আদালতের নির্দেশে ভাটপাড়ায় আবার ভোট

1050
হাইকোর্টের নির্দেশে আবার ভাটপাড়ায় আস্থা ভোট/The News বাংলা
তৃণমূলের পুলিশই বিজেপিকে রক্ষা করছে/The News বাংলা

আদালতের নির্দেশে ভাটপাড়ায় আবার ভোট। ভাটপাড়া পুরসভার মামলায় সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়; খারিজ করল ডিভিশন বেঞ্চ। আগামী কাল দুপুর একটার সময় আস্থা ভোট হবে ভাটপাড়ায়। ভাটপাড়া পৌরসভার বর্তমান নির্বাচিত পুর প্রতিনিধিরা যাতে সুরক্ষিতভাবে তাদের ভোটের অধিকার প্রয়োগ করতে পারেন; তার জন্য যা যা নিরাপত্তা প্রয়োজন; তা নিশ্চিৎ করবেন জেলা শাসক, পুলিশ সুপার।

এমনই নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। আস্থা ভোট হবে নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকদের উপস্থিতিতে। তাদের হাজির থাকার পরে; অনুষ্ঠিত হবে ভোট। পুরো বিষয়টি ভিডিও রেকডিং করতে হবে। নির্দেশ দিল বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত ও বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ।

আরও পড়ুন হাসপাতালের বেডে শুয়েই পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফাটলেন ঐশী

জেলাশাকের রিপোর্ট মুখ বন্ধ খামে জমা দিতে হবে আগামী বৃহস্পতিবার। এদিন কলকাতা ডিভিশন বেঞ্চ; উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পুলিশ সুপার এবং উত্তর ২৪ পরগনার জেলাশাসক-কে আস্থা ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে আগাম চিঠি দিয়ে জানাতে হবে; বলে নির্দেশ দেন দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

কলকাতা হাইকোর্টে অর্জুনের কাছে জোর ধাক্কা খান মমতা। তৃণমূল কাউন্সিলর দের আনা; অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ আদালত। ভোটাভুটিও বাতিল করা হল। বৃহস্পতিবারই; অর্জুন সিংয়ের ভাটপাড়া দখলে নেন মমতা। ভাটপাড়া পুরসভায় আস্থাভোটে জয়ী তৃণমূল; ১৯-০ ফলাফলে ভাটপাড়া দখল করে তৃণমূল। বিজেপি অংশই নেয়নি ভোটে।

নতুন বছরের শুরুতেই ঝটকা খায় গেরুয়া শিবির। বৃহস্পতিবার আস্থাভোটে জয়ী হল তৃণমূল। অবশেষে; ভাটপাড়া পুরসভাও ধরে রাখতে না পেরে বিজেপি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়।

এদিন পুরসভার সভাকক্ষে আস্থাভোট ছিল। তৃণমূলের পক্ষে; ১৯ জন কাউন্সিলর হাজির ছিলেন। বিজেপির কোনও কাউন্সিলরই আসেননি। ফলে ১৯-০ ভোটে জয়ী হল তৃণমূলই। এর ফলে বিজেপির সৌরভ সিং আর পুরপ্রধান পদে থাকতে পারবেন না। তবে এই রায়ের বিরুদ্ধে; বিজেপির পক্ষ থেকে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয়। লোকসভা ভোটের পরে বনগাঁ, নৈহাটি, গারুলিয়া, কাঁচরাপাড়া, হালিশহর ও ভাটপাড়া পুরসভার দখল নেয় গেরুয়া শিবির।

চার মাসের মধ্যে শাসকদল পাঁচ পুরসভা পুনর্দখল করে। অবশেষে ভাটপাড়া পুরসভা দখল করে; তৃণমূল জেলায় রাজনৈতিক এক আধিপত্যের বৃত্ত সম্পূর্ণ করল। অর্জুন-গড়ে পদ্মের নিশান কার্যত শূন্য হয়ে যায়। গত ৬ ডিসেম্বর ভাটপাড়া পুরসভায়; ১৮ জন তৃণমূল কাউন্সিলর পুরপ্রধান সৌরভ সিংয়ের বিরুদ্ধে; অনাস্থা প্রস্তাব জমা দিয়েছিলেন।

কিন্তু সময়সীমা পেরিয়ে যাওয়ার পরেও; আস্থাভোট হয়নি। তাই; ২ জানুয়ারি আস্থাভোটের দাবি জানিয়ে সোমবার তিন কাউন্সিলর পুরসভার অর্থ দফতরের আধিকারিক অতনু ঘোষের কাছে; আবেদনপত্র জমা দেন। ৩৫ আসন বিশিষ্ট ভাটপাড়া পুরসভায় ২০১৫ সালের নির্বাচনে তৃণমূল পেয়েছিল ৩৪টি আসন।

একটি আসনে জয়লাভ করেছিল সিপিএম। পরে একজন কাউন্সিলর মারা যাওয়ায় তৃণমূলের কাউন্সিলর সংখ্যা এসে দাঁড়ায় ৩৩। লোকসভায় অর্জুন সিং বিজেপি প্রার্থী হয়ে জিতে যাওয়ার পর; কাউন্সিলর পদ থেকে পদত্যাগ করেন। তৃণমূলের আসনসংখ্যা এসে দাঁড়ায় ৩২।

অর্জুন সিং লোকসভায় জয়লাভের পর; ১৮ জন কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগদান করেন। বিজেপিতে যোগদান করা ১৮ জন তৃণমূল কাউন্সিলরের মধ্যে ১২ জন তৃণমূল ফিরে আসেন। তাতে তৃণমূলের ক্ষমতার পাল্লা ভারী হয়। এদিন ভোটাভুটিতে দেখা যায় তৃণমূলের পক্ষে ১ জন ও পরে ভাইস চেয়ারম্যান সোমনাথ তালুকদার তৃণমূলের সঙ্গে যোগ দেওয়ায়; মোট ১৯ জন কাউন্সিলর দাঁড়ায়। যদিও শেষমেষ বিজেপি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলে আদালত ভোটাভুটিও বাতিল করে দেয়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন