মুখেই ‘শত্রু’, করোনা আবহেও ভারত-চিন বাণিজ্য চলছে জোরকদমে

6496
মুখেই 'শত্রু', করোনা আবহেও ভারত-চিন বাণিজ্য চলছে জোরকদমে
মুখেই 'শত্রু', করোনা আবহেও ভারত-চিন বাণিজ্য চলছে জোরকদমে

‘চিনা পণ্য বয়কট করুন; চিনের দ্রব্য ব্যবহার করবেন না’। পুজোর সময় হলেই; ‘চিনা লাইট কিনবেন না; ওদের ব্যবসা বাড়াবেন না’। এরকম দেশাত্মবোধক আওয়াজ শোনা যায়; দেশের মানুষ বিশ্বাসও করে নেন। বিশ্ব জুড়ে করোনা ছড়িয়ে দেবার পরে; চিনের বিরুদ্ধে রীতিমতো যুদ্ধের ডাক দেওয়া হয়েছে। তবে আসল তথ্য বলছে; অন্য কথা। আসলে মুখেই ‘শত্রু’, করোনা আবহেও ভারত-চিন বাণিজ্য চলছে; বহাল তবিয়তে। কি আমদানি কি রফতানি; করোনা পরিস্থিতিতে; চিনের সঙ্গে খুলে গেছে ভারতের বানিজ্যের নতুন দিগন্ত। তাই চিন মানেই ভারতের শত্রু নয়; বলছে দুই দেশের বাণিজ্যিক সম্পর্ক।

ভারত থেকে যে পরিমাণ পণ্য রফতানি হয়; তার সবথেকে বেশি পরিমাণ যায় আমেরিকায়; এরপরেই রয়েছে চিনের নাম। ভারতের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রকের প্রকাশিত বর্তমান হিসাব অনুযায়ী; ২০২০-২১ সালে তিন মাসে ভারত চিন থেকে; ৬৫.২১ বিলিয়ন ডলারের পণ্য আমদানি করেছিল। ২০১৯-২০ সালে এইসময়ে; আমদানি হয়েছিল ৬৫.২৬ বিলিয়ন ডলারের দ্রব্য। আমদানি এক রাখতে সক্ষম হলেও; ভারত চিনে তাদের দ্রব্যের রফতানি অনেকটাই বাড়িয়েছে। একবছর আগের থেকে, ভারত থেকে চিনে; রফতানি বেড়েছে; প্রায় ২৭.২৫ শতাংশ।

আরও পড়ুনঃ করোনা আবহেও পণ্য রফতানিতে ভারতের রেকর্ড, বাড়ছে দেশের বাণিজ্য ঘাটতিও

যদিও ভারতের আমদানি বিল ১৭.১ শতাংশ কমে; ৩৯৩.৬০ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। এবং রফতানি ৭.২ শতাংশ হ্রাস পেয়ে; ২৯০.৮১ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। যদিও ২০১৭-১৮ র তুলনায় এখন; চিন থেকে আমদানি করা অনেক কমেছে। তবে রফতানি বাড়াতে; সক্ষম হয়েছে ভারত। অর্থাৎ সীমান্তে পরিস্থিতি যাই হোক না কেন; চিন ভারত ব্যবসা নিজের মতোই চলছে জোরকদমে।

আরও পড়ুনঃ পুলিশ কমিশনারকে বাবা পরিচয় দিয়ে, বাংলায় এবার ভুয়ো ‘মহিলা পুলিশ’

২০২০ সালের জুনে ভারত চিন সীমান্তের গালওয়ান উপত্যকায়; দুইদেশের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষে প্রাণ যায় ২০জন ভারতীয় সেনার। প্রাণ যায়; অনেক চিনা সেনাদেরও। ভারত-চিন সীমান্তে সংঘর্ষের পরেই, অনেক ভারতীয়; চিনে তৈরি পণ্য বয়কট করার ডাক দেন। এরপর চিনের উহান ল্যাব থেকে, করোনা ছড়িয়ে পরায়; বিশ্ব জুড়ে চিনকে বয়কটের ডাক দেওয়া হয়। ভারতেও ফের চিনা পণ্য; বয়কটের হিড়িক ওঠে। কিন্তু দুই দেশের বাণিজ্যে; তার কোন প্রভাবই পড়েনি, সরকারি হিসাবেই সেটা পরিষ্কার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন