‘অ’শান্তি নিয়ন্ত্রণে বাংলার রাস্তায় ভারতীয় সেনা’, মামলায় রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট

55
অ'শান্তি নিয়ন্ত্রণে বাংলার রাস্তায় সেনা, মামলায় রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট
অ'শান্তি নিয়ন্ত্রণে বাংলার রাস্তায় সেনা, মামলায় রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট
Simple Custom Content Adder

‘অ’শান্তি নিয়ন্ত্রণে বাংলার রাস্তায় ভারতীয় সেনা’; মামলায় রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট। ‘অশান্তি নিয়ন্ত্রণে ভারতীয় সেনা ডাকা হবে কিনা; সেই সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্যই’। পরিস্কার জানিয়ে দিল; কলকাতা হাইকোর্ট। হিং’সা নিয়ন্ত্রণে সেনা নামানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার দায়িত্বভার; রাজ্যের উপরই ছাড়ল কলকাতা হাইকোর্ট। বহিষ্কৃত বিজেপি নেতা নূপুর শর্মার মন্তব্যকে কেন্দ্র করে; বাংলার বেশ কিছু জেলায় অ’শান্তির আঁচ ছড়িয়েছিল। সেই অশান্তি নিয়ন্ত্রণে সেনা ডাকা হবে কি না; তা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে একাধিক মামলা দায়ের হয়। বৃহস্পতিবার সেই মামলায় রায় দিল; প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের বেঞ্চ।

অশান্তি নিয়ন্ত্রণে রাজ্যের ভূমিকা সঠিক কি না, সিট গঠন, সেনা ডাকা-সহ একাধিক ইস্যুতে; মোট ৫টি মামলা হয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে। বুধবার সেই মামলার শুনানি হলেও; রায়দান স্থগিত রাখা হয়েছিল। এদিন রায়দান করল প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ। পশ্চিমবঙ্গে যে অশান্তি ছড়িয়েছে এবং সেই ঘটনায় একাধিক ব্যক্তিগত ও সরকারি সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে; আদালতে তা স্বীকার করে নিয়েছে রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার এমনটাই দাবি করেছেন; মামলাকারী আইনজীবী সুস্মিতা সাহা দত্ত।

আরও পড়ুনঃ পরেশ, গুণধর, বীরেন্দ্র, দুর্নীতি করে নেতার মেয়েদের চাকরি হয়েছে, কাঁদছে ‘বাংলার মেয়েরা’

বৃহস্পতিবার আদালত নির্দেশ দেয়, যে কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে; প্রয়োজনে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করতে হবে রাজ্য সরকারকে। এদিন হাইকোর্ট জানাল, যে কোনও ধরনের অশান্তি এবং অপ্রীতিকর ঘটনা আটকাবার জন্য; রাজ্যকে আগে থেকে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা করতে হবে। বাস্তব পরিস্থিতির মূল্যায়ণ করে, রাজ্য যদি মনে করে যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে; তাহলে প্রয়োজনে সেনা ডাকতে পারে। অর্থাৎ সেনা ডাকা হবে কি না; সেই সিদ্ধান্ত নেবে একমাত্র রাজ্য সরকারই।

আরও পড়ুনঃ ‘তৃণমূল-বাম সেটিং’, প্রাথমিক টেট দুর্নীতি, চাকরি গেল সিপিএম নেতার মেয়েরও

একইসঙ্গে বিচারপতি-দের নির্দেশ, সম্পত্তি এবং প্রাণহানি ঠেকাতে; প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে রাজ্য। একইসঙ্গে রাজ্য সরকার দ্রুততার সঙ্গে; অশান্তির ঘটনার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করবে। হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে এই জনস্বার্থ মামলাগুলির শুনানি চলছিল। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী রাজ্য কী কী পদক্ষেপ করল; আগামী ২৭ জুনের মধ্যে রিপোর্ট পেশ করে জানাতে হবে। পাশাপাশি, ক্ষতিগ্রস্ত বাসিন্দাদের; ক্ষতিপূরণের বন্দোবস্তও করতে হবে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন