মোদী সরকারের নির্দেশে, ৩০ জানুয়ারি সকাল ১১টায় চুপ হয়ে যাবে গোটা দেশ

3148
মোদী সরকারের নির্দেশে, ৩০ জানুয়ারি সকাল ১১টায় চুপ হয়ে যাবে গোটা দেশ
মোদী সরকারের নির্দেশে, ৩০ জানুয়ারি সকাল ১১টায় চুপ হয়ে যাবে গোটা দেশ

নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষ্যে; গোটা দেশে প্রতি বছর ২৩ জানুয়ারি ‘পরাক্রম দিবস’ পালন করার সিদ্ধান্তের পরে; আরও এক চমকপ্রদ সিদ্ধান্ত নিল মোদী সরকার। এই বছর ৩০ জানুয়ারি মহত্মা গান্ধীর মৃ’ত্যু দিন; দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে ব’লিদা’ন দেওয়া মহান বি’প্লবীদের সম্মানে; দুই মিনিট নীরবতা পালন করার নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র। মহত্মা গান্ধীর মৃ’ত্যু দিন; প্রতি বছর ৩০ জানুয়ারি শ’হী’দ দিবস হিসেবে পালিত হয়। এবছর থেকে শ’হী’দ স্মরণে সারা দেশে; দুই মিনিট নীরবতা পালন করা হবে।

কেন্দ্র সরকার ৩০ জানুয়ারি শ’হী’দ দিবস নিয়ে এবার নতুন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। ওই দিন স্বাধীনতার জন্য ব’লিদা’ন দেওয়া বি’প্লবী’দের স্মরণ করা হবে। কেন্দ্র সরকারের নতুন নির্দেশিকার পর থেকে এখন প্রতিবছর ৩০ জানুয়ারি শহীদ দিবস হিসেবে পালিত হবে। কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে সমস্ত রাজ্য সরকার আর কেন্দ্র শাসিত প্রদেশে এই নিয়ে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ নেতাজীর প্রতি মোদীর শ্রদ্ধা, রাতারাতি নেতাজীর নামে ট্রেন

কেন্দ্রের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে; ৩০ জানুয়ারি সকালে দুই মিনিট মৌন ব্রত পালন হবে। এর সাথে সাথে গোটা দেশ ওই দুই মিনিটের জন্য পুরোপুরি স্তব্ধ হয়ে যাবে। যেখানে যেমন ব্যবস্থা আছে, সেখানে সেভাবেই সকাল ১০ঃ৫৯ নাগাদ সবাইকে অ্যালার্ট করে দেওয়া হবে। যেখানে সাইরেনের ব্যবস্থা আছে, সেখানে সাইরেন বাজিয়ে সবাইকে এই মুহূর্তের জন্য অ্যালার্ট করে দেওয়া হবে। নির্দেশে বলা হয়েছে যে, এর আগে নীরবতা পালনের সময় অনেক জায়গায় কাজ চলত, কিন্তু এবার থেকে এই নির্দেশিকা ক’ড়া ভাবে পালন করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ নেতাজীর জন্মদিন ‘পরাক্রম দিবস’ হিসাবে পালন করবে দেশ, ঘোষণা কেন্দ্র সরকারের

১৯৪৮ সালে দিল্লীর বিড়লা ভবনে; বিকেলের প্রার্থনা সভায় মোহনদাস করম চাঁদ গান্ধীকে গু’লি করা হ’ত্যা করা হয়েছিল। এরপর থেকে প্রতিবছর ৩০ জানুয়ারি শ’হী’দ দিবস উপলক্ষে পালিত হয় সারা দেশে। এবার থেকে মহাত্মা গান্ধীর সঙ্গে সঙ্গে স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ গ্রহন করা সকল শ’হিদ’দের স্মরণ করা হবে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন