পাকিস্তানের মাটিতে ঢুকে জঙ্গি মারল ভারতের বিমান

386
পরের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে বিমানে বেঁধে নিয়ে যাওয়া হবে বিরোধীদের/The News বাংলা
পরের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে বিমানে বেঁধে নিয়ে যাওয়া হবে বিরোধীদের/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

পাকিস্তানের মাটিতে ঢুকে জঙ্গি মারল ভারতের বিমান। সবুজ সংকেতের অপেক্ষাতেই ছিল ইন্ডিয়ান এয়ারফোর্স। ঠিক যেন সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পুনরাবৃত্তি। তবে এবার মাটিতে নয়। আকাশপথে। পাকিস্তানের মাটিতে ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করল ভারতীয় যুদ্ধবিমান। পুলওয়ামা কাণ্ডের বদলা নিতে এক হাজার কেজি বোমা ফেলে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল পাক মাটিতে তৈরি হওয়া একাধিক জঙ্গি ঘাঁটি। হামলার কথা স্বীকার করে নিয়েছে পাকিস্তানও।

বায়ুসেনা সূত্রের খবর, মঙ্গলবার ভোর সাড়ে তিনটেয় ভারতীয় বায়ুসেনার হিন্ডন এয়ারবেস থেকে আকাশে ওড়ে ১২টি মিরাজ ২০০০ জঙ্গিবিমান। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের ৩টি জায়গায় প্রায় ১০০০ কেজি বোমা ফেলে তারা। ধুলোয় মিশিয়ে দেওয়া হয় বালাকোট, মুজাফরাবাদ ও চকোটিতে জঙ্গিশিবিরগুলি। ২০ মিনিটের মধ্যে অপারেশন শেষ করে ভারতে ফেরে বিমানগুলি। এই হামলায় জইশ-ই-মহম্মদের ঘাঁটি সহ বহু জঙ্গিশিবির গুঁড়িয়ে দিয়েছে বায়ুসেনা।

পুলওয়ামা পরবর্তী পর্যায়ে প্রধানমমন্ত্রী মোদী জানিয়েছিলেন ভারত এর উপযুক্ত জবাব দেবে। পাশাপাশি তিনি জানান সেনাকে সমস্ত ক্ষমতা দেওয়া রয়েছে। এরপরই পাকিস্তানের মাটিতে ঢুকে যাবতীয় জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়ে আসে ভারতীয় বায়ুসেনা। পাকিস্তানের বালাকোট এ প্রথম হামলা করে বিমান বাহিনী ভোর ৩.৪৫-৩.৫৩ এর মধ্যে। মুজাফরাবাদ এ ৩.৪৮-৩.৫৫। ও চাকোটিতে বোমা ফেলে ৩.৫৮ থেকে ৪.০৪ এর মধ্যে। ১৯ মিনিটের অপারেশনে সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত সীমান্ত পাড়ের পাক জঙ্গি ঘাঁটিগুলি।

জানা গিয়েছে, এ দিন ভোররাতে মিরাজ ২০০০ বিমান নিয়ে পাকিস্তানের মাটিতে থাকা জঙ্গি ঘাঁটির উপরে হামলা চালান হয়। প্রায় বারোটি বিমান থেকে এক হাজার কেজি বোমা ফেলা হয়। পাকিস্তানের বালাকোট, চকোটি এবং মুজাফরাবাদে এই হামলা চালানো হয়। এই হামলায় জইশ ই মহম্মদের কন্ট্রোল রুমও ধ্বংস করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

মঙ্গলবার ভোর রাত ৩:৩০ মিনিট নাগাদ এই অপারেশন শুরু হয় বলে খবর। প্রায় ১০০০ কেজি বিস্ফোরক পাকিস্তানের মাটিতে ফেলে আসে বায়ুসেনার যুদ্ধ বিমান মিরাজ ২০০০। ১২ টি মিরাজ যুদ্ধ বিমান নিয়ে হামলা চালিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা। পাকিস্তানের বালাকোট, চাকোটি, মুজাফরাবাদের জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করা হয়েছে বলে সূত্রের দাবি।

পুলওয়ামা কাণ্ডের ১০০ ঘণ্টার মাথায় জইশ মাস্টারমাইন্ডকে নিকেশ করে ভারতীয় সেনা। কাশ্মীরে লুকিয়ে থাকা গাজিকে খুঁজে বের করে খতম করে ভারতীয় সেনা। এরপরই পুলওয়ামা হামলার ঘটনার ১২ দিন পর পাল্টা জবাবে জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিল ভারত। পাকিস্তানের সেনার তরফে ভারতীয় বায়ুসেনার যুদ্ধবিমানের ঢোকবার কথা স্বীকার করা হলেও, সেখানের হামলার বিষয়ে এখনও মুখ খোলেনি পাকিস্তান।

জানা গিয়েছে, বালকোট সেক্টরে পাকিস্তানে জঙ্গিদের কন্ট্রোল রুম গুঁড়িয়ে দিয়েছে ভারত। এছাড়াও একাধিক জঙ্গি শিবিরে চরম প্রত্যাঘাত এনেছে ভারতীয় বায়ুসেনা। হামলা চালিয়ে নিরাপদেই ভারতে ফিরে আসে ভারতীয় বায়ুসেনার মিরাজ বিমানগুলি। পাকিস্তান এই ধরনের প্রত্যাঘাতের জন্য তৈরি থেকেও শেষ পর্যন্ত ভারতীয় হামলার সময় কোনও প্রতিরোধই গড়তে পারেনি। বলা ভাল, তারা টেরই পায়নি।

গতবারের মত পাক অধিকৃত কাশ্মীরে এবার আর স্থলপথে নয়, বায়ুসেনার যুদ্ধ বিমান সেখানে ঢুকে হামলা চালিয়ে এসেছে। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে যাবতীয় জঙ্গি ঘাঁটিতে নিশানা করেই ভারতের তরফে এই হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি ভারতীয় সেনার। হামলার কথা স্বীকার করেছে পাকিস্তানও। ইমরান খান এই ঘটনা নিয়ে জরুরি বৈঠক করেছেন।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন