পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে, কলকাতার রাস্তায় প্রকাশ্যে ঘুরছেন ফে’রার বিমল গুরুং

4223
পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে, কলকাতার রাস্তায় প্রকাশ্যে ঘুরছেন ফে'রার বিমল গুরুং/The News বাংলা
পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে, কলকাতার রাস্তায় প্রকাশ্যে ঘুরছেন ফে'রার বিমল গুরুং/The News বাংলা

পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে, কলকাতার রাস্তায় প্রকাশ্যে ঘুরছেন; ফে’রার বিমল গুরুং। ২০১৭ সালের পর; প্রায় ৪ বছর প্রকাশ্যে দেখা গেল; গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার নেতা বিমল গুরুংকে। বুধবার বিকেল ৪টে নাগাদ বিধাননগরে; গোর্খা ভবনের সামনে আসেন তিনি। সেখানে একটি সাংবাদিক সম্মেলন; করার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু অনেক ডাকাডাকিতেও; গোর্খা ভবনের দরজা খোলেনি কর্তৃপক্ষ। এর পর গাড়ি নিয়ে; মধ্য কলকাতার দিকে রওনা দেন গুরুং। ২০১৭ সালে দার্জিলিংয়ে অশান্তির পর; বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে UAPA-র ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে পুলিশকর্মী অমিতাভ মালিক; খু’নের মামলাও রয়েছে। এছাড়া একাধিক গুরুতর ধারায় অভিযুক্ত তিনি।

আরও পড়ুনঃ মুর্শিদাবাদ থেকে গ্রেফ’তার আ’ল কা’য়দা জ’ঙ্গিদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি তৃণমূল নেতার

এখনও পর্যন্ত UAPA ‌সহ; একাধিক দেশ’দ্রোহিতার অভিযোগে; মামলা রয়েছে বিমল গুরুং এর বিরুদ্ধে। আদালত হুলিয়া জারিও করেছে। তিন বছর ধরে; গুরুং এর সন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ। পুলিশের খাতায় তিনি; এখনও ফে’রার। সূত্রের খবর, তিনি এদিন হোয়্যাটস গ্রুপ মারফত; সাংবাদিক বৈঠক করার কথা জানিয়েছিলেন। সেটা হওয়ার কথা ছিল; বিধাননগরের গোর্খা ভবনেই।

আরও পড়ুনঃ ভোট আসছে বাংলায়, বেলেঘাটার পর বীরভূম, বো’মা বিস্ফো’রণে উড়ে গেল স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ছাদ

কিন্তু শত ডাকাডাকিতেও গোর্খা ভবনের গেট না খোলায়; এদিন ফিরে যেতে হয় গুরুংকে। ২০১৭ সালে দার্জিলিংয়ে তীব্র অ’শান্তির পিছনে; মূল চ’ক্রী হিসাবে গুরুং এর নাম বারবার উঠে এসেছে। পুলিশ কর্মী অমিতাভ মালিক; খুনের মামলাও রয়েছে বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে। রয়েছে অসংখ্য দেশ’দ্রোহিতার মামলাও। সেই কারণেই এতদিন তিনি গ্রেফতারি এড়াতে; প্রকাশ্যে আসেননি। একাধিকবার তিনি ভিডিও মারফত বার্তা দিয়েছেন; কিন্তু কোনওদিনই প্রকাশ্যে আসেননি। পুলিশ এতদিন হন্যে হয়ে খুঁজছিল; বিমল গুরুংকে। সেই বিমল গুরুং প্রকাশ্যে; ঘুরে বেড়াচ্ছে কলকাতার রাস্তায়।

২০১৭ সাল থেকে; আত্মগোপন করে ছিলেন গুরুং। কখনো তাঁকে ভিডিয়ো বার্তা দিতে দেখা গেলেও; প্রকাশ্যে আসেননি তিনি। এদিন গোর্খা ভবনের ভিতরে ঢুকতে না পারায়; সাংবাদিকদের সামনে কোনও কথা বলেননি গুরুং। গাড়ি নিয়ে সোজা তিনি চলে যান; কলকাতার দিকে। গাড়িতে তাঁর সঙ্গে ছিলেন; গেরুয়া বসন পরা এক ব্যক্তি। তবে তাঁর নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন