বিজেপির মাথাব্যাথা ৫ বিধায়ক, যে কোন দিন পদ্ম ছেড়ে ঘাসফুলে

1205
বিজেপির মাথাব্যাথা ৫ বিধায়ক, যে কোন দিন পদ্ম ছেড়ে ঘাসফুলে
বিজেপির মাথাব্যাথা ৫ বিধায়ক, যে কোন দিন পদ্ম ছেড়ে ঘাসফুলে

বিজেপির মাথাব্যাথা এখন ৫ বিধায়ক; যে কোনদিন পদ্ম ছেড়ে ঘাসফুলে যোগ দেবেন তাঁরা। রবিবার বিজেপি বিধায়কদের জন্য, কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছিল; হেস্টিংস কার্যালয়ে। বিরোধী নেতা শুভেন্দু অধিকারীর পাশাপাশি, কর্মশালায় ছিলেন; রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও। কিন্তু বারবার বলা সত্ত্বেও; কর্মশালায় সব বিধায়ক উপস্থিত ছিলেন না। হাজির ছিলেন ৬৮ জন; অথচ থাকার কথা ৭৪ জনের। সেই অনুপস্থিত বিধায়কদের মধ্যে; মুকুল রায়ের নাম সর্বাগ্রে রয়েছে। তবে তিনি বৈঠকে থাকবেন না; সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু বাকি ৬ বিধায়কের মধ্যে, পাঁচ বিধায়কের অনুপস্থিতি; ভাবাচ্ছে বিজেপিকে।

যে ৬ জন বিজেপি বিধায়ক, দলের কর্মশালায় যোগ দেননি; তাঁরা হলেন বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তন্ময় ঘোষ; দার্জিলিংয়ের নীরজ জিম্বা; পুরুলিয়ার বিধায়ক সুদীপ মুখোপাধ্যায়; বাগদার বিশ্বজিৎ দাস; কুলটির অজয় কুমার পোদ্দার এবং ভাটপাড়ার বিধায়ক পবন সিং। রাজ্য বিজেপি সূত্রে খবর, এদের মধ্যে একমাত্র তন্ময় ঘোষ; রাজ্য নেতৃত্বকে জানিয়েছিলেন অনুপস্থিত থাকার কথা। বাকিরা কিছুই জানাননি। এখানেই সন্দেহ; বেড়েছে বিজেপিতে।

মুকুল রায়ের ঘরওয়াপসির পর; আরও অনেকের তৃণমূলে যোগ দেবার জল্পনা রাজনীতির অন্দরমহলে ৷ কারা ফিরবেন; তাই নিয়েও আলোচনা চলছে ৷ মুকুল জানিয়েছিলেন; ফিরবেন দলবদল করা অনেক নেতা। তবে তালিকায় কারা রয়েছেন; স্পষ্ট করেননি তিনি। মমতাও জানিয়ে দেন, কেউ ফিরতে চাইলে; দলে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আরও পড়ুনঃ ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ড, মমতার পুলিশের অনুমতি ছাড়াই বিজেপির ‘লালবাড়ি অভিযান’

অনুপস্থিত বিধায়কদের মধ্যে, পুরুলিয়ার সুদীপ; শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত। বাগদার বিশ্বজিৎ ভোটের আগেই, বিধানসভার শেষ অধিবেশনের দিনই; মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে প্রণাম করে শোরগোল ফেলেছিলেন। তিনি তৃণমূলে পা বাড়িয়েছেন; সেটাও অনুমেয়। কুলটির অজয় পোদ্দার; বেশ চাপে আছেন। কারন তিনি জয়ী হয়েছেন; মাত্র ৬৭৯ ভোটে। তার জেরে মামলার সম্ভাবনাও আছে। পদ বাঁচাতে তিনি তৃণমূলের হাত; ধরতেই পারেন।

দার্জিলিংয়ের নীরজ জিম্বা; এখন বিমল গুরুংয়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বলেই খবর। অন্যদিকে, ভাটপাড়ার পবন সিংয়ের বাবা; ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং নানা মামলায় জর্জরিত। আইনি রক্ষাকবচ, দীর্ঘমেয়াদী সুরক্ষা দিতে পারবে না; সেটাও তিনি বোঝেন। তাই মুকুল রায় মারফত; আপোষ রফার পথে যেতেই পারেন। সব মিলিয়ে ৫ বিধায়ককে ঘিরেই; দোলাচলে বঙ্গ বিজেপি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন