মহাকাশে সাফল্য ভারতের, ইসরোর সঙ্গে যৌথ ভাবে মঙ্গল, শুক্র ও চন্দ্রাভিযানে নামবে নাসা, জাপান রাশিয়া ও ইউরোপ

50259
মহাকাশে সাফল্য ভারতের, ইসরোর সঙ্গে যৌথ ভাবে মঙ্গল, শুক্র ও চন্দ্রাভিযানে নামবে নাসা, জাপান রাশিয়া ও ইউরোপ
মহাকাশে সাফল্য ভারতের, ইসরোর সঙ্গে যৌথ ভাবে মঙ্গল, শুক্র ও চন্দ্রাভিযানে নামবে নাসা, জাপান রাশিয়া ও ইউরোপ

মহাকাশে বেনজির সাফল্য ভারতের। এবার ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর সঙ্গে; যৌথ ভাবে মঙ্গল, শুক্র ও চন্দ্রাভিযানে নামার সম্ভাবনা বিশ্বের অন্যান্য দেশেরও। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ‘নাসা’; জাপানের মহাকাশ সংস্থা ‘জাক্সা’; ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি ‘এসা’; এমনকী, রুশ মহাকাশ সংস্থা ‘রসকসমস’-এর সঙ্গেও; আগামী এক দশকের মধ্যেই চাঁদ ও মঙ্গলে যৌথ অভিযানে যেতে পারে ইসরো। এমন সম্ভাবনাই জোরালো হচ্ছে। আর সেটা হলে, ভারতীয় মহাকাশ গবেষণার জন্য; আরও অনেক রাস্তা খুলে যাবে।

কয়েক বছরের মধ্যেই, ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর সঙ্গে যৌথ ভাবে; মঙ্গল, শুক্র ও চন্দ্রাভিযানে নামবে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। শুধুই একে অন্যের মহাকাশযানে, কয়েকটি গবেষণার যন্ত্রপাতি পাঠানোর মধ্যেই; সেই সব অভিযান সীমাবদ্ধ থাকবে না। সেগুলি আক্ষরিক অর্থেই হবে যৌথ অভিযান। ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির (‘এসা’) সঙ্গে; এখন যে ধরনের যৌথ মহাকাশ অভিযানে নামে নাসা, ঠিক সেই রকমই।

আরও পড়ুনঃ চাঁদে পাড়ি দিচ্ছে ইসরো চন্দ্রযান ৩, ২০২১ এর শুরুতেই ইতিহাস গড়ার লক্ষ্যে ভারত

নাসার মঙ্গল অভিযানের (‘মার্স ২০২০ রোভার পারসিভের‌্যান্স’) চিফ ইঞ্জিনিয়ার; অ্যাডাম স্টেলটজনার নিজেই এ কথা জানিয়েছেন। মহাকাশে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি গবেষণাকে; যে ভাবে উত্তরোত্তর অগ্রাধিকার দিতে শুরু করেছে ইসরো; তার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন নাসার এ বারের মঙ্গল অভিযানের কান্ডারি। স্টেলটজনার বলেছেন; “ইসরো’জ পারফরম্যান্স ইজ জাস্ট অ্যামাজিং”।

ইসরোর কাজকর্ম; নাসার গবেষকদেরও চমকে দিয়েছে। এত অল্প সময়ে, ইসরো এত দ্রুত গতিতে মহাকাশ গবেষণায়; বিশ্বের প্রথম দু-তিনটি দেশের মধ্যে যে জায়গা করে নিতে পেরেছে; তা যথেষ্টই কৃতিত্বের দাবি রাখে। যেভাবে নামমাত্র খরচে, একের পর এক মহাকাশ অভিযান করছে ইসরো; তাতে চমকে গেছেন বিশ্বের সব দেশের মহাকাশ গবেষকরা।

অ্যাডাম স্টেলটজনার জানিয়েছেন; ‘নিসার’ ও ‘সিএমবি ভারত’-এর মতো কয়েকটি অভিযানে; ইতিমধ্যেই দারুণ ভাবে সহযোগিতার সম্পর্ক গড়ে উঠেছে নাসা ও ইসরোর মধ্যে। আর কয়েকবছরের মধ্যে তা আরও বাড়বে। স্টেলটজ্‌নারের কথায়, “আগামী দিনে চাঁদে মঙ্গলে এমনকি শুক্রেও; যৌথ অভিযানে যাবে নাসা ও ইসরো। ‘মার্স ২০২০ রোভার’ প্রকল্পের মূল কর্ণধার, এও জানিয়েছেন; শুধুই নাসার সঙ্গে কেন, জাপান, রাশিয়া ও ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির সঙ্গেও; যৌথ অভিযানে যাবে ভারতের ইসরো।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন