মহাকাশে যাচ্ছে ব্যোম মিত্র, ইসরোর নতুন আবিষ্কৃত রোবট

5102
মহাকাশে যাচ্ছে ব্যোমমিত্র, ইসরোর নতুন আবিষ্কৃত রোবট/The News বাংলা
মহাকাশে যাচ্ছে ব্যোমমিত্র, ইসরোর নতুন আবিষ্কৃত রোবট/The News বাংলা

মহাকাশে যাচ্ছে ব্যোমমিত্র; ইসরোর নতুন আবিষ্কৃত রোবট। রূপে লক্ষ্মী, গুনে স্বরসতী, কার কথা বলছি; না এ কোনও মানুষ নয়, এক রোবট। যার হাত দু হাত, মাথা, ঘাড় রয়েছে। সে যেদিকে ইচ্ছে শরীরও বাঁকাতে পারে। করতে পারে গবেষণাও। তাকেই আগে গগনযানে মহাকাশে পাঠিয়ে; গবেষণা করবে ইসরো। কোনও বিপদ বুঝলেও; বুদ্ধি খাটিয়ে সে সেই তথ্যও পাঠাবে ইসরোয়।

ইসরোর মহাবিজ্ঞানীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখবে। নভশ্চরদের দিয়ে মহাকাশ গবেষণা করার আগে; এই হিউম্যানেড বা মহিলা রোবটকে মহাকাশে পাঠানোর পরিকল্পনা করছে; ইসরো। ব্যোম মিত্র দুটি ভাষায় কথা বলতে পারে ও মানুষের মত সব কাজ করতে পারে বলে জানিয়েছে ইসরোর গবেষকরা।

আরও পড়ুন বাজার থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে হাতে তৈরি ফেদার কর্ক

তার নাম ব্যোমমিত্র। নভশ্চরদের তালিকা থেকে সে বাদ গিয়েছে; কিন্তু মহাকাশে গিয়ে প্রথম ট্রায়াল করবে সে। অতএব মহাকাশ গবেষণায়; তার গুরুত্ব অনেক। বায়ুসেনার চার দক্ষ পাইলটকে গগনযানের জন্য; নভশ্চর হিসেবে পাঠানো হয়েছে।

ইসরো এই চারজনকে মহাকাশে পাঠানোর আগে; রাশিয়াম স্পেস এজেন্সি রসকসমস এ পাঠাবে। আর ২০২২- সালে; প্রথমবার মানুষ নিয়ে মহাকাশে পাড়ি দেবে; ইসরোর গগনযান। তার আগেও গগনযানকে মহাকাশে পাঠানো হবে; তবে তা পরীক্ষামূলক। এই সময় গগনযানে চড়ে মহাকাশে যাবে; ব্যোমমিত্র। ইসরো জানিয়েছে, গগনযানে মানুষ পাঠানোর আগে; রোবট পাঠানো হবে। তাই মহিলা অবয়বের একটি রোবট; তৈরি করা হয়েছে।

মহাকাশে পৌঁছে কী কী করতে হবে; তার এই রোবটকে সবই শেখানো হয়েছে। মানুষ গিয়ে; মহাকাশে গবেষণা করার জন্য; অনেক প্রস্তুতি দরকার। নিরাপত্তার দরকার। তাই তার আগে এই পরীক্ষামূলক গবেষণা চালাবে ইসরো। মহাকাশ গবেষণার জন্য; চার বাছাই করা বায়ুসেনার শারীরিক পরীক্ষা হয়ে গিয়েছে। এরপর ১১ মাস প্রশিক্ষণ নেওয়ার জন্য; তাদের রাশিয়ার স্পেশ এজেন্সিতে; পাঠানো হবে। রসকসমস নভশ্চরদের হাতে কলমে; প্রশিক্ষণ দেবে। তার আগে মহাকাশ যাত্রা করবে; ব্যোমমিত্র।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন