ভক্তদের জন্য সুখবর, শ্রী রামায়ন যাত্রা এক্সপ্রেস চড়ে ঘুরে আসুন রামায়নের রাম রাজ্যে

204
ভক্তদের জন্য সুখবর, শ্রী রামায়ন যাত্রা এক্সপ্রেস চড়ে ঘুরে আসুন রামায়নের রাম রাজ্যে/The News বাংলা
ভক্তদের জন্য সুখবর, শ্রী রামায়ন যাত্রা এক্সপ্রেস চড়ে ঘুরে আসুন রামায়নের রাম রাজ্যে/The News বাংলা

তীর্থযাত্রীদের জন্য আবারও সুখবর। গতবছরের উদ্যোগে সফলতা পেয়ে; এই বছর আবারও চালু হচ্ছে “শ্রী রামায়ন যাত্রা” এক্সপ্রেস। ভারতীয় রেলের এই বিশেষ ট্রেন এবার ছুঁয়ে যাবে রামায়নে বর্ণিত স্থান গুলি। ভারতীয় রেলের সুত্রের খবর; উত্তর প্রদেশের অয্যোধ্যা থেকে শুরু করে; শ্রীলঙ্কা পর্যন্ত যেতে পারবে এই বিশেষ ট্রেনের যাত্রীরা। শ্রীলঙ্কা যাবার জন্য; চেন্নাই থেকে বিমানে যাত্রীদের নিয়ে যাওয়া হবে বলে খবর।

গত বছর ভারতীয় রেলের তরফে; এমনই চারটি ট্রেন ছাড়া হয়েছিল। এই বছর এখনও পর্যন্ত নির্দিষ্ট দুটি ট্রেনের মধ্যে; একটি ছাড়বে; রাজস্থানের জয়পুর থেকে। অপর ট্রেনটি ছাড়বে; মধ্য প্রদেশের ইন্দোর থেকে।

রাজ্য ও দেশ জুড়ে ভারত সেবাশ্রম সংঘের ফোন নাম্বার, বেড়াতে গিয়ে খুব কম খরচে থাকা খাওয়া

সমস্ত রকম যাত্রীদের কথা মাথায় রেখে; এই বছর শ্রী রাম যাত্রা ট্রেনটির ভাড়া নির্ধারিত করা হয়েছে; যাত্রী পিছু ১৬০০০ টাকা। পুরো সফরে; যাত্রীরা মোট ১৬ রাত্রি ও ১৭ দিনের যাত্রায়; ভারতের যেখানে যেখানে পদধূলি পড়েছে হিন্দু ধর্মাবতার শ্রীরামের সেই স্থান গুলো ঘুরতে পারবে।

রেলমন্ত্রক সূত্রের খবর, এই এক্সপ্রেস ট্রেনে চেপেই দর্শনার্থীরা সেই বিশেষ বিশেষ স্থানে ভ্রমণ করতে পারবেন; শুধু যারা বিমানে শ্রীলঙ্কা যেতে চাইবেন; তাঁদের মাথা পিছু ভাড়া পড়বে ৩৬,৯৫০ টাকা।

আরও পড়ুনঃ শনি রবির ছুটিতে, আদিবাসী সাঁওতালি সংস্কৃতিতে, ঢাকের বাদ্যে মন ডুবিয়ে আসুন আমাডুবিতে

মধ্য প্রদেশের ইন্দোর থেকে যে ট্রেনটি ছাড়বে; তার নাম দেওয়া হয়েছে; “রামায়ন এক্সপ্রেস”। ইন্দোর থেকে ছেড়ে ট্রেনটি বারানসী হয়ে নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌছবে। আশা করা যাচ্ছে আগামী ১৮ নভেম্বর ছাড়বে এই ট্রেনটি।

শ্রী রামায়ন এক্সপ্রেস প্রথমে রাম জন্মভুমি অযোধ্যা হয়ে; ট্রেনটি বিহারে সীতামাতার মন্দির; বারানসীতে সংকট মোচন মন্দির; প্রয়াগের হনুমান মন্দিরে যাবে। তারপর সেখান থেকে; চিত্রকূটে সতী মন্দির; নাসিকের পঞ্চবটী রামেশ্বরমে জ্যোতিরলিঙ্গ শিব মন্দির দর্শন করতে পারবেন।

ইন্ডিয়ান রেলওয়ে কেটারিং ও ট্যুরিজম কর্পোরেশনের এক আধিকারিক জানিয়েছেন; ১৬ দিনে রামায়ণে বর্ণিত সবকটি স্থান পরিদর্শন করতে পারবেন যাত্রীরা। ওই আধিকারিক জানিয়েছেন; ট্রেনেই খাবার দেওয়া হবে যাত্রীদের। ধর্মশালায় থাকার ব্যবস্থা থাকবে। যাত্রীদের রাম মাহাত্ম্য বর্ণনা করার জন্য থাকবে গাইডও।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন