মমতার বাংলায় একের পর এক সালিশি সভা ও নারী নির্যাতন

932
মমতার বাংলায় একের পর এক সালিশি সভা ও নারী নির্যাতন
মমতার বাংলায় একের পর এক সালিশি সভা ও নারী নির্যাতন

মমতার বাংলায় একের পর এক; সালিশি সভা ও নারী নির্যাতন। প্রায়দিনই রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে; মহিলাদের উপর নির্যাতনের ঘটনা সামনে আসছে। একদিন আগেই আলিপুরদুয়ার জেলায়; এক আদিবাসী মহিলার সঙ্গে চরম বর্বরতার ঘটনা সামনে এসেছিল। পরকীয়ার শাস্তি হিসেবে ওই আদিবাসী মহিলাকে; সালিশি সভায় নগ্ন করে মারধোর করা হয়। এরপর তাঁকে নগ্ন অবস্থায়; গোটা গ্রামে ঘোরানো হয়। এখানেই শেষ নয়, সেই ঘটনার ভিডিও করে; সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়। আলিপুরদুয়ারের পর এবার; জলপাইগুড়ি জেলার ময়নাগুড়ি। ফের নারী নির্যাতন।

আলিপুরদুয়ার কাণ্ডে গোটা রাজ্যে; প্রশাসনের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড়। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই; ফের নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটল। এবার জলপাইগুড়ি ময়নাগুড়িতে পরকীয়ার শাস্তি হিসেবে; সালিশি সভা বসিয়ে মহিলার চুল কেটে নেওয়ার অভিযোগ; উঠেছে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে। ফের মধ্যযুগীয় বর্বরতা। পরকীয়ার অভিযোগে এক মহিলাকে শুধু মারধরই নয়; কেটে নেওয়া হল তার চুলও। জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ির এই ঘটনায়; এলাকায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় আদিবাসী মহিলার উপর নি’র্যাতন, সালিশি সভায় পিটিয়ে ন’গ্ন করে ঘোরানো হল গ্রামে

ময়নাগুড়ির উল্লাডাবাড়ির বেত গাড়া গ্রামে; এক মহিলার পরকীয় সম্পর্ক; রয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। গ্রামের সামাজিক পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে; এই অভিযোগ ওই মহিলাকে রাস্তায় ফেল পেটানো হয়। এখানেই শেষ নয়; কেটে নেওয়া হয় তার চুলও। ঘটনায় ময়নাগুড়ি থানায়; অভিযোগ দায়ের করেছেন মহিলার স্বামী। মহিলার স্বামীর অভিযোগ; পরকীয়ার অভিযোগ তুলে তার স্ত্রীকে মারধর ও চুল কেটে নেওয়া হয়েছে। পাড়ার কয়েকজনের নামও; করেছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ ১১ বছর বয়সেই কম্পিউটার পোগ্রামিং বই লিখে বিশ্বকে চমকে দিল বাঙালি বালক

আলিপুরদুয়ারের মতো ময়নাগুড়িতেও; মহিলাকে শাস্তি দিতে সালিশি সভা ডাকা হয়। সালিশি সভার পরেই, ওই মহিলা আর তাঁর স্বামীর উপর; চড়াও হয় এলাকাবাসী। তাঁদের রাস্তাতে ফেলে; বেধড়ক মারধোর করা হয়। মহিলার স্বামীকে গাছের সঙ্গে; বেঁধে রাখা হয়। ঘটনায় পুরুষদের সঙ্গে মহিলা-রাও ছিল; বলেই জানা গিয়েছে। ক্ষিপ্ত মহিলারাই নির্যাতিতার মাথায় জল ঢেলে; তাঁর চুল কেটে নেয়। এখানেও মহিলাকে নির্যাতনের ভিডিও; সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও; এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন