ভারতীয় সেনা অফিসারদের ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ না করার নির্দেশ

181
ভারতীয় সেনা অফিসারদের ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ না করার নির্দেশ/The News বাংলা
ভারতীয় সেনা অফিসারদের ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ না করার নির্দেশ/The News বাংলা

ভারতীয় সেনা অফিসার ও জওয়ানদের; ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপে আড়ি পাতছে পাকিস্তান। আর তাই ভারতীয় সেনা অফিসারদের ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ না করার নির্দেশ; দিল ভারতীয় সেনা আধিকারিকরা। হোয়াটসঅ্যাপে বা অন্য কোন সোশ্যাল মিডিয়ায়; কোন নির্দেশ দিতে বারণ করা হয়েছে। এক আগে সাধু বাবাদের বিষয়েও; ভারতীয় সেনা জওয়ানদের সাবধান করেছিল; সেনা আধিকারিকরা।

ভারতীয় সেনাবাহিনী আধিকারিকরা চান যে; উচ্চপদস্থ ও দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনাকর্তারা যেন তাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টগুলি নিষ্ক্রিয় করে দেন। এবং হোয়াটসঅ্যাপ বা কোন সোশ্যাল মিডিয়াকে; কোনও অফিসিয়াল যোগাযোগের জন্য ব্যবহার না করেন।

গত মাসে জারি করা একটি নির্দেশিকায় ভারতীয় সেনা আধিকারিকরা; সেনাবাহিনীর সমস্ত সদর দফতর, বিভাগ এবং ব্রিগেডে সংবেদনশীল ও উচ্চ পদে অধিষ্ঠিত সেনাকর্তাদের সতর্ক করে দিয়েছে যে; হোয়াটসঅ্যাপ একটি দুর্বল প্ল্যাটফর্ম এবং তাই কোনও সরকারী যোগাযোগের জন্য এটি ব্যবহার করা উচিত নয়।

আরও পড়ুনঃ গোটা ভারতকে লজ্জায় ফেলে শিশুর লেখা রচনা ভাইরাল

নোটিশে বলা হয়েছে যে; হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেজ মুছে দিলেও, শেষ থেকে এনক্রিপ্ট হওয়া সত্ত্বেও; যে মোবাইল হ্যান্ডসেটটিতে এটি ব্যবহৃত হচ্ছে তাতে একটি অ্যাপস ইন্সটল করা থাকলে; এনক্রিপশন কার্যকর হওয়া বন্ধ হবে। ফলে মুছে দিলেও দেখা যাবে ম্যাসেজ।

ইজরায়েলের এনএসও গ্রুপের মালিকানাধীন পেগাসাস নামক নজরদারি সফটওয়্যারটি; সাংবাদিক এবং সরকারি কর্মীসহ কিছু ভারতীয় সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীকে নজরদারির জন্য ব্যবহার করা হয়েছিল; বলে স্বীকার করার পরে সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ প্রবল বিক্ষোভের মুখে পড়েছিল।

সেনাবাহিনী সাইবার গ্রুপ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম প্রবণতা বিশ্লেষণ করার পরে; এই পরামর্শ দেয় যাতে সেনাকর্মীরা যেভাবে ইন্টারনেট ও সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করছে; সেই বিপদ সম্পর্কে তাঁরা অবগত থাকে।

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে যে; জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ; গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎস হিসাবে দেখা দিয়েছে। এই কারণেই সেনাবাহিনীতে উচ্চ পদে থাকা সেনাকর্তাদের; অবশ্যই তাদের অ্যাকাউন্ট নিষ্ক্রিয় করার বিষয়টি বিবেচনা করতে হবে।

নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, সশস্ত্র বাহিনীর কর্মীরা ও সেনা জওয়ানরা এবং তাদের পরিবারের মানুষরা; তাদের ইউনিফর্ম পড়ে ছবি বা এমন জায়গাগুলির ছবি ফেসবুকে পোস্ট করা থেকে বিরত থাকবে। সব মিলিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া এড়িয়ে চলার পরামর্শ; সেনাবাহিনীর অফিসার ও জওয়ানদের।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন