“মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক, আমি বিজেপির লোক”, ‘ধনখড়-আব-বন্ধ-কর’ ট্রেন্ড

1201
"মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক, আমি বিজেপির লোক"

“মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক; আমি বিজেপির লোক”; ধনখড়-আব-বন্ধ-কর ট্রেন্ড সোশ্যাল মিডিয়ায়। শুভেন্দু সাক্ষাতের পরে, ‘ভোট পরবর্তী হিংসা’ নিয়ে; মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে কড়া ভাষায় চিঠি পাঠিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তারপরেই তিনি উড়ে যান দিল্লী। সেখানে তাঁর দেখা করার কথা; কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে। বাংলায় ‘ভোট পরবর্তী হিংসা’ নিয়েই; অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। বিরোধী দলনেতা শুভেন্দুর সঙ্গে সাক্ষাৎকারের পরেই; মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্যপালের চিঠি ও তড়িঘড়ি দিল্লী রওনা নিয়ে; সোশ্যাল মিডিয়ায় কড়া বিরোধিতা করেছে যুব তৃণমূল সমর্থকরা। রাজ্যপালকে নিয়ে তাদের টুইট; #ধনখড়আববন্ধকর এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ড।

তৃণমূলের সোশ্যাল মিডিয়া ভরে গেছে; রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে নিয়ে বিভিন্ন পোস্ট ও কার্টুনে। রাজ্যপালকে আক্রমণ করে তৃণমূল সমর্থকরা তাঁকে; ‘বিজেপির দালাল’; ‘নাটকপাল’; ‘পদ্মপাল’; ‘বিজেপির অঘোষিত রাজ্য সভাপতি’; ‘কেন্দ্রীয় টুইট মন্ত্রী’; ‘বিজেপির এজেন্ট’ ইত্যাদি বলে সম্বোধন করেন। তাঁদের টুইটে, ‘বিজেপির দালাল পদ্মপাল বাংলা ছাড়ো’; এমন দাবিও উঠে এসেছে। রাজ্যপালের কাজকর্মকে নিরপেক্ষ নয়; বরং বিজেপি সমর্থিত বলে দাবি করেছেন তৃণমূল সমর্থকরা।

আরও পড়ুনঃ ‘দলত্যাগীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা’, তৃণমূলের পাশে দাঁড়াল সিপিএমও

শুভেন্দু অধিকারী সাক্ষাত করার পরেই, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখে ধনখড় বলেন; “মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী আপনি অবশ্যই এ বিষয়ে সহমত হবেন যে; রাজ্যে এই স’ন্ত্রাসের পরিবেশ গণতন্ত্রের পক্ষে বি’পজ্জনক”। গত ১৭ মে নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতরে; মুখ্যমন্ত্রীর হাজির হওয়ার প্রসঙ্গও তুলে ধরেছেন তাঁর চিঠিতে। চিঠি পৌঁছে যায় সংবাদমাধ্যমের হাতে; তাতেই ক্ষুব্ধ নবান্ন।

আরও পড়ুনঃ মুকুল রায়ের টার্গেট ‘ম্যাজিক ২৫’, ঘোর চিন্তায় শুভেন্দু

অন্যদিকে খবর, রাজ্যপাল পদে জগদীপ ধনখড়কে সরিয়ে; বাংলার রাজ্যপাল হিসেবে আরিফ খানকে ভাবছে কেন্দ্র সরকার। আপাতত এই জল্পনাই ঘুরপাক খাচ্ছে; রাজ্য ও রাজধানীর অন্দরে। রাজভবনে অবৈধ নিয়োগ করেছেন; রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এই অভিযোগ তুলেছে শাসকদল। সূত্রের খবর, তারপর থেকেই; তিনি বিতর্কে। তবে তা সত্ত্বেও জগদীপ ধনখড়, বাংলার রাজ্যপাল হিসেবে যা দায়িত্ব পালন করেছেন; তাতে বিজেপি নেতা ও দলীয় কর্মীদের কাছে তিনি জনপ্রিয়। অন্যদিকে একদম পছন্দ করেন না; তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন