শুধুমাত্র আগস্টেই বাংলায় ২২৩ টি ধর্ষণ, ৬৩৯ টি অপহরণ, রাজ্যপালের দেওয়া তথ্য ভুয়ো জানাল নবান্ন

5577
শুধুমাত্র আগস্টেই বাংলায় ২২৩ টি ধর্ষণ, ৬৩৯ টি অপহরণ, রাজ্যপালের দেওয়া তথ্য ভুয়ো জানাল নবান্ন
শুধুমাত্র আগস্টেই বাংলায় ২২৩ টি ধর্ষণ, ৬৩৯ টি অপহরণ, রাজ্যপালের দেওয়া তথ্য ভুয়ো জানাল নবান্ন

“রাজ্যে মহিলাদের উপর অত্যাচার বাড়ছে। শুধুমাত্র আগস্টেই বাংলায় ২২৩ টি ধর্ষণ; ও ৬৩৯ টি অপহরণ এর মামলা হয়েছে”; রাজ্যপালের দেওয়া তথ্যে হতবাক হয়ে যায় গোটা রাজ্যের মানুষ। রাজ্যপালের টুইট ভাইরাল হবার পরেই; নবান্ন পাল্টা জানিয়ে দেয়, রাজ্যপালের দেওয়া তথ্য ভুয়ো। পশ্চিমবঙ্গে মহিলাদের বিরুদ্ধে হওয়া অত্যাচার নিয়ে; সরব হন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। একটি ট্যুইট করে, রাজ্যে বেড়ে চলা মহিলাদের উপর; অত্যাচারের পরিসংখ্যান জারি করেন তিনি। এরপরেই, রাজ্যপালের দেওয়া ধর্ষণের তথ্য খণ্ডন করে; রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতর জানায়, ওনার পরিসংখ্যানে রয়েছে অসংগতি।

মঙ্গলবার রাজ্যপাল একটি ট্যুইট করে, ২০২০ এর আগস্ট মাসে; রাজ্যে ধর্ষণ আর অপহরণের পরিসংখ্যান তুলে ধরেন। উনি জানান, “আগস্ট মাসে রাজ্যে মোট; ২২৩ টি ধর্ষণ আর ৬৩৯ টি অপহরণের মামলা ঘটেছে”। তিনি রাজ্যে মহিলাদের উপর বেড়ে চলা অপরাধ নিয়ে; উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুনঃ বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায়, গ্রেফতার মহম্মদ খুররম তৃণমূল কর্মী

এরপরেই, রাজ্যে মহিলাদের উপর নির্যাতন ও ধর্ষণ নিয়ে, যে তথ্য রাজ্যপাল পেশ করেছিলেন; তা সম্পূর্ণ মিথ্যে ও ভুয়ো বলে উড়িয়ে দেয় রাজ্য স্বরাষ্ট্র দফতর। স্বরাষ্ট্র দফতরের তরফ থেকে, ট্যুইট করে জানানো হয় যে; “রাজ্যপাল যেই পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছেন, সেটি বিভ্রান্তিকর। এটি কোনও অফিসিয়াল পরিসংখ্যান; অথবা রিপোর্টের ভিত্তিতে দেওয়া হয়নি। এখানে অনেক ভিত্তিহীন দাবি করা হয়েছে”।

রাজ্য স্বরাষ্ট্র দফতরের জবাবের; পাল্টা জবাব দেন রাজ্যপাল ধনখড়। রাজ্যপাল পাল্টা বলেন, “রাজ্যে ধর্ষণ ও অপহরণের পরিসংখ্যান; রাজ্য প্রশাসনের তরফ থেকেই ওনাকে পাঠানো হয়েছিল”। উনি বলেন, “মমতা ব্যানার্জীর এমন; বিভ্রান্তিকর তথ্যে অবাক হচ্ছি। ওনার উচিৎ ক্ষমা চেয়ে; এই তথ্য সংশোধন করে নেওয়া। আমি নিজে থেকে; কোনও রিপোর্ট বানাই নি। আমাকে রাজ্য প্রশাসনের তরফ থেকে; আগস্ট মাসে ২২৩ টি ধর্ষণ আর ৬৩৯ টি অপহরণের রিপোর্ট পাঠানো হয়েছিল”।

রাজ্যের মুখ্যসচিবকে কড়া বার্তা দিয়ে; তথ্য প্রত্যাহার করার দাবি জানান রাজ্যপাল। উনি বলেন, রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ব্যর্থ হওয়ার পর; এরকম অসত্য তথ্য প্রকাশ করেছেন রাজ্যের ডিজিপি। রাজ্য পুলিশের তরফ থেকেও; রাজ্য স্বরাষ্ট্র দফতরের পোস্ট শেয়ার করা হয়। সবমিলিয়ে ধর্ষণ নিয়ে ফের; রাজ্য বনাম রাজ্যপাল সংঘাত।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন