ছেলেকে পুড়িয়ে মারার কথা বললেন গণধর্ষণ কাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্তের মা

22240
ঘটনার বীভৎসতায় স্তব্ধ গোটা দেশ/The News বাংলা
ঘটনার বীভৎসতায় স্তব্ধ গোটা দেশ/The News বাংলা

তেলঙ্গানা গণধর্ষণ কাণ্ডে তোলপার গোটা দেশ। দোষীদের চরম শাস্তির দাবিতে; রাস্তায় নেমেছেন বহু মানুষ। আর তাদের সঙ্গেই গলা মেলালেন; অভিযুক্তের মা। দাবি, দোষী প্রমাণিত হলে তাঁর ছেলেকেও জ্বালিয়ে দেওয়া হোক। আরও এক অভিযুক্তের বাবাও জানান; ছেলের দোষ প্রমাণ হলে উপযুক্ত শাস্তি যেন দেওয়া হয়। তেলঙ্গানার এক তরুণী পশুচিকিৎসকের; নৃশংস গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় ক্ষুব্ধ গোটা দেশ। চার অভিযুক্তের; ফাঁসির দাবিতে সরব নাগরিকরা। তবে অভিযুক্তের পরিবার এই প্রথম দোষীদের শাস্তির দাবি করেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে ধর্ষণ ও খুনের ঘটনার বীভৎসতায় স্তব্ধ হয়ে যায় গোটা দেশ। এই ঘটনার অন‌্যতম অভিযুক্ত চেন্নাকেশাভুলুর মা জয়াম্মা জানান; আমার ছেলে যদি এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকে, ওকেও জ্বালিয়ে দেওয়া হোক। আমার কাছে ওর কোনও অস্তিত্ব থাকবে না। অন‌্যায় যে-ই করুক, সেটা অন‌্যায়ই’।

আরও পড়ুন: হায়দ্রাবাদে চিকিৎসক প্রিয়াঙ্কা রেড্ডিকে ধর্ষণ ও পুড়িয়ে মারার ঘটনায় গ্রেফতার মহম্মদ পাশা

তিনি আরও বলেন; ‘নিজের ছেলে এমন অপরাধ করেছে, বিশ্বাস করতে মন চাইছে না। কিন্তু যদি সত্যি দোষ করে থাকে, অন‌্যদের মতো ওরও শাস্তি হোক’। তিনি বলেন; একজন মা ন’মাস গর্ভে ধারণ করে মেয়েটিকে জন্ম দিয়েছিলেন। আর সে এত যন্ত্রণাদায়ক ঘটনার শিকার হল! মায়ের উপর দিয়ে কী ঝড় যাচ্ছে; তা একজন মা হয়ে তিনি বোঝেন বলে জানান।

অন্যদিকে আর এক অভিযুক্ত আরিফের বাবাও একই কথা বলেন। তিনি বলেন; ছেলে যদি সত্যিই দোষী হয় তাহলে বাকিদের মতো তারও শাস্তি হওয়া উচিত। সবার সামনে দোষীদের গায়ে আগুন দেওয়ার দাবিও তোলেন তিনি। তিনি বলেন; ‘আজ থেকে আমার কাছে আমার ছেলে মৃত; এরজন্য কোনও দিন আফসোস থাকবে না আমার’।

আরও পড়ুন: দিল্লীর নির্ভয়ার মতই আঙ্গুল উঠল ধর্ষিতা প্রিয়াঙ্কা রেড্ডীর দিকে

অন্যদিকে ৩ জন পুলিশকে কাজের গাফিলতির জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। নির্যাতিতার বাড়ির সামলে ধরনায় বসেছেন প্রতিবেশীরা। দাবি একটাই; কোনও মিডিয়া নয়, সহানুভূতি নয় দোষীর উপযুক্ত শাস্তি হোক। নির্যাতিতার পরিবারের তরফ থেকে অভিযোগ করা হয়; এক থানা থেকে আর এক থানায় ঘোরাঘুরি করতেই দু’থেকে তিন ঘণ্টা চলে যায়। যখন তল্লাশি শুরু হয়, ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন