পাল্টাচ্ছে অর্থনীতি, আসছে বিদেশি মুদ্রা, ভারতের তৈরি মিসাইল কিনতে লাইন

2534
পাল্টাচ্ছে অর্থনীতি, আসছে বিদেশি মুদ্রা, ভারতের তৈরি মিসাইল কিনতে লাইন
পাল্টাচ্ছে অর্থনীতি, আসছে বিদেশি মুদ্রা, ভারতের তৈরি মিসাইল কিনতে লাইন

পাল্টাচ্ছে অর্থনীতি, আসছে বিদেশি মুদ্রা; ভারতের তৈরি মিসাইল কিনতে লাইন। ভারতে তৈরি মিসাইল কেনার জন্য; বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশের মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। ভারতের থেকে মিসাইল কেনার জন্য; দক্ষিণ আমেরিকা ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার বহু দেশ; এখন থেকেই অর্ডার দিতে শুরু করেছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ১০,০০০ কোটি টাকার; অর্ডার পেয়েছে দিল্লি। তবে ভারত সরকার ঠিক করেছে; বরাত নেওয়া হবে শুধু বন্ধু দেশগুলির কাছ থেকেই। ভারতের ব্রহ্মোস-এনজি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র কেনার জন্যই; লাইন দিয়েছে বিশ্বের অনেক দেশ।

ব্রহ্মোস-এনজি (BrahMos-NG) ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রর পরীক্ষা; ২০২৩ সালের মধ্যে শেষ করার পরিকল্পনা। ব্রহ্মোস সুপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র; ব্রহ্মোস অ্যারোস্পেস, রাশিয়ান-ভারতীয় যৌথ উদ্যোগে তৈরি। এখন দেশেই ডিআরডিও; এর ডিজাইন তৈরি করছে। ব্রহ্মোসের প্রথম পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ; হয়েছিল ২০০১ সালে। প্রধানমন্ত্রী মোদীর মেক ইন ইন্ডিয়া উদ্যোগের কারনে; প্রতিরক্ষা খাতে ১ লক্ষ কোটির বেশি অর্থ খরচ আটকানো গেছে।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরে বিচ্ছিন্নতাবাদিদের পুড়িয়ে দেওয়া, ৭০০ বছরের হিন্দু মন্দিরে পুজো দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে কম বাজেটের; দক্ষ মিসাইল তৈরি করছে ভারত। ভারত বিশ্বের শক্তিশালী সামরিক শক্তি হলেও; শক্তিশালী প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম তৈরির ক্ষেত্রে পিছিয়ে ছিল। এখন সম্পূর্ণ বিপরীত; মেরুতে হাঁটছে ভারত। ফিলিপাইনস, দক্ষিণ কোরিয়া, আলজেরিয়া, গ্রীস, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, মিশর, সিঙ্গাপুর, এবং বুলগেরিয়ার মতো দেশগুলি; ব্রাহ্মস ও আকাশ মিসাইলে আগ্রহ দেখিয়েছে। এই ক্ষেপণাস্ত্র-গুলি; এখন সম্পূর্ণ ভাবে ভারতে নির্মিত হচ্ছে। আসিয়ান দেশগুলি ছাড়াও, দক্ষিণ আমেরিকার চিলি এবং BRICS গোষ্ঠীভুক্ত; ব্রাজিল ও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো বিভিন্ন দেশ; ব্রাহ্মস মিসাইল কেনার জন্য ভারতকে প্রস্তাব দিয়েছে।

এখন উত্তরপ্রদেশের লখনউ-তে বিশাল এলাকা জুড়ে; কারখানা তৈরি করে ব্রহ্মোস মিসাইল তৈরি করা হচ্ছে। এই মিসাইল সম্পূর্ণভাবে তৈরি হয়ে যাওয়ার পর, আশা করা হচ্ছে; ৩০ থেকে ৩২ হাজার কোটি টাকার অর্ডার; শুধুমাত্র ভারতীয় বায়ুসেনা দেবে। বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলো এখনই; প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকার মতো অর্ডার দিতে চলেছে। আধুনিক ব্রহ্মোস ক্ষেপণাস্ত্র; ২৯০ কিলোমিটার পর্যন্ত টার্গেটে হিট করে ধ্বংস করতে পারে। এটি সুপারসনিক গতিসম্পন্ন ফ্লাইট; যার ফলে ওড়ার সময় কম লাগে। অতিরিক্ত গতিশক্তির কারণে; এর ধ্বংসাত্মক শক্তি আরও বৃদ্ধি পায়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন