এসএসকেএম হাসপাতালে নার্স মায়েদের লড়াইয়ে হাজির ছোট্ট শিশুরাও

4822
এসএসকেএম হাসপাতালে নার্স মায়েদের লড়াইয়ে হাজির ছোট্ট শিশুরাও
এসএসকেএম হাসপাতালে নার্স মায়েদের লড়াইয়ে হাজির ছোট্ট শিশুরাও

এসএসকেএম হাসপাতালে নার্স মায়েদের লড়াইয়ে হাজির ছোট্ট শিশুরাও। ন্যায্য বেতন ও বেতন বৈষম্যের নিরসনের দাবিতে; এসএসকেএম হাসপাতালে নার্স আন্দোলন বুধবার দশম দিনে। নার্স মায়েদের সঙ্গে তাঁদের সন্তানরাও; এই আন্দোলনে সামিল হয়েছে। তারাও পথে নামছে বিক্ষোভরত মায়েদের সঙ্গে। রাতেও থাকছে আন্দোলনের মঞ্চে। এসএসকেএম হাসপাতালে নার্সদের ‘সম কাজে সম বেতন’এর দাবিতে চলছে বিক্ষোভ। করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মাঝেই; এসএসকেএম হাসপাতালে বিক্ষোভে সামিল নার্সরা।

‘নার্সেস ইউনিটি’ নামক সংগঠনের পক্ষ থেকে; এই বিক্ষোভ দেখানো হয়। দাবি-দাওয়া পূরণ না হলে, গণ-ছুটির পথে হাঁটার; হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়েছে নার্সদের পক্ষ থেকে। বর্তমান বেতন কাঠামো নিয়ে; নার্সদের মধ্যে অসন্তোষ দীর্ঘদিনের। সম কাজে সম বেতনের দাবি জানিয়ে; বছর দুই-তিন আগে থেকেই এই ক্ষোভ-বিক্ষোভ চলছে।

আন্দোলনরত এক নার্সের কথায়; “সমস্ত প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে আমাদের এই লড়াই চলছে। এই অপমান, এই বঞ্চনা, এই অমর্যাদা আমরা আর মেনে নিতে পারছি না। অনেক মৌখিক আশ্বাস পেয়েছি আমরা। কিন্তু তার কিছুই কার্যকরী হয় নি। এবার আর আশ্বাস না, আমরা এই অমর্যাদার নিরসন চাই। আর যতদিন সেটা না হচ্ছে আমাদের এই আন্দোলন চলছে চলবে”।

আরও পড়ুনঃ “মমতাকে ব্রেনোলিয়া খাওয়ান, তাহলে মনে পড়বে মুকুল কোন দলে”, কুণালকে পাল্টা শুভেন্দু

বছর দুয়েক আগে, সরকারি তরফে; সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতিও মিলেছিল। কিন্তু নারসদের অভিযোগের; কোনও সমাধান হয়নি। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করার জন্য সোমবার; নার্সেস ইউনিটির প্রতিনিধিদের স্বাস্থ্য ভবনে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু সূত্রের খবর, একপ্রস্থ আলোচনা পরও; কোন‌ও সমাধান সূত্র সেখানে বের হয়নি।

তাঁদের দাবি, “এই আন্দোলনের ফলে এখনও রোগী পরিষেবা; বিন্দুমাত্র ব্যাহত হয় নি। কিন্তু তার মানে যদি এই হয় যে, এভাবেই দিন কাটবে; তবে সেটা ভুল। সরকার আমাদের উপস্থিতির গুরুত্ব না বুঝলে; আমাদের অনুপস্থিতি আশা করি সেই গুরুত্ব বুঝিয়ে দেবে। আর তার যে প্রভাব জনস্বাস্থ্যের উপর পড়বে; তার জন্য আমরা এতটুকু দায়ী থাকবো না”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন