বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে টুপি পরতে দেবে না, বিতর্কিত মন্তব্য ফিরহাদের

813
বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে টুপি পরতে দেবে না, বিতর্কিত মন্তব্য ফিরহাদের/The News বাংলা
বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে টুপি পরতে দেবে না, বিতর্কিত মন্তব্য ফিরহাদের/The News বাংলা

ভোট প্রচারে ফের ধর্মীয় বিভেদ সৃষ্টির বার্তা তৃণমূল নেতা ও রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের। বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে টুপি পরতে দেবে না, এবার আরও বিতর্কিত মন্তব্য কলকাতার মেয়র ফিরহাদের। আর এই নিয়েই নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে বিজেপি।

শুক্রবার কৃষ্ণনগরে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন কলকাতার মেয়র তথা পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ ববি হাকিম। এদিন কৃষ্ণনগরের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মহুয়া মৈত্রের সমর্থনে জনসভা করেন তিনি। প্রচারে বিজেপির বিরুদ্ধে আগাগোড়া তোপ দাগেন তিনি। বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে মুসলমানদের টুপি পরতে দেবে না বিজেপি, এমনই দাবি করেন কলকাতার মহানাগরিক।

আরও পড়ুনঃ নুড়ি পাথর ভরা মাটির মিষ্টি খাইয়ে মোদীর দাঁত ভাঙবেন, মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রী মমতার

উত্তরপ্রদেশের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, উত্তরপ্রদেশে মুসলমানরা টুপি পরে বাইরে বেরোতে পারে না, বাইরে নামাজ পড়তে গেলে টুপি পকেটে করে নিয়ে যেতে হয়। বাইরে টুপি পরলেই বজরঙ দলের আক্রমনের শিকার হতে হয় বলে মন্তব্য করেন তিনি। উত্তরপ্রদেশে মুসলমানরা দাঁড়ি রাখতে পারেন না বলেও আফসোস শোনা যায় মন্ত্রীর মুখে।

বিজেপির বিরুদ্ধে গরু নিয়ে রাজনীতি করারও অভিযোগ তোলেন ফিরহাদ হাকিম। গরু খেলেই পিটিয়ে মারা হচ্ছে বলে বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগেন তিনি৷ মানুষের থেকে বিজেপির কাছে গরুর মূল্য বেশি বলে তিনি কটাক্ষ করেন।

আরও পড়ুনঃ পাঁচ বছরে একটাও রাম মন্দির করতে পারল না বিজেপি, রানীগঞ্জে বললেন মমতা

মুসলমান সমাজকে তাই তিনি বিজেপির থেকে সতর্ক হতে আহবান করেন। বিজেপি এলে মাথা তুলে দাঁড়ানোর জায়গা থাকবে কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন তিনি৷ বিজেপি ক্ষমতায় এলে সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় আচার আচরনের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হবে বলে ধারণা প্রকাশ করেন তিনি। বিজেপির বিরুদ্ধে কিছুতেই মাথা নত না করার সাবধানবাণী করেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ টার্গেট মুর্শিদাবাদ, অধীরকে হারাতে বহরমপুরে ইমামদের নিয়ে সভা শুভেন্দুর

নির্বাচনী প্রচারে বিজেপির বিরুদ্ধে রাজ্যের মন্ত্রীর প্রচারকে সাম্প্রদায়িক উস্কানি হিসেবে দেখছে বিজেপি। নিজেদের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তির কথা বলে কিভাবে এই ধরনের মন্তব্য নির্বাচনী সভায় রাখলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই। এই বক্তব্যকে হাতিয়ার করে উস্কানিমূলক প্রচারের অভিযোগে কমিশনের দ্বারস্থ হবার কথাই বলেছে বিজেপি।

আরও পড়ুনঃ অনুব্রত গড়ে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে তিন হাজার কর্মী সমর্থক

তবে তৃণমূলের তরফ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার কড়া হয়েছে। বলা হয়েছে, যেটা সত্য সেটাই বলা হয়েছে, কোনওরকম উস্কানিমূলক মন্তব্য কড়া হয় নি। তবে এই মন্তব্যের জেরে ফের ধর্মীয় বিভেদ সৃষ্টি নিয়ে জোর তরজা শুরু বিজেপি-তৃণমূলের মধ্যে। নির্বাচন কমিশনে জমা পরছে ফিরহাদ হাকিমের এই ভিডিও। কমিশন কি সিদ্ধান্ত নেয় সেটাই এখন দেখার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন