হিন্দুদের পবিত্র তীর্থক্ষেত্র অমরকণ্টক

242
হিন্দুদের পবিত্র তীর্থক্ষেত্র অমরকণ্টক/The News বাংলা
হিন্দুদের পবিত্র তীর্থক্ষেত্র অমরকণ্টক/The News বাংলা

ছত্তিশগড় রাজ্যের সীমান্তে; বিন্ধ্য ও সাতপুরা পর্বতমালার মিলনক্ষেত্র মেকল পাহাড়ের কোলে ১০৬৫ মিটার উচ্চতায় হিন্দুদের প্রাচীনতম তীর্থক্ষেত্র অমরকণ্টক। এখান থেকেই জন্ম নিয়েছে; ভারতের সাত পবিত্র নদীর অন্যতম ‘নর্মদা’। হিন্দু মতে; গঙ্গার মত নর্মদাও সর্বপাপ মুক্তকারী নদী। ধার্মিকদের বিশ্বাস; যমুনাতীরে সাতদিন পুজোয়; বা সরস্বতী তীরে তিনদিন পুজোয় যা পুন্য লাভ ঘটে; তার থেকে বেশি পুণ্য নর্মদা দর্শনে ঘটে।

যুগ যুগ ধরে সাধু সন্ন্যাসী; ভক্তরা এই নর্মদা তীর ধরে পদ যাত্রা করেন; একে বলা হয় নর্মদা পরিক্রমা। এই নর্মদাকুন্ডকে ঘিরে গড়ে উঠেছে ২৭টি মন্দির। উৎস মুখে নর্মদা মায়ের মন্দির; তিনফুট উচ্চতার কালো কোষ্ঠীপাথরের মূর্তি। দেবীর এক হাতে কমুন্ডুল অন্য হাতে বরাভয়। এছাড়া রয়েছে; অমরনাথ এর মন্দির। এছাড়া আছে, মনসা, রোহিনী, পার্বতী, বালা সুন্দরী, দুর্গা,দেবীর মন্দির।

শিবচতুর্দশীর দিন বিশাল মেলা বসে এখানে। মন্দির থেকে ১কিমি দূরে দেবীর খেলার বাগান; মাই-কা-বাগিয়া আছে। এই বাগানের বিভিন্ন গাছের পাতা থেকে তৈরি হয় নানান আয়ুর্বেদিক ওষুধ। আছে পাতালেস্বর শিব, নর্মদার জলের নীচে থাকার জন্য এই নাম।

কিভাবে যাবেন:-
হাওড়া থেকে বহু ট্রেন পাওয়া যায় অমরকণ্টক যাবার। অমরকণ্টক যেতে হলে নামতে হবে পেন্ড্রা স্টেশনে। শালিমার থেকে সাপ্তাহিক উদয়পুর এক্সপ্রেস ও খড়গপুর থেকে দৈনিক উৎকল এক্সপ্রেস পাওয়া যাবে।

কোথায় থাকবেন:-
থাকার জন্য মধ্যপ্রদেশ পর্যটনের হলিডেহোম (ph-07629-269416, 9111401044) আছে, ভাড়া ২২৯০-৩৩০০। সর্বদয় বিশ্রাম গৃহ(ph- 07629-269517/19, 9425344065) ভাড়া ৮০০-১৬০০। এছাড়াও ছোট বড় নানান হোটেল, গেস্টহাউস, ধর্মশালা, আশ্রম পাওয়া যায় খুব কম খরচে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন