জুলাইয়ের মধ্যে ভারতের হাতে ৪০-৫০ কোটি করোনা টিকা ডোজ, পাবেন ২৫ কোটি মানুষ

2070
জুলাইয়ের মধ্যে ভারতের হাতে আসবে করোনা টিকার ৪০-৫০ কোটি ডোজ, জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী
জুলাইয়ের মধ্যে ভারতের হাতে আসবে করোনা টিকার ৪০-৫০ কোটি ডোজ, জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আগামী জুলাইয়ের মধ্যে, ভারতের হাতে আসবে; করোনা টিকার ৪০-৫০ কোটি ডোজ। তবে টিকা পাবেন; ২৫ কোটি মানুষ। জানালেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। প্রতিদিনই দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে; করোনা সংক্রমণ। ভারতের সঙ্গে, গোটা বিশ্ব তাকিয়ে রয়েছে; করোনা ভাইরাস টিকার দিকে। কিন্তু ভারতে করোনা টিকা আসবে কবে? এনিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কথা; শোনা গিয়েছে বিভিন্ন মহল থেকে। তবে রবিবার এই নিয়ে পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন; কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবিবার বলেন, “আগামী বছর জুলাইয়ের মধ্যে; ভারতের হাতে এসে যাবে; করোনা টিকার ৪০-৫০ কোটি ডোজ। তাতে দেশের ২০-২৫ কোটি মানুষকে; টিকা দেওয়া যাবে। রবিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর ‘সানডে সংবাদ’-এ; বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। সেখানেই তিনি ওই কথা জানান। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, দেশে কার আগে করোনা টিকার প্রয়োজন হবে; তা ঠিক করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে এগিয়ে থাকবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। তালিকায় থাকবেন চিকিৎসক; নার্স; স্যানিটারি স্টাফ; আশা কর্মীরা ও করোনা নিয়ন্ত্রণে জড়িত কর্মীরা। অক্টোবরের মধ্যেই এই প্রক্রিয়া; শেষ হয়ে যাবে। রাজ্যগুলিকে তাদের তালিকা জমা দিতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ৮০০ কিমি দূরে গিয়ে নিউক্লিয়ার বিস্ফোরণ ঘটাতে পারবে, শৌর্য মিসাইলের সফল পরীক্ষা করল ভারত

করোনা টিকা, যাতে সুষ্ঠুভাবে বিলি করা হয়; সেদিকেও নজর দেওয়া হবে। প্রতি রবিবার সোশ্যাল সাইটে সাধারণ মানুষের সঙ্গে; যোগাযোগ করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। দেশবাসীর প্রশ্নের জবাব দেন। এদিন সেই ‘‌সানডে সংবাদ’‌–এর চতুর্থ পর্বেই; এই ঘোষণা করেন তিনি। জানান, কাদের সবার আগে টিকা দেওয়া প্রয়োজন; তার একটা তালিকা অক্টোবরের মধ্যেই, কেন্দ্রকে পাঠাতে হবে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সরকারের। তার ভিত্তিতেই টিকা বিলির ব্যবস্থা করা হবে।

এখন ভারতে তিনটি করোনা টিকার; পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে। তার মধ্যে অক্সফোর্ডের গবেষকদের তৈরি; ‘‌কোভিশিল্ড’‌–এরও দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে। টিকাটি উৎপাদনের দায়িত্বে রয়েছে; পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট। সংস্থার কর্ণধার আদর পুনাওয়ালা দিন কয়েক আগে টুইটারে কেন্দ্রকে প্রশ্ন করেছিলেন; “আগামী ১২ মাসে দেশে সকলকে দেওয়ার জন্য; ৮০ হাজার কোটি টাকার টিকা কিনতে হবে। সেই টাকা কি সরকারের রয়েছে?‌ সেই নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়।

কেন্দ্র পাল্টা বলে, করোনার টিকা কেনার জন্য; ৮০ হাজার কোটি টাকার প্রয়োজন নেই। এমনিতে টিকা কেনার টাকা তাদের রয়েছে। পরে অবশ্য পুনাওয়ালা জানান; “টিকা বিলির পরিকল্পনার জন্যই; এই তথ্য চেয়েছেন তিনি। একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন; এক–একটি টিকার দাম হবে ১০০০ টাকা। বিল এবং মেলিন্ডা গেটসের সংস্থা, ইতিমধ্যেই ভারত সহ গরিব দেশে টিকা দেওয়ার জন্য; সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে চুক্তি করেছে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন