কাশীর পর মথুরা, কৃষ্ণের জন্মস্থানে মসজিদ বন্ধের আর্জি, ইদগাহ সিল করতে মামলা

85
বারাণসির পর মথুরায় কৃষ্ণের জন্মস্থানে মসজিদ বন্ধের আর্জি, ইদগাহ সিল করতে মামলা
বারাণসির পর মথুরায় কৃষ্ণের জন্মস্থানে মসজিদ বন্ধের আর্জি, ইদগাহ সিল করতে মামলা
Simple Custom Content Adder

কাশীর পর এবার মথুরায় কৃষ্ণের জন্মস্থানে, মসজিদ বন্ধের আর্জি; ইদগাহ সিল করতে আদালতে দায়ের মামলা। মথুরায় মসজিদ বন্ধ ও ইদগাহ ময়দান সিলের দাবিতে মামলা। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের মথুরায়; শ্রীকৃষ্ণের জন্ম হয়েছিল। মন্দির সংলগ্ন শাহি ইদগাহ নিয়ে; বিতর্ক তৈরি হয়েছে বহুদিন থেকেই। মথুরার শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমিতে মন্দিরের কাছে যে মসজিদটি আছে; তার জায়গা হিন্দুদের কাছে হস্তান্তর করার দাবি উঠেছে। এবার সেই নিয়েই; মামলা হল আদালতে।

গত বেশ কয়েকদিন ধরেই; ঐতিহাসিক বারাণসী জ্ঞানবাপী মসজিদ নিয়ে বিতর্ক চরমে উঠেছে। আদালতের নির্দেশে মসজিদে সমীক্ষা চলেছে; সমীক্ষা চলাকালীন ওজুখানায় ‘শিবলিঙ্গ’ মিলেছে বলেও দাবি করা হয়েছে। এরপরই সিল করা হয়েছে মসজিদের ওজুখানা। এই আবহে এবার মথুরার ইদগাহ ময়দানও; সিল করে সেখানে নমাজ বন্ধের আর্জি জানিয়ে আবেদন দায়ের হল আদালতে। মথুরার স্থানীয় আদালতেই; দু-জন আইনজীবী এই নিয়ে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছেন।

লখনউয়ের আইনজীবী শৈলেন্দ্র সিং, মথুরা দায়রা জজ আদালতে; একটি পিটিশন দাখিল করেছেন। আবেদনে তাঁর আর্জি, শাহি ইদগাহে মুসলমানদের নমাজ পড়া বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হোক। আবদেনকারী বলেন, ‘যেখানে মন্দির ছিল সেখানেই শাহি ইদগাহ মসজিদ গড়ে উঠেছে; এখানেই ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্ম হয়েছিল। আমরা চাই না যে; মুসলমানরা শাহি ঈদগাহ মসজিদে নমাজ পড়ুক’।

আরও পড়ুনঃ বাবরি-র পর জ্ঞানবাপি, ‘মন্দির ওহি বনেগা’

কয়েকদিন আগেই মথুরার কৃষ্ণ জন্মভূমি সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত, সেই মসজিদ এলাকায় সমীক্ষার জন্য; অ্যাডভোকেট কমিশনরকে নিয়োগের পিটিশন দায়ের হয় আদালতে। এই একই ধরনের এক পিটিশনের ভিত্তিতেই; কাশীর জ্ঞানবাপী মসজিদে সমীক্ষা চলছে।

২০২০ সালের ২৩ ডিসেম্বর থেকে; মথুরার সিভিল জজ কোর্টে মামলা চলছে। ভগবান কেশবদেব মন্দিরের তরফে, দায়ের করা ওই পিটিশনে; শ্রীকৃষ্ণের চিহ্ন রয়েছে বলে শাহি দরগা সরিয়ে দেওয়ার দাবি করা হয়েছে। এলাকা শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমি বলে দাবি; মন্দিরের দাবি ইদগাহের ১৩.৩৭ একর জমি তাদের।

‘ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মস্থানের’ পাশে ইদগাহ মসজিদ, সিল করার আর্জি নিয়ে দায়ের করা মামলা; শুনানির জন্যও নিয়েও নিয়েছে মথুরা আদালত। ইতিমধ্যেই কৃষ্ণের জন্মস্থান তথা কাটরা কেশবদেব মন্দিরের ১৩.৩৭ একর জমি ও ইদগাহ মন্দির নিয়ে; হিন্দুত্ববাদীরা মথুরা আদালতেই অন্তত ১০টি আলাদা মামলা দায়ের করেছেন।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন