জর্জ বেকার ও তসলিমা নাসরিন আমার বাবা মা, মেয়ের স্বীকৃতি আদায়ে লড়াই অঙ্কিতার

3064
জর্জ বেকার ও তসলিমা নাসরিনের অবৈধ বাঙালি মেয়ের স্বীকৃতির লড়াই/The News বাংলা
জর্জ বেকার ও তসলিমা নাসরিনের অবৈধ বাঙালি মেয়ের স্বীকৃতির লড়াই/The News বাংলা

তসলিমা নাসরিন ও জর্জ বেকারের সন্তান বলে; নিজেকে দাবি করলেন আঙ্কিতা ভট্টাচার্য। মাতৃ-পিতৃ পরিচয় ফিরে পেতে লড়ায় করে চলেছে অঙ্কিতা। গত কয়েকবছর ধরেই সে দাবি করে আসছে; লেখিকা তসলিমা নাসরিন ও অভিনেতা তথা বিজেপি নেতা জর্জ বেকার তাঁর বাবা-মা। জর্জ বেকার ও তসলিমা নাসরিন আমার বাবা মা; মেয়ের স্বীকৃতি আদায়ে লড়াই অঙ্কিতার।

স্থানীয় প্রশাসন থেকে শুরু করে মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েও কোন লাভ হয়নি। কেউই কোন ব্যাবস্থা নেয়নি এই ব্যাপারে। তাই এবার নিজের অধিকার ফিরে পেতে; সোশ্যাল মিডিয়ার দ্বারস্থ হলেন বর্ধমানের অঙ্কিতা ভট্টাচার্য।

অঙ্কিতা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান; জর্জ বেকার ও তসলিমার সন্তানকে ছোটবেলাতেই দত্তক দিয়ে দেওয়া হয়। বাকি দশজনের মত তার শৈশব ছিল না; কড়া নজরদারির মধ্যেই বড় হতে হয়েছে তাকে। বাবা জর্জ বেকার ফোনে মাঝেমধ্যে খোঁজ খবর নিতেন। ব্যস! ঐটুকুই। পিতৃত্ব বা মাতৃত্বের বৈধ-পরিচয় অঙ্কিতার কাছে ছিল না।

অঙ্কিতা জানান; তার কাছে যথেষ্ট প্রমাণ আছে; যা তার দাবিকে সত্য বলে প্রমাণ করবে। নিজের স্বীকৃতির দাবিতে তিনি গেছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও; সেই কাগজও অঙ্কিতা পোস্ট করেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু অঙ্কিতার দাবি; তারপরেও কেউই উৎসাহ দেখাননি তার লড়াইয়ের সমর্থনে।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যে লুঙ্গি পরা বন্ধ করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

অঙ্কিতা দাবি করেছেন; তার লোকাল থানার তৎকালীন অফিসার ইন চার্জ জানান; “এই ঘটনা বের করতে হলে আমাকে সুসাইড করতে হবে। এই বলে আমার ফাইল চাপা দিয়ে দেয়। তাই আমি ভাবলাম; আমি একটু একটু করে সামনের দিকে এগিয়ে যাব। কিন্তু আমি লড়াই ছাড়বো না”।

অঙ্কিতা বলেন; “অনেক কিছুই আছে; আস্তে আস্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় আমি সবকিছুই বলবো। এখন আপনারা নিচে দেওয়া ছোট্ট প্রমাণটি দেখুন। আমি অনেকদিন আগেই; আমাদের মুখ্যমন্ত্রীকে আমার অভিযোগ জানিয়ে ছিলাম। এখানে সাল; ডেট এবং অভিযোগ কাকে জানানো হয়েছিল সেটাও পেয়ে যাবেন”।

অঙ্কিতা সোজাসুজি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে ডিএনএ পরীক্ষার। তিনি জানান; “ডিএনএ ম্যাচ না করে; তখন যা শাস্তি তা মাথা পেতে নেব”। মেয়ের পরিচয়ের জন্য; গত তিনবছর ধরে লড়াই করে চলেছেন অঙ্কিতা। কিন্তু না তো প্রশাসন; না মুখ্যমন্ত্রী; আর না কোন মিডিয়ার সাহায্য পেয়েছেন তিনি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন