মুখে ‘খেলা হবে’ বললেও, খেলার মাঠে ভারতের সব রাজ্যের চেয়ে পিছিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার

6923
মুখে 'খেলা হবে' বললেও, খেলার মাঠে ভারতের সব রাজ্যের চেয়ে পিছিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার
মুখে 'খেলা হবে' বললেও, খেলার মাঠে ভারতের সব রাজ্যের চেয়ে পিছিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার

মুখে ‘খেলা হবে’ বললেও, খেলার মাঠে; ভারতের সব রাজ্যের চেয়ে পিছিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। এমনটাই দাবি করেছেন; রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। ঠিক ৩৬৪ দিন পিছিয়ে ২০২০ টোকিও অলিম্পিক; শুরু হচ্ছে ২০২১ সালের ২৩ জুলাই; চলবে ৮ আগস্ট পর্যন্ত। আন্তর্জাতি অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) জানিয়েছে; ২০২১ সালে শুরু হলেও এই অলিম্পিককে বলা হবে ২০২০ টোকিও অলিম্পিক। আর এখানেই অংশগ্রহণ শুধু নয়; পদকের লক্ষ্যে গেছে ভারতীয় খেলোয়াড়রা। বিভিন্ন রাজ্য ইতিমধ্যেই পদক পেলেই; পুরস্কারের ঘোষণা করে দিয়েছে। আর এখানেই; সবার পিছনে বাংলা।

আরও পড়ুনঃ ‘দুয়ারে পাস’ প্রকল্পে ১০ লক্ষ ফার্স্ট ডিভিশন, ‘পড়াশোনায় ছেলেখেলা’ বলছে শিক্ষা জগত

দেশের কোন খেলোয়াড় সোনা পেলে; কেন্দ্র সরকার দেবে ৭৫ লাখ টাকা। নিজের রাজ্যের কোন খেলোয়াড় সোনা পেলে; হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, ওড়িশা ও চণ্ডীগড় সরকার দেবে; ৬ কোটি টাকা করে। কর্ণাটক ও গুজরাত সরকার দেবে; ৫ কোটি টাকা করে। সোনা জিতলেই ৩ কোটি টাকা দেবে; দিল্লি, রাজস্থান, সিকিম, তামিলনাড়ু। পাঞ্জাব ২.২৫ কোটি; হিমাচল প্রদেশ, ঝাড়খণ্ড, তেলেঙ্গনা ২ কোটি; উত্তরাখণ্ড ১.৫ কোটি; মহারাষ্ট্র, কেরালা, গোয়া; ১ কোটি টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করেছে।

বাংলায় ঘোষণা করেছে; সোনা জিতলেই খেলোয়াড় পাবে ২৫ লাখ টাকা। আর এই নিয়েই, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে একহাত নিয়েছেন; বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রী বলছেন ‘খেলা হবে’; তবে খেলার মাঠে অনেক পিছিয়ে বাংলা। নিজের খেলোয়াড়-দের পুরস্কার দেওয়ার ক্ষেত্রেও; দেশের সব রাজ্যের চেয়ে পিছিয়ে বাংলা। লিস্টে দেখা যাচ্ছে; সবার পিছনে আছে বাংলা।

আরও পড়ুনঃ কলকাতাকে লন্ডন বানানোর রসিকতা ছাড়ুন, ক্যালকাটা-লন্ডন বাস পরিষেবা ছিল বিশ্বের বিস্ময়

তৃণমূলের তরফ থেকে বলা হয়েছে; “এই ঘোষণা এমনিতেই করা থাকে। টোকিও অলিম্পিকে বাংলার কেউ সোনা রুপো বা ব্রোঞ্জ পেলে; তাঁকে দৃষ্টান্তমূলক পুরস্কার দেওয়া হবে। কি ঘোষণা আগে থেকেই করা আছে; সেই নিয়ে বিতর্ক করতে পারেন শুভেন্দু; তাতে আমাদের কোন উৎসাহ নেই। খেলোয়াড়দের পাশে; সবসময় দাঁড়ান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়”। তবে এই নিয়ে, শুরু হয়েছে; রাজ্য রাজনীতিতে বিতর্কের ঝড়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন