বুলডোজার দিয়ে হিন্দুদের বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দিল ইমরান খানের মন্ত্রী

4718
বুলডোজার দিয়ে হিন্দুদের বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দিল ইমরান খানের মন্ত্রী
বুলডোজার দিয়ে হিন্দুদের বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দিল ইমরান খানের মন্ত্রী

করোনা বিপদের মধ্যেও; বুলডোজার দিয়ে হিন্দুদের বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দিল; ইমরান খানের ক্যাবিনেট মন্ত্রী তারিক বশির চিমা। স্বাধীনতার পর থেকে; কমে কমে পাকিস্তানের জনসংখ্যার; মাত্র ১.৬ শতাংশ এখন হিন্দু। আর প্রায় রোজ তাদের অকথ্য অত্যাচারের শিকার হতে হয়। এবার পাক সরকারের মন্ত্রী তারিক বশির চিমা দাঁড়িয়ে থেকে; বুলডোজার চালিয়ে দেওয়া হল হিন্দুদের ঘরবাড়িতে। ছবি ভাইরাল হতেই; বিশ্ব জুড়ে নিন্দার মুখে মুখে পড়েছে ইমরান খান সরকার। চরম সমালোচনা শুরু হয়েছে; গোটা ভারত জুড়ে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য বাংলাদেশী গায়ক নোবেলের

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের ভাওয়ালপুরে; সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের কয়েকটি বাড়ি ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ঘর-বাড়ি ভাঙার ঘটনায়; ইমরান খান সরকারের আবাসনমন্ত্রী তারিক বশির চিমার; এবং প্রদেশের প্রধান কর্মকর্তা শহীদ খোকরের প্রতক্ষ মদত রয়েছে; বলে অভিযোগ উঠেছে। কয়েকটি ভিডিয়ো শেয়ার হয়েছে; সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে; বুলডোজার দিয়ে বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। ধ্বংসস্তুপের ওপর বুলডোজার; দাঁড় করানো হয়েছে। পাশ থেকে কয়েকজন পুরুষ, শিশু ও মহিলা আর্তনাদ করছেন।

ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা, ১০৭ যাত্রী নিয়ে জনবহুল এলাকায় ভেঙে পড়ল বিমান

পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের উপর; অত্যাচারের প্রবণতা বহু পুরনো। কিন্তু করোনার এই সঙ্কটের সময়ও যে; হিন্দুদের উপর অত্যাচার চলবে, সেটা ভাবা যায়নি। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের উপর অত্যাচারের ছবি; বহুবার প্রকাশ্যে এসেছে। কিন্তু কখনওই পাকিস্তানে দোষীরা শাস্তি পায়নি। নির্যাতন ও অত্যাচারের শিকার হয়ে; সিন্ধু ও পাঞ্জাব প্রদেশ থেকে ভারতে পালিয়ে এসেছেন বহু হিন্দু ও শিখ পরিবার। করোনার জন্য বিভিন্ন দেশের সরকার নাগরিকদের; বাড়িতে থাকার জন্য বলেছে। জারি হয়েছে লকডাউন। কিন্তু পাকিস্তানে সংখ্যালঘু হিন্দুদের; বাড়ি ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। পথে দাঁড় করিয়ে দেওয়া হয়েছে; একাধিক হিন্দু পরিবারকে।

দাউদ ইব্রাহিমের বাড়িতে আইএসআই-লস্কর ই তৈবা, ভারতে বড়সড় হামলার ছক

মানবাধিকার লঙ্ঘন মামলায়; পাকিস্তান আগাগোড়াই দোষী। সিন্ধ আর পাকিস্তানের অন্যান্য অংশে; এরকম নানান ঘটনা সামনে এসেছে; যেখানে সংখ্যাগুরু মুসলিমরা জোর করে হিন্দি-খ্রিস্টানদের নাবালিকা মেয়েদের তুলে নিয়ে; ধর্ম পরিবর্তন করিয়ে বিয়ে করেছে। সম্প্রতি এরকম ঘটনা পাঞ্জাব প্রান্তের খানেবল জেলাতেও হয়েছে; সেখানে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘর আর গেরোস্থানকে; ইমরান খানে পার্টি তেহরিক-এ-ইনসাফ এর নেতা তছনছ করে দেয়।

একবার দুবার নয়, ২ মাসে তিন তিনবার করোনা আক্রান্ত যুবক

কিছুদিন আগেই পাকিস্তানে একটি হিন্দু কিশোরীকে; দিনের পর দিন ধর্ষণ করে মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করতে বাধ্য করা হয়েছিল। তার পর আবার সেখানে এমন ঘটনায়; নিন্দার মুখে পড়েছেন ইমরান খান। এই ঘটনায় পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশন সোচ্চার হয়েছে। পাকিস্তান প্রাক্তন এবং বর্তমান সরকাররা; সব সময় দেশের সংখ্যালঘুদের স্বার্থ রক্ষা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। কিন্তু সংখ্যালঘুদের উপর বারবার হামলা; সরকারের মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছে।

ADIS এর মত কোনদিনই বেরোবে না করোনা ভাইরাসের টিকা, জানাল WHO

ইসলামাবাদে ধার্মিক সংখ্যালঘুদের সাথে; বৈষম্যমূলক আচরণ করা হয়। হত্যা, অপহরণ, ধর্ষণ; জোর করে ইসলাম কবুল করানোর ঘটনা পাকিস্তানে এখন রোজনামচা। পাকিস্তানে হিন্দু, শিখ, ইসাই, আহমেদিয়া মুসলিম; এমনকি শিয়া মুসলিমরাও এই অত্যাচারের শিকার হয়ে থাকে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন