এখনই জেনে নিন, মা কালীর পায়ের নিচেই কেন থাকেন বাবা মহাদেব

758
Image Source: Google

পুরাণে আছে; অসুর কূলের আক্রমনের ফলে সঙ্কটে পরে দেবতারা। তাঁদের তাড়িয়ে স্বর্গরাজ্যের অধিকার নেওয়ার চেষ্টা করেছিল অসুররা। অসুরদের প্রধান ছিলেন; রক্তবীজ। ব্রহ্মার বরে রক্তবীজের একফোঁটা রক্ত থেকে জন্ম নিচ্ছিল আরো হাজার রক্তবীজ। একফোঁটা রক্ত মাটিতে পড়লেই আর্বিভূত হচ্ছিল অসুর বাহিনী। অসুর নিধন করতে অবতীর্ণ হন; দেবী দূর্গা। সব অসুর নিহত হলেও; বেঁচে থাকে রক্তবীজ। কিন্তু সেই যুদ্ধেও ব্রহ্মার বরে অপরাজেয় থাকে রক্তবীজ। এই অবস্থায়; দূর্গার ভীষণ ক্রোধে তাঁর দুই ভ্র’র মাঝখান থেকে জন্ম নেন দেবী কালী।

রক্তবীজের একফোঁটা রক্তও যাতে মাটিতে না পড়ে; সেই কারনে রক্তবীজের দেহ শূণ্যে তুলে নেন দেবী কালী। এই অবস্থায়; রক্তবীজের দেহের সবটুকু রক্তপান করেন দেবী। শেষ বিন্দু রক্ত পান করার পর; নিথর রক্তশূণ্য রক্তবীজের দেহ ছুড়ে ফেলে দেন মাতা কালী।

আরও পড়ুনঃ বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীবার, সফলভাবে লক্ষ্মী পূজা করার রহস্য

আকণ্ঠ রক্ত পান করে; বিজয়নৃত্য শুরু করেন মাতা কালী। কালীর উন্মাদিনী নাচ দেখে প্রমোদ গোনেন দেবতারা। কারণ এই নাচে আসন্ন হচ্ছিল সৃষ্টির লয়। পৃথিবীকে ধ্বংশের হাত থেকে বাঁচাবার জন্য দেবতারা শিবের শরণাগত হলেন।

আরও পড়ুনঃ বিপ্লবী চন্দ্র শেখর আজাদের ভয়ে কেন কাঁপত ব্রিটিশ বাহিনী, জেনে নিন

শিবের একাধিক মৌখিক অনুরোধ শুনতে পাননি মাতা কালী। কারন তখন তিনি উন্মাদিনী মত নেচে চলেছেন। আর কোনও উপায় না দেখে; নৃত্যরতা কালীর পায়ের তলায় নিজেকে ছুঁড়ে দিলেন মহাদেব।

আরও পড়ুনঃ ভারতের বীর সেনা, হিরো অফ নাথুলা বাবা হরভজন সিং-এর অজানা কাহিনী

এরপরই চৈতন্য হয় মা কালীর; থেমে যায় নাচ। পায়ের নিচে স্বামীকে দেখে; লজ্জায় জিভ কাটেন দেবী কালী। এই পৌরাণিক কাহিনী অবলম্বন করেই যুগ যুগ ধরেই পূজিত হয়ে আসছে মায়ের এই প্রতিমা। দূর্গার পাশে শিবকে নানা ভাবে দেথা যায়।

তার মধ্যে হরগৌরী রূপ বিখ্যাত। মাতা কালীর সঙ্গে শিব থাকলে তাঁর জায়গা সবসময় দেবীর পদযুগলের নিচে। এই বিগ্রহে কালীর ডান পা যদি এগিয়ে থাকে তবে তিনি দক্ষিণা কালী। আবার বাম পা এগিয়ে থাকলে তা মায়ের বামা ক্ষ্যাপা রূপ।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন