লাদাখে ভারত চিন যুদ্ধ পরিস্থিতি, ৪৫ হাজার ভারতীয় জওয়ান যাচ্ছে সীমান্তে

3258
লাদাখে ভারত চিন যুদ্ধ পরিস্থিতি, ৪৫হাজার ভারতীয় জওয়ান যাচ্ছে সীমান্তে
লাদাখে ভারত চিন যুদ্ধ পরিস্থিতি, ৪৫হাজার ভারতীয় জওয়ান যাচ্ছে সীমান্তে

লাদাখে ভারত চিন যুদ্ধ পরিস্থিতি; ৪৫ হাজার ভারতীয় জওয়ান যাচ্ছে সীমান্তে। ভারতীয় সেনাবাহিনীতে; হাই অ্যালার্ট জারি করেছে সরকার। সীমান্তের কাছে যুদ্ধের জন্য; প্রস্তুত হচ্ছে ভারতীয় বায়ুসেনা। ভারতীয় বায়ু সেনা, নৌ সেনা এবং স্থলবাহিনীকে; সবরকম পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য; প্রস্তুত থাকতে বলল নরেন্দ্র মোদী সরকার। সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে; ভারত এবং চিনের প্রতিটি সীমান্তেই, অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। নিয়ন্ত্রণরেখার খুব কাছে; আরও বেশি সেনা নিয়োগ করা হয়েছে। সকলকেই অতি সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ লাদাখ সীমান্তে চিনের দিকে তাক করে দাঁড়াল, ভারতের খতরনাক ভীষ্ম ট্যাঙ্ক

লাদাখে ভারত চিন যুদ্ধ পরিস্থিতি, ৪৫হাজার ভারতীয় জওয়ান যাচ্ছে সীমান্তে
লাদাখ সীমান্তে চিনের দিকে তাক করে দাঁড়াল, ভারতের খতরনাক ভীষ্ম ট্যাঙ্ক

ভারত-চিন সীমান্ত সংঘাতকে কেন্দ্র করে; তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ বেধে যাওয়াটাও এখন আর বিচিত্র নয়। চিনের অনমোনীয় আগ্রাসন নীতির কারণে; ঘটনার গতিপ্রকৃতি কিন্তু সেদিকেই এগোচ্ছে। পূর্ব লাদাখে ভারত-চিন দু’পক্ষই সেনা বাড়ানোয়; এমনিতেই চরম উত্তেজনা রয়েছে। এরপর যদি আমেরিকা সেনা নিয়ে ভারতের পাশে দাঁড়ায়; তা হলে অবধারিতভাবেই কিন্তু তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ বেধে যাবে।

আরও পড়ুনঃ লাদাখে চিন সীমান্তে কুইক রিঅ্যাকশন সারফেস টু এয়ার মিসাইল বসাল ভারত

শুধু তাই নয়, সেনা সূত্র জানাচ্ছে; ভারতীয় বায়ুসেনাও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র; সীমান্তের কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছে। যাতে যে কোনও প্রয়োজনে; দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া যায়। অন্য দিকে ভারতের নৌসেনা; প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে টহল বাড়িয়েছে। তারাও যে কোনও পরিস্থিতি; মোকাবিলার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। এর মধ্যে চিন আর একবার কোনও ভাবে প্ররোচানা দিলে; তা বারুদে আগুন পড়ার মতোই হবে। সেনাকে ফ্রি-হ্যান্ড দিয়েই রেখেছেন; ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। অবস্থা বুঝে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা; সেনার হাতেই ছাড়া রয়েছে।

এটা ৬২র ভারত নয়, লাদাখে চিন সীমান্তে কুইক রিঅ্যাকশন সারফেস টু এয়ার মিসাইল বসাল ভারত
India China War Situation At Ladakh 45000 Indian Army Soldiers Are Going To Border
লাদাখে চিন সীমান্তে কুইক রিঅ্যাকশন সারফেস টু এয়ার মিসাইল বসাল ভারত

চণ্ডীগড় এয়ারবেস থেকে; ভারতীয় বায়ুসেনার C-17 গ্লোবমাস্টার; মূল্যবান কার্গো (পণ্য) নিয়ে যাচ্ছে লাদাখে৷ যাচ্ছে। এক ট্রিপে যার খরচ ১০ লক্ষ টাকা। গত একমাস ধরে উত্তর ভারতের সব সেনা ঘাঁটি ও বায়ুসেনা ঘাঁটি থেকে; সেনা, কামান, এয়ার সার্ভেইল্যান্স র‌্যাডার, যুদ্ধ বিমান ও হেলিকপ্টার; সব নিয়ে যাওয়া হচ্ছে লাদাখে সীমান্তে। লাদাখে ৪৫ হাজার সেনা পৌঁছে যাচ্ছে; সীমান্তে যুদ্ধ পরিস্থিতি নিঃসন্দেহে।

আরও পড়ুনঃ চিনের মাটিতে দাঁড়িয়ে, শি জিনপিং কে শায়েস্তা করার হুঙ্কার দিলেন এই ভারতীয়

ডিবিও, ফুকচে ও নিয়োমা; এই তিন অ্যাডভান্সড ল্যান্ডিং গ্রাউন্ডই; অ্যাক্টিভেট করা হয়েছে। সব বিমানঘাঁটির অভিমুখই; এখন চিনের দিকে। নৌসেনার মাল্টিটাস্কার P-8I আকাশে টহল দিচ্ছে; নজর রাখছে চিন সেনার গতিবিধি। লাদাখে চিনের সঙ্গে শেয়ার করা ১ হাজার ৫৯৭ কিমি সীমান্তে; ৬৫টি পয়েন্টে সেনা টহল আরও বাড়ানো হয়েছে।

গালওয়ান ভ্যালি, দেপসাং, প্যাংগং ও উত্তর সিকিমে নাকুলায়; প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় যুদ্ধের মতো নির্মাণ চলছে। প্রায় ২ মাস হয়ে গেল; সীমান্তে ভারত-চিন মুখোমুখি। একাধিক আলোচনার পরেও; কোনও সমাধান হয়নি সমস্যার; বরং উত্তেজনা আরও বাড়ছে। দুদিন আগেই কর্নেল লেভেল বৈঠকে দুদেশ সেনা সরানোর; সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিল। কিন্তু কেউ একচুল সেনা সরায় নি। পরিস্থিতি এখন প্রায় যুদ্ধের মতই।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন