লালকেল্লায় ত্রিরঙ্গা ছাড়া গেরুয়া, লাল, নীল, হলুদ কিছুই চাই না, দাবি দেশবাসীর

2975
লালকেল্লায় ত্রিরঙ্গা ছাড়া গেরুয়া, লাল, নীল, হলুদ কিছুই চাই না, দাবি দেশবাসীর
লালকেল্লায় ত্রিরঙ্গা ছাড়া গেরুয়া, লাল, নীল, হলুদ কিছুই চাই না, দাবি দেশবাসীর

লালকেল্লায় ত্রিরঙ্গা ছাড়া; গেরুয়া, লাল, নীল, হলুদ কিছুই চাই না; প্রজাতন্ত্র দিবসের ঘটনার পর দেশজুড়ে এমনটাই দাবি দেশবাসীর। সাধারণতন্ত্র দিবসে সমস্ত নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে; দিল্লির দখল নিল কৃষকেরা। অবাধে ভাঙচুর হল পুলিশের গাড়ি, বাস। লালকেল্লার দখল নিয়ে’ কৃষকেরা আন্দোলনের নিশান ওড়াল। এই হিংসার নিন্দা করছে; রাজনীতির সব পক্ষই। পাশাপাশি কংগ্রেস ও মোদী বিরোধীদের তরফে এই তাণ্ডবের জন্য; কেন্দ্রকেই দায়ী করা হচ্ছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে আপাতত এনসিআর এলাকার; ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। গুজব আটকাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে; সিংঘু , গাজিপুর, তিরকি অঞ্চলের ইন্টারনেটও বন্ধ করা হয়েছে।

গোটা দেশকে চমকে দিয়ে, প্রজাতন্ত্র দিবসের দুপুরে দিল্লির লালকেল্লা দখল নিয়ে নেয় কৃষি বিলের বিরুদ্ধে আন্দোলনরত কৃষকরা। মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে; লালকেল্লায় ঢুকে পড়েন একদল বিক্ষোভকারী কৃষক। সেখানে ভারতের জাতীয় পতাকা সরিয়ে; কৃষক সংগঠন নিশান সাহিবের পতাকা টাঙান হয়। তারপরেই দেশ জুড়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। জড়িয়ে পড়েছে সমস্ত রাজনৈতিক দলও।

আরও পড়ুনঃ মোদী সরকারের নির্দেশে, ৩০ জানুয়ারি সকাল ১১টায় চুপ হয়ে যাবে গোটা দেশ

কৃষকদের ট্রাক্টর প্য়ারেডের জন্য; রুট বেধে দিয়েছিল দিল্লি পুলিশ। দেওয়া হয়েছিল ৩৭টি শর্ত। কিন্তু ওই প্যারেড শুরু থেকেই; রুট ভাঙে; ভেঙে ফেলা হয় ব্যারিকেডও। মুহূর্তের মধ্যে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে; দিল্লির পরিস্থিতি। কাঁদানে গ্যাস ছোড়া, লাঠিচার্জ, কিছুই বাদ রাখেনি দিল্লি পুলিশ। কিন্তু কৃষকদের বেপরোয়া আগ্রাসনের সামনে; কার্যত ভেঙে পরে তাদের সুরক্ষাবলয়। কৃষকদের অস্ত্র প্রদর্শন করতেও; দেখা গিয়েছে কোথাও কোথাও। আবার পুলিশের দিকে বেপরোয়া ভাবে; ট্রাক্টর চালানোর ভিডিওয় সামনে এসেছে।

লালকেল্লায় পৌঁছে যায়; বিভিন্ন সংগঠনের পতাকা; এমনকি সিপিএমের পতাকাও। তবে, ভারতের মানুষ লালকেল্লায়; ভারতের পতাকা ছাড়া অন্য কোন পতাকা দেখতে চান না। এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। অন্য কোন পতাকা নয়; ভারতের জাতীয় পতাকা দেখতে চাই লালকেল্লায়; একসুরে জানিয়ে দিয়েছে ভারতবাসী।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন