদিকে মঙ্গলবার বিকেল থেকে জ্বলছে; জেলার ‘ফুসফুস’ হিসেবে পরিচিত সাধের শুশুনিয়া পাহাড়। এতো সবের মাঝেই মৃদু ভূমিকম্প অনুভূত হলো বাঁকুড়ায়। লক ডাউনে বাইরে যাব; না ঘরেই থাকব; ভাবতে ভাবতেই ভুমিকম্প শেষ।

বুধবার সকাল ১১ টা ২৪ নাগাদ; এই ভূমিকম্পে আতঙ্কিত বাঁকুড়ার মানুষ। জেলার উত্তর থেকে দক্ষিণ; পূর্ব থেকে পশ্চিম সর্বত্রই এই ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে; বলেই খবর পাওয়া যাচ্ছে। তবে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির কোন খবর নেই। তবে এটা খুব কমমাত্রায় ভুমিকম্প; বলছে বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন। এতে ভয়ের কিছুই নেই; বলেও জানান হয়েছে।

বুধবার পরপর দুটি ভুমিকম্প; অনুভূত হয় বাঁকুড়ায়। প্রথমটির সময় ১১ টা ১৯ মিনিট; উৎসস্থল লাক্ষাদ্বীপ। মাটির ১০ কিমি নিচে এটির উৎস; রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ৫.৪। ২ সেকেন্ড স্থায়ী হয় এই প্রথম কম্পন। দ্বিতীয় কম্পনটি অনুভূত হয়; ১১টা ২৪ মিনিটে। এটির উৎসস্থল; দুর্গাপুর থেকে ২১ কিমি পশ্চিমে। রিখটার স্কেলে মাত্রা ৪.১। দুটি ভূমিকম্পের এই তথ্য দিয়েছে; মেটেরলজিক্যাল বিভাগ, বাঁকুড়া।

তবে এই ভুমিকম্পের পরে; ফের একবার ভুমিকম্প হতে পারে বলেই আশঙ্কা অনেকেরই। তবে এতে বিপদ বা চিন্তার কিছুই নেই বলেই জানান হয়েছে; প্রশাসন এর তরফ থেকে।তবে তাতেও মানুষের চিন্তা যাচ্ছে না। একদিকে আগুন; অন্যদিকে ভুমিকম্প! আগুনের পর ভুমিকম্প; বাংলায় হচ্ছে টা কি? প্রশ্ন মানুষের। অন্যদিকে, লক ডাউনে বাইরে যাব; না ঘরেই থাকব; ভাবতে ভাবতেই ভুমিকম্প শেষ।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন