নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা না সরালে আলোচনায় লাভ নেই, মস্কোয় বিদেশমন্ত্রী বৈঠকে চিনকে জানিয়ে দিল ভারত

8792
নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা না সরালে আলোচনায় লাভ নেই, মস্কোয় বিদেশমন্ত্রী বৈঠকে চিনকে জানিয়ে দিল ভারত
নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা না সরালে আলোচনায় লাভ নেই, মস্কোয় বিদেশমন্ত্রী বৈঠকে চিনকে জানিয়ে দিল ভারত

নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা না সরালে, আলোচনায় লাভ নেই। মস্কোয় দুই দেশের বিদেশমন্ত্রী বৈঠকে; চিনকে পরিষ্কার জানিয়ে দিল ভারত। সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন (এসসিও)-এর বৈঠকে; দু-দফায় মুখোমুখি হলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই। মধ্যাহ্নভোজনে ত্রিপাক্ষিক স্তরে আলোচনায় বসলেন; ভারত, চিন এবং রাশিয়ার বিদেশমন্ত্রী। আর সন্ধ্যায় শুধু ভারত এবং চিন। ভারতীয় সময় গভীর রাত পর্যন্ত চলে; সীমান্তে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য আলোচনা। বৈঠকের শেষে কোনও দেশের তরফেই; সরকারিভাবে কিছু বলা হয়নি।

আরও পড়ুনঃ চিনের ভাষাতেই জবাব দিচ্ছে দেশ, প্যাংগং হ্রদের চারপাশে উঁচু পাহাড়চূড়ো এখন ভারতীয় সেনাবাহিনীর দখলে

সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, জয়শঙ্কর-ওয়াং বৈঠকে; আলোচনার মূল বিষয় ছিল লাদাখ সীমান্ত। বৈঠকে সীমান্তে উত্তেজনা কমানো এবং প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর; সেনা সরানোর বিষয়েই আলোচনা হয়। লাদাখ সংঘর্ষ শুরুর পরে, এই প্রথম মুখোমুখি হলেন; দুই দেশের বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর এবং ওয়াং।

ভারতের বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর; বৈঠকে জয়শঙ্কর তাঁর গভীর উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন ওয়াং-কে। সীমান্ত সংঘাতের সঙ্গে যে; ভারত ও চিনের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক যুক্ত হয়ে গিয়েছে; সেই বার্তাও দিয়েছেন তিনি। সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে হলে; সীমান্ত থেকে সেনা সরাতে হবে চিনকে। এই বার্তাই কয়েকদিন ধরে ধারাবাহিক ভাবে দিয়ে চলেছে দিল্লি; আজও যার অন্যথা হয়নি।

আরও পড়ুনঃ বেইমানি করেছে চিন, ফিংগার পয়েন্টে বিপুল সেনা সমাবেশ ঘটিয়ে জবাব দিচ্ছে ভারত

চিন থেকে আসা লগ্নি, পণ্য পরিষেবার উপরে; বিধিনিষেধ চাপানোর ভাবনা শুরু করেছে ভারত। সেটা জানিয়েও দেওয়া হয়েছে চিনকে; যা বেজিংয়ের কাছে বেশ চাপের। ভারতের বিপুল বাজার; হাতছাড়া করতে চায় না তারা। ভারতে চিনা অ্যাপ; নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ভারত চিন সীমান্ত সমস্যা না মেটা পর্যন্ত; চিনের সঙ্গে সমস্ত বাণিজ্যিক লেনদেন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তই নিতে চলেছে ভারত।

বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর মস্কোয়; চিনা বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে, এই স্পষ্ট বার্তা দিয়েও দিয়েছেন। চিনকে মুখের উপর পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হল; সীমান্ত সমস্যা না মিটলে সব বাণিজ্য বন্ধ। বিদেশের মাটিতে দাঁড়িয়ে, চিনের মত অর্থনৈতিক ও রণনীতির ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকা দেশকে; এভাবে হুমকি দিচ্ছে ভারত। যা অবাক করেছে, গোটা বিশ্বের সব নেতা মন্ত্রীকেই।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন