চলে গেলেন কলকাতার ক্যাবারে কুইন মিস শেফালি

1889
চলে গেলেন কলকাতার ক্যাবারে কুইন মিস শেফালি/The News বাংলা
চলে গেলেন কলকাতার ক্যাবারে কুইন মিস শেফালি/The News বাংলা

চলে গেলেন কলকাতার ক্যাবারে কুইন মিস শেফালি। বুধবার ভোর ৬টা নাগাদ; হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন প্রথম বাঙালি ক্যাবারে ডান্সার। বিগত বেশ অনেক দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন মিস শেফালি। কিডনির সংক্রামক অসুখে ভুগছিলেন তিনি। মিস শেফালির সঙ্গে সঙ্গে শেষ হয়ে গেল বাংলা ক্যাবারে ডান্সারের একটা ঐতিহাসিক অধ্যায়।

ষাটের দশকের সময় সারা কলকাতা কাঁপাতেন কুইন অফ ক্যাবারে; মিস শেফালি। থিয়েটারের মঞ্চ থেকে সিনেমার পর্দা; ক্যাবারের জগতের একচ্ছত্র অধিষ্ঠাত্রী। বুধবার ভোর সাড়ে ৫টা নাগাদ; শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরে কিডনির সমস্যার কাবু ছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

সোদপুরে নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন মিস শেফালি। তাঁর আসল নাম ছিল আরতি দাস। ছোটবেলা থেকে চরম দারিদ্র্যের সঙ্গে লড়ায় করে; শেষে হয়ে উঠেছিলেন কলকাতার বিখ্যাত ক্যাবারে ডান্সার। যে সময় বাঙালি মেয়েদের বাইরে বেরোনোর জড়তা কাটেনি; সেই সময় মিস শেফালি একা কাঁপিয়েছিলেন সারা কলকাতাকে। তাঁর রূপের ছটায় মুগ্ধ হয়েছিলেন; একাধিক ব্যক্তিত্ব।

স্বয়ং সত্যজিৎ রায় ডেকে পাঠিয়েছিলেন; ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’ (১৯৭০) এবং ‘সীমাবদ্ধ’ (১৯৭১) ছবিতে অভিনয় করার জন্য। এছাড়া; ‘বহ্নিশিখা’ (১৯৭৬), ‘পেন্নাম কলকাতা’ (১৯৯২)-র মতো ছবিতেও দেখা গিয়েছে মিস শেফালিকে।

তাঁকে। বিগত কয়েক বছর ধরে পর্দার সামনে আর আসেননি মিস শেফালি। কাজ না থাকায় আর্থিক সমস্যারও সম্মুখীন হতে হয়েছিল তাঁকে। শেষের দিকে অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসার জন্যে অর্থাভাবও দেখা দিয়েছিল।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন