করোনা মোকাবিলায় ভারতীয় সেনা, অবসর ভেঙে লড়াইয়ের মাঠে মেডিক্যাল কর্মীরা

3722
করোনা মোকাবিলায় ভারতীয় সেনা, অবসর ভেঙে লড়াইয়ের মাঠে মেডিক্যাল কর্মীরা
করোনা মোকাবিলায় ভারতীয় সেনা, অবসর ভেঙে লড়াইয়ের মাঠে মেডিক্যাল কর্মীরা

করোনা মোকাবিলায় ভারতীয় সেনা; অবসর ভেঙে লড়াইয়ের মাঠে নামছেন; ভারতীয় সেনার অবসরপ্রাপ্ত ডাক্তাররা ও মেডিক্যাল কর্মীরা। করোনা ভাইরাসের মহামারীর সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য, সেনার প্রস্তুতি নিয়ে; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়ার সোমবার এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়। বৈঠকের পর বিপিন রাওয়াত বলেন; সেনার বিগত দুই বছরে অবসরপ্রাপ্ত ডাক্তাররা ও মেডিক্যাল কর্মীরা; নিজের এলাকার কোভিড কেন্দ্রে কাজ করবেন। ভারতীয় সেনার এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন; দেশের আমজনতা।

এর পাশাপাশি কম্যান্ড, কোর, ডিভিশন আর নৌসেনা তথা বায়ুসেনার হেডকোয়ার্টারে মোতায়েন; সমস্ত মেডিক্যাল অফিসার হাসপাতালে নিযুক্ত হবেন। সিডিএস বিপিন রাওয়াত বলেন; হাসপাতালে ডাক্তারদের সাহায্যের জন্য, প্রচুর পরিমাণে নার্সিং স্টাফদের মোতায়েন করা হচ্ছে। আর সশস্ত্র দলের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মজুত থাকা অক্সিজেন সিলিন্ডার; হাসপাতাল-গুলোকে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুনঃ গরু পাচার কাণ্ডে সিবিআই তলব অনুব্রতকে, ‘একদম যাবি না’ পরামর্শ মমতার

এছাড়াও আর্মড ফোর্স প্রচুর পরিমাণে, মেডিক্যাল প্রতিষ্ঠান তৈরি করছে; ভারতীয় সেনা যেখানেই সম্ভব হবে সেখানেই; মেডিক্যাল সুবিধা নিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে যাবেন। রাওয়াতের সঙ্গে সাক্ষাৎ ছাড়া, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশ-বিদেশ থেকে; অক্সিজেন এবং অন্যান্য আবশ্যক সামগ্রী ভারতীয় বায়ুসেনা দ্বারা পরিবহনের প্রস্তুতির সমীক্ষা করেন।

আরও পড়ুনঃ মানুষের ‘সেবা’ করতে আসা নায়ক নায়িকারা, ভোট শেষ হতেই ‘উধাও’

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা; ক্রমেই বেড়েই চলেছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে; ইতিমধ্যেই বেসামাল দেশের বিভিন্ন রাজ্য। প্রতিদিন আক্রান্তের নিরিখে; রেকর্ড গড়ছে ভারত। পাশাপাশি বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে; বিশ্ব-তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত।

এই নিয়ে পরপর ৫ দিন; দেশের দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ৩ লক্ষ ছাড়াল। এই সংখ্যা আগামী এক মাসের মধ্যে; আরও ভয়াবহ আকার নেবে। মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে, সারা দেশে করোনা আক্রান্ত হতে পারেন; প্রতিদিন ৩৩ থেকে ৩৫ লক্ষ মানুষ। এমন আশঙ্কা কানপুর এবং হায়দরাবাদ; আইআইটির বিজ্ঞানীদের।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন