সীমান্ত পার করে ভারতে পালিয়ে এলেন ইমরান খানের দলের বিধায়ক, মোদীর কাছে চাইলেন আশ্রয়

7131
লজ্জায় পাকিস্তান, সীমান্ত পার করে ভারতে পালিয়ে এলেন ইমরান খানের দলের বিধায়ক/The News বাংলা
লজ্জায় পাকিস্তান, সীমান্ত পার করে ভারতে পালিয়ে এলেন ইমরান খানের দলের বিধায়ক/The News বাংলা

ফের চরম লজ্জায় পাকিস্তান; সীমান্ত পার করে ভারতে পালিয়ে এলেন; ইমরান খানের দলের বিধায়ক। পাকিস্তান থেকে সীমান্ত পার করে ভারতে পালিয়ে এলেন; খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের এক বিধায়ক। ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টির সংখ্যালঘু বিধায়ক; বলদেব কুমার এখন রাজনৈতিক আশ্রয় চাইছেন এদেশে। আর এতেই ফের মুখ পুড়ল ইমরান খান সরকারের।

কাশ্মীরে মুসলিমদের উপর অত্যাচার হচ্ছে; বলে বিশ্ব দরবারে অভিযোগ পাকিস্তানের। আর যতবার পাকিস্তান; ভারতের বিরুদ্ধে মিথ্যা দাবী করছে; ততবারই লজ্জায় পড়তে হচ্ছে পাকিস্তানকে। এবার ইমরান খানের অস্বস্তি বাড়ালেন তাঁর দল ‘তেহরিক-ই-ইনসাফ’-এর প্রাক্তন বিধায়ক। পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচারের কাহিনী তুলে ধরে; ভারতের কাছে আশ্রয় চাইলেন বলদেব কুমার।

আরও পড়ুনঃ ভারত চাঁদে নামবে আমরা দাঁড়িয়ে দেখব, ভারতকে স্যালুট পাক মানবাধিকার কর্মীর

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন; “আমি এখানে (ভারত) আশ্রয় চাইতে এসেছি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অনুরোধ করব; যাতে উনি আমাদের সাহায্য করেন”। গতমাসেই দুই সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে ভারতে এসেছেন বলদেব। পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়ার বারিকোটের বিধায়কের বিরুদ্ধে; একটি খুনের মামলা হয়। সরন সিং নামে খাইবার প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর এক পরামর্শদাতাকে; খুনের অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

২০১৮ সালের প্রামণের অভাবে মুক্তি পান বলদেব। তারপরে আর দেশে থাকার সাহস করেননি তিনি। পরিবারকে নিয়ে পালিয়ে এসেছেন ভারতে। গত অগস্ট মাসে পাকিস্তান ছেড়ে পঞ্জাবের লুধিয়ানা জেলার খান্নায় এসে; সপরিবারে বসবাস শুরু করেছেন বলদেব। মঙ্গলবার তিনি সাংবাদিকদের জানান; “আশ্রয় চেয়ে ভারতে এসেছি এবং প্রধানমন্ত্রী মোদী সাহেবকে আমাদের সাহায্যের জন্য অনুরোধ জানাব”।

কিন্তু কী কারণে পাকিস্তান ছাড়লেন বলদেব? প্রাক্তন পাক বিধায়ক জানিয়েছেন; “ওখানে কী হচ্ছে তা গোটা বিশ্ব দেখতে পাচ্ছে। ভেবেছিলাম খান সাহেব (ইমরান খান) ক্ষমতায় এলে; পরিস্থিতির পরিবর্তন হবে। সেদিন আমাদের শিখ মেয়েটিকে অপহরণ করা হল। এমন জিনিস চলতে পারে না”।

পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশে এক গুরুদ্বারের পুরোহিত বা গ্রন্থির কিশোরী মেয়েকে; সম্প্রতি অপহরণ করা হয়। তাকে বন্দুকের নলের সামনে রেখে; ইসলামে ধর্মান্তরিত করার পরে এক মুসলিম যুবকের সঙ্গে জোর করে বিয়ে দেওয়া হয়; বলেই অভিযোগ পরিবারের। সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রান্ত শিখ পরিবারের অভিযোগের ভিডিয়ো; পোস্ট করার পরে ভাইরাল হয়েছে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন