কোলে শিশুকন্যা নিয়ে এলেন ব্লক অফিসে নাম লেখাতে, গারদে ‘ভুয়ো রূপশ্রী’

3128
কোলে শিশুকন্যা নিয়ে এলেন ব্লক অফিসে নাম লেখাতে, গারদে 'ভুয়ো রূপশ্রী'
কোলে শিশুকন্যা নিয়ে এলেন ব্লক অফিসে নাম লেখাতে, গারদে 'ভুয়ো রূপশ্রী'

কোলে শিশুকন্যা নিয়ে এলেন, ব্লক অফিসে নাম লেখাতে; গারদে ‘ভুয়ো রূপশ্রী। ‘রূপশ্রী প্রকল্পে নাম লেখাতে এসে; উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালপোখর ব্লক প্রশাসনের হাতে; ধরা পড়লেন ১ সন্তানের জননী। মঙ্গলবার এই নিয়ে তুমুল শোরগোল হল; উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালপোখরে। নিজের কন্যা সন্তানকে সঙ্গে নিয়েই; ব্লক অফিসে গিয়েছিলেন ওই মহিলা। তাতেই সন্দেহ হয়; ব্লকের কর্মচারীদের। তারপর খোঁজ নিতেই; সব সত্যি সামনে আসে। গোয়ালপোখর থানার পুলিশের হাতে; তুলে দেওয়া হয় ওই মহিলাকে। মহিলার নাম নেহা পারভিন; বাড়ি গোয়ালপোখর এর দুলহাভিটা এলাকায়।

কোলে এক বছরের কন্য়াসন্তান, আর সেই সন্তানকে সঙ্গে নিয়েই; ‘আম্মা’ এসেছিলেন রূপশ্রী প্রকল্পে নিজের নাম নথিভুক্ত করাতে। উদ্দেশ্য, রূপশ্রী প্রকল্পের; ২৫ হাজার টাকা হাতানো। কিন্তু, সেই উদ্দেশ্য সফল হল না; নেহা পারভিনের। নাম নথিভুক্ত করাতে গিয়েই; হাতেনাতে প্রশাসনের হাতে ধরা পড়লেন নেহা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের; স্বপ্নের প্রকল্প রূপশ্রী। যার মাধ্যমে বিবাহযোগ্য অবিবাহিত মেয়েদের; বিয়ের সময় এককালীন নগদ ২৫ হাজার টাকা দেয় রাজ্য সরকার।

ইতিমধ্যেই রাজ্যের অন্যান্য প্রান্তেও; এই প্রকল্পে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ আসছিল; গোয়ালপোখর ব্লক এলাকা থেকেও। এদিন নেহা পারভিন নামের ওই মহিলা, ব্লক অফিসে ফর্ম জমা দেওয়ার সময়; ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ ওই মহিলাকে আটক করেছে; নেহা ক্যামেরার সামনে নিজের দোষ স্বীকারও করেছেন।

আরও পড়ুনঃ জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা থাকা তৃণমূল নেতা, থানায় এসে ফুল দিল আইসি-কে

গোয়ালপোখর ব্লক প্রশাসন সূত্রে খবর, নিজের কন্যা সন্তানকে নিয়েই; রূপশ্রীর জন্য নাম লেখাতে ব্লক অফিসে গিয়েছিলেন নেহা। নিজেকে অবিবাহিত বলে পরিচয় দিলেও; কোলের শিশুটিকে দেখে সন্দেহ হয় আধিকারিকদের। এরপর নেহাকে দীর্ঘক্ষণ নানাভাবে; প্রশ্ন করেন আধিকারিকরা। বেশিক্ষণ সত্যি লুকোতে পারেননি নেহা, স্বীকার করেন তিনি বিবাহিত; কোলের শিশু তাঁরই কন্যা। এরপরেই সরকারি আধিকারিকরা; গোয়ালপোখর থানায় খবর দেয়।

ইসলামপুরের মহকুমাশাসক সপ্তর্ষি নাগ বলেন; “সরকারি টাকা নয়ছয় করলে; তাঁদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এক্ষেত্রেও ওই মহিলার বিরুদ্ধে, আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে; গোটা ঘটনার তদন্ত হবে”। সম্প্রতি, মালদায় রূপশ্রীর টাকা পাইয়ে দেওয়ার নামে; এক দালালচক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে, এমনটাই অভিযোগ।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন