অনুব্রত মণ্ডলকে নজরদারি করার নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন

237
অনুব্রত মণ্ডলকে নজরদারি করার নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন/The News বাংলা
অনুব্রত মণ্ডলকে নজরদারি করার নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

অনুব্রত মণ্ডল কে নজরদারি করার নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন। সোমবার সকাল ছয়টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত তাঁকে নজরদারি করা হবে। সোমবার ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত তার গতিবিধির ওপর সম্পূর্ণ নজরদারি চালাবে নির্বাচন কমিশন। এই কাজের দায়িত্বে থাকবেন একজন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের অফিসার।

সোমবার সকাল ছয়টা থেকে একজন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের অফিসার বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের সঙ্গে থাকবেন। পাশাপাশি তাঁর গতিবিধির ভিডিওগ্রাফিও করা হবে। বীরভূম জেলার নিয়োগে থাকা অবজার্ভার নেতৃত্বে তৈরি হয়েছে একটি কমিটি, যে কমিটি এই নজরদারির কাজ করবে।

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রীর চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ক্ষমতা বেশি, দাবি মমতার

শুধুমাত্র নজরদারি নয় তিনি কোথায় যাচ্ছেন, কখন যাচ্ছেন, তার প্রতিটি মুহূর্ত ভিডিওগ্রাফি করে কমিশনের দফতরে জানাতে হবে বলেই জানিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এবং তিনি ফোনে কার কার সাথে কথা বলছেন সেটাও জানানোর নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

তবে তাতে কোন লাভ হবে না বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। কারণ কোন ভোটের দিনই অনুব্রত মণ্ডল কোথাও বাইরে যান না। তিনি পার্টি অফিসেই থেকে ভোট নিয়ন্ত্রণ করেন। তাই ভোটের দিন আর অনুব্রত মণ্ডলের গতিবিধির উপর নজরদারি করে কোন লাভ নেই।

আরও পড়ুনঃ মমতার তোষণ নীতির জন্য বাংলায় আসছে ভয়ঙ্কর ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা

রবিবার সারাদিন অনুব্রত মণ্ডল বীরভূমে ঘুরে ভোট লড়াই ম্যানেজ করে বলেই জানেন বিরোধী দলের নেতারাও। অর্থাৎ ভোটের অপারেশন জা করার তা করে ফেলেছেন বলেই মনে করছে বিরোধী দলগুলিও। তাই ভোটের দিন তাঁর গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ করে কোন লাভ নেই বলেই মনে করছে বিরোধী দলগুলি।

আরও পড়ুনঃ বউয়ের খোঁজ রাখেন না, দেশের মানুষের খোঁজ কি করে রাখবেন, মোদীকে খোঁটা মমতার

তবে অনুব্রত মণ্ডলের ফোন ব্যবহার নিয়েও নির্দেশ জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। কাকে ফোন করছেন, কার ফোন আসছে সেই নিয়েও নজরদারি করা হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে ভোটের দিন ভোট অপারেশনে সমস্যার মুখে পড়লেন অনুব্রত মণ্ডল। তবে তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা বলছেন, এই ভাবে নজরদারি করে কেষ্টদাকে আটকান যাবে না।

নিজের বুথে ঢুকে ভোট দেওয়া ছাড়া অন্য কোন বুথে ঢুকতেও পারবেন না তিনি, এমনটাই নির্দেশ নির্বাচন কমিশনের। তবে রাজনৈতিক মহল মহল বলছে, যিনি ভোটের দিন পার্টি অফিস থেকে বেরোন না তাঁকে এই নজরবন্দী করা হাস্যকর। তবে অনুব্রত মণ্ডলের ফোন নিয়ে কমিশন যে নির্দেশ দিয়েছে তা ঠিকঠাক মানা হবে কিনা সেটাই এখন প্রশ্ন।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন