ভারতের সেনাবাহিনীর হাতে পাকিস্তানের রানী

212
ভারতের সেনাবাহিনীর হাতে পাকিস্তানের রানী/The News বাংলা
ভারতের সেনাবাহিনীর হাতে পাকিস্তানের রানী/The News বাংলা

ভারতীয় সেনা বাহিনির হাতে পাকিস্তানের রানী। হ্যাঁ শুনতে অবাক লাগলেও; এটাই সত্যি। পাকিস্তান সেনার ‘জারপাল রানি’ বা ‘জারপাল কুইন’ কে রক্ষা করছে ভারতীয় সেনা। আপাতত; জম্মু ও কাশ্মীরের লে থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে তিন নম্বর গ্রেনাডিয়ার রেজিমেন্টের শিবিরে; ভারতীয় সেনা শিবিরে আছে ‘জারপাল রানি’। রানী শুনে ভাববেন না; কোন মহিলার কথা বলা হচ্ছে; এই রানী আসলে; পাক সেনার একটি জিপ।

১৯৭১ সালে ভারত-পাক যুদ্ধের সময়; পাকিস্তান সেনা বাহিনীর কাছ থেকে এই জিপটি ছিনিয়ে নিয়েছিল ভারতীয় সেনার তিন নম্বর গ্রেনাডিয়ার রেজিমেন্ট। ৪৮ বছর কেটে গিয়েছে। কিন্তু এখনও ভারতীয় সেনার কাছে; স্বমহিমায় উজ্জ্বল পাকিস্তানি সেনার ‘জারপাল রানি’।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যে লুঙ্গি পরা বন্ধ করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

যুদ্ধজয়ের স্মারক হিসেবে; এই জিপটি পাকিস্তানি বাহিনীর কাছ থেকে এটি ছিনিয়ে নিয়েছিল ভারতীয় সেনা। একসময় বন্দুক লাগানো থাকত এই জিপের গায়ে; এখন সেসব না থাকলেও; যত্নআত্তিতে জিপটির কোনও খামতি নেই। মার্কিন জিপটি রেজিমেন্টের যুদ্ধজয়ের প্রতীক।

জারপাল পাকিস্তানের একটি শহর; আর এই শহরের নামেই জিপের এই নামকরণ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় প্রথমবার জিপ শব্দটিকে নিজেদের ট্রেডমার্ক বানিয়েছিল মার্কিন গাড়ি নির্মাতা সংস্থা উইলিস। সেই সময় সেনাবাহিনীর জন্যই এটি বানানো হতো।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীর ও বিক্রম কতদিন দৃষ্টি ঘুরিয়ে রাখতে পারবে, দেশে চাকরি যাচ্ছে লক্ষ লক্ষ মানুষের

বিশ্ববিখ্যাত উইলিস জিপের জারপাল রানি চাকচিক্যে নতুন গাড়িকেও হার মানাতে পারে। গাড়িটির গায়ে; উর্দুতে কিছু লেখাও রয়েছে। রেজিমেন্টের সঙ্গে ঘুরে প্রায় সারা ভারত ভ্রমণ সেরে ফেলেছে গাড়িটি। এখনও গাড়িটি ব্যবহারযোগ্য অবস্থায় আছে।

তৎকালীন রেজিমেন্টের দায়িত্বে থাকা সেনা পদকজয়ী অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল জেএস ধিলোঁ জানান; “আমরা জারপাল যুদ্ধের সময় এটিকে নিজেদের হেফাজতে নিই। পাকিস্তানের জারপাল এলাকার কাছে শাকারগড় সীমান্ত আক্রমণের সময় এটি ব্যবহার করেছিল পাক সেনা”।

আরও পড়ুনঃ সীমান্ত পার করে ভারতে পালিয়ে এলেন ইমরান খানের দলের বিধায়ক, মোদীর কাছে চাইলেন আশ্রয়

কর্নেল জেএস ধিলোঁ আরও জানান; “এটি ভারতীয় সেনার কাছে একটি ‘যুদ্ধ ট্রফি’। সেনা অফিসার; ভিআইপি অতিথিদের দেখানোর জন্য এর প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়ে থাকে। প্রবীণ কর্মকর্তাদের গার্ড-অফ-অনার চলাকালীনও এটি ব্যবহার করা হয়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন