ইগোর লড়াইয়ে কঙ্গনার অফিস ভাঙা, উদ্ধব ঠাকরের রাজনৈতিক জীবনের চরম ভুল

2573
ইগোর লড়াই, কঙ্গনার অফিস ভাঙা উদ্ধব ঠাকরের রাজনৈতিক জীবনের চরম ভুল/The News বাংলা
ইগোর লড়াই, কঙ্গনার অফিস ভাঙা উদ্ধব ঠাকরের রাজনৈতিক জীবনের চরম ভুল/The News বাংলা

ইগোর লড়াইয়ে কঙ্গনার অফিস ভাঙা; উদ্ধব ঠাকরের রাজনৈতিক জীবনের চরম ভুল। বলছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সঞ্জয় রাউতের উপর ভরসা করে; বৃহন্মুম্বই পুরসভাকে (বিএমসি) দিয়ে; অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের মণিকর্ণিকা অফিস ভাঙা; উদ্ধব ঠাকরের রাজনৈতিক জীবনের অন্যতম চরম ভুল; এমনটাই মনে করছেন মুম্বাই রাজনৈতিক মহল থেকে আমজনতা। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে উদ্ধব ঠাকরে; অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের বিরুদ্ধে ইগোর যুদ্ধে কেন নামলেন ? এটাই বুঝতে পারছে না রাজনৈতিক মহল থেকে শুরু করে সাধারণ শিব সেনা সমর্থকরাও।

কঙ্গনা রানাওয়াত বনাম মহারাষ্ট্র সরকারের সংঘাত ঘিরে; টানটান উত্তেজনা বাণিজ্য় নগরীতে। বান্দ্রার পালি হিলসে কঙ্গনার অফিস ভাঙা ঘিরে; এদিন নায়িকা বনাম উদ্ধব ঠাকরে সরকারের সংঘাত হাইকোর্টে গড়াল। কঙ্গনার অফিস ভাঙা বন্ধ করতে, ইতিমধ্য়েই বৃহন্মুম্বই পুরসভাকে (বিএমসি); নির্দেশ দিয়েছে বম্বে হাইকোর্ট। কঙ্গনার আবেদনের প্রেক্ষিতে, বিএমসি-কে জবাব দিতেও নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টেয়; এই মামলার শুনানি। হাইকোর্টের নির্দেশে টিম কঙ্গনা শিবির; আপাতত স্বস্তিতে বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

আরও পড়ুনঃ “আজ আমার ঘর ভেঙেছে, কাল তোর অহংকার ভাঙবে”, উদ্ধবকে তুই-তোকারি করে চ্যালেঞ্জ কঙ্গনার

“আজ আমার ঘর ভেঙেছে; কাল তোর অহংকার ভাঙবে”। উদ্ধবকে ‘তুই-তোকারি’ করে চ্যালেঞ্জ কঙ্গনার। বিএমসির তরফে কঙ্গনার অফিস ভেঙে, গুড়িয়ে দেওয়া প্রসঙ্গে; ক্ষোভ উগড়ে দিলেন মুম্বাইয়ের কুইন। বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই; শিব সেনা ও মহারাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে প্রকাশ্যে; বাকযুদ্ধ জড়িয়েছেন কঙ্গনা রানাওয়াত। তারই ফল স্বরূপ; উদ্ধব ঠাকরে কঙ্গনার অফিস গুড়িয়ে দিয়েছে; বলে অভিনেত্রীর অভিযোগ।

কঙ্গনার অফিসে নাকি, বেশ কিছু কাঠামোগত নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছে বলে; গতকালই একটি নোটিশ জারি করেছিল বিএমসি। সেই নোটিশ জারির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে; ভেঙে দেওয়া হল কঙ্গনার অফিস। যদিও এদিন, সেই অফিস ভাঙার বিরুদ্ধে; স্থগিতাদেশ দিয়েছে বোম্বে হাইকোর্ট।

আরও পড়ুনঃ কঙ্গনার অফিস ভাঙায় স্থগিতাদেশ বোম্বে হাইকোর্টের, ততক্ষণে বুলডোজার চালিয়ে দিয়েছে বিএমসি কর্মীরা

দাবানলের মতো সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে; কঙ্গনা রানাউত বনাম মহারাষ্ট্র সরকারের লড়াইয়ের আঁচ। এরই মধ্যে টুইটারে ভিডিও আপলোড করে; মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে একহাত নিয়েছেন কঙ্গনা। ভিডিওয় কঙ্গনা; উদ্ধব ঠাকরেকে ‘তুই’ সম্বোধন করেছেন। মেয়ের পাশে দাঁড়িয়ে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীকে; একহাত নিয়েছেন আশা রানাউতও। টুইট করে লিখেছেন; “উদ্ধব ঠাকরে আজ তুমি আমার মেয়ে কঙ্গনার অফিসে না; নিজের স্বর্গীয় পিতা বালাসাহেব ঠাকরের আত্মাকে আঘাত করেছ”।

ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন; হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর। ঘরের মেয়ের অফিসের, এই পরিণতিকে; দুর্ভাগ্যজনক আখ্যা দিয়েছেন তিনি। ঘটনার রেশ, মহারাষ্ট্র সরকারের জোটেও পড়েছে। এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ারও; উদ্ধব সরকারের নেতৃত্বাধীন বৃহণ্মুম্বই পুরনিগমের এহেন আচরণে ক্ষুব্ধ। রাজনৈতিক লড়াই ছেড়ে কেন; মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে তাঁর নেতাদের; কঙ্গনার সঙ্গে ব্যক্তিগত লড়াইয়ে নামতে নিষেধ করছেন না ? এটাও এখন মুম্বাই রাজনীতির বড় প্রশ্ন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন