মুসলিম যুবককে বিয়ে করে খুন হিন্দু স্ত্রী, কড়া শাস্তির দাবি

1425
মুসলিম যুবককে বিয়ে করে খুন হিন্দু স্ত্রী/The News বাংলা/প্রতীকী ছবি
মুসলিম যুবককে বিয়ে করে খুন হিন্দু স্ত্রী/The News বাংলা/প্রতীকী ছবি

নিত্যদিনের দাম্পত্য কলহের জেরে স্ত্রীকে খুন করলো স্বামী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে; হাওড়ার ডোমজুড়ের বাঁকড়া এলাকার; উত্তর কবর পাড়াতে। মৃতের নাম মুসলিমা বেগম। এক্ষেত্রে ধর্ম ভিন্ন হলেও; ভালোবাসা ছিল গভীর। সেই ভালোবাসা থেকেই সাতপাকে বাধা পড়েছিল এই দম্পতি। কিন্তু প্রতিদিনের সাংসারিক অশান্তিই হল কাল! নিত্যদিনের এই অশান্তির জেরে স্বামীর হাতেই খুন হতে হল স্ত্রীকে।

মৃতের বাবা সন্ন্যাসী বাগ জানিয়েছেন; গতকাল রাতে প্রতিদিনের মতোই স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া অশান্তি বাধে। অশান্তির পরে স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে রাতের খাবারও খায়। কিন্তু সকাল হতেই; মেয়ের বাড়িতে গিয়ে বাবা উপস্থিত হলে; মেয়েকে গলায় দড়ি দেওয়া অবস্থায় পায়।

আরও পড়ুনঃ ইমাম মহম্মদ বললেন, কাশ্মীর কোনদিনই পাকিস্তানের অংশ ছিল না

তবে এই ঘটনা থেকে বাবা সন্ন্যাসী বাগ দাবি করছেন যে; তাঁর মেয়ে গলায় দড়ি দিয়ে মারা যায়নি; তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। তার দাবি; মেয়েকে হত্যা করে পড়ে গলায় দড়ি বেঁধে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।

তার অভিযোগ গলায় দড়ি দেওয়ার জন্য যে পরিমান উচ্চতার প্রয়োজন; সেই উচ্চতায় তার মেয়ে কে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়নি। মেয়েটির পা বাঁকা অবস্থায় মাটিতে লেগেছিল। পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছে। তদন্ত চালিয়ে পুলিশ খুনিকে খোঁজার চেষ্টা চালাচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ জয় শ্রী রাম, ভারতীয় সংসদে সশরীরে হাজির ভগবান রামের বংশধর

হিন্দুর মেয়ে হয়েও ভালোবেসেই মুসলিম জাকির হোসেনকে বিয়ে করেছিল মৃত মুসলিমা বেগম। বিয়ের পরে ধর্মান্তরিত হয়ে; তার নাম হয় মুসলিমা বেগম। বিয়ের সময় ধর্মের পরোয়া করেনি বিন্দু মাত্র কেউই। ছিল চূড়ান্ত ভালোবাসা। কিন্তু ধর্মের সেই ভিন্নতাই কি মুসলিমার জীবনের পরিণতি ডেকে আনল?

বিয়ের পর সন্ন্যাসী বাগ নিজের পয়সা খরচ করে বাড়িও বানিয়ে দিয়েছিল; তার মেয়ে ও জামাইয়ের থাকার জন্য। কিন্তু এলাকার সূত্রের খবর; ভালোবেসে বিয়ে করলেও বিয়ের পর থেকেই মৃতা মুসলিমা বেগমকে মারধর করতো তার স্বামী। চলতো শারীরিক নিগ্রহ।

কিন্তু দীর্ঘদিনের প্রশয় থেকেই হঠাৎ্‌ ঘটে গেল এই বিপর্যয়। ইতিমধ্যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে; এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এই নৃশংস মৃত্যুর বিরধীতা করে; পিতা তাঁর মেয়ের মৃত্যুর সাথে জড়িত দোষীদের; শাস্তি দাবি করছেন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন