‘হাইকোর্টে বিপ্লব’, আজ আবার যুগান্তকারী রায় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের

82
'হাইকোর্টে বিপ্লব', আজ আবার যুগান্তকারী রায় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের
'হাইকোর্টে বিপ্লব', আজ আবার যুগান্তকারী রায় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের
Simple Custom Content Adder

‘হাইকোর্টে বিপ্লব’, আজ আবার যুগান্তকারী রায়; বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের। প্রাথমিক নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে; সিবিআইকে বিশেষ টিম বা সিট গঠন করার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলার তদন্ত হবে; কলকাতা হাইকোর্টের বিশেষ নজরদারিতে। সিবিআইকে সিট বা স্পেশাল ইনভেস্টেগেটিং টিম গঠনের নির্দেশ দিল আদালত। সেই বিশেষ তদন্তকারী দলের দায়িত্বে থাকবেন; কলকাতা সিবিআই-য়ের এক যুগ্ম অধিকর্তা। হাইকোর্টের নজরদারিতে নিয়োগ দুর্নীতির তদন্ত চালাবে তারা।

বুধবার এমনই নির্দেশ দিলেন, কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। শুধু তাই নয়, তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত; সিবিআই এর এই টিমের; বা সিটের আধিকারিকদের বদলি করতে পারবে না সিবিআই। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে, সিবিআই তদন্তের গতি নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিলেন; বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। এদিন শুনানি চলাকালীন; সেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। একইসঙ্গে তদন্তে গতি আনতে; নয়া নির্দেশও দেন এদিন।

আরও পড়ুনঃ ২০১৪ সালে পোলিও মুক্ত দেশের স্বীকৃতি পায় ভারত, বাংলার মেটিয়াবুরুজে পোলিও হানা

সিবিআইয়ের সিটে বা সেই স্পেশাল টাইম কারা কারা থাকবেন; আধিকারিকদের নামের সেই তালিকা শুক্রবার আদালতে পেশ করবে সিবিআই। এদিন শুনানি চলাকালীন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় বলেন; “আমি আশা করব সিবিআই তদন্তে; এবার লক্ষণীয় অগ্রগতি হবে। যাতে আমাকে আর আশাহত হতে না হয়”। একইসঙ্গে তিনি আরও একবার মনে করিয়ে দেন; ‘অন্যান্য মামলাগুলিতে আজ পর্যন্ত সিবিআইয়ের কর্মকাণ্ডে আদালত খুব একটা সন্তুষ্ট নয়’।

আরও পড়ুনঃ করোনা নেই, বাধ্যতামূলক কোভিড টেস্টের নামে মানুষকে লুটছে বেসরকারি হাসপাতাল

এদিন প্রাথমিক টেটের দুটি মামলার; প্রাথমিক রিপোর্ট পেশ করে সিবিআই। রিপোর্ট পেশ করে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদও। আদালতে সিবিআই জানায়, “আমরা অত্যন্ত গুরত্ব দিয়ে এই মামলা-গুলি দেখছি; দিল্লি থেকে নতুন যুগ্ম অধিকর্তা এসেছেন, যিনি শুধুমাত্র এই মামলাগুলোই দেখছেন। আগামী কয়েকসপ্তাহ ঘটনাবহুল হতে চলেছে”।

স্কুল সার্ভিস কমিশনের মত; ২০১৪ সালের প্রাইমারি টেট নিয়োগ নিয়েও দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণ হয়ে গেছে। ২৬৯ জনের নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে; যাদের সবার চাকরি বাতিল করে দিয়েছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। এই মামলায় আগেই সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল; কলকাতা হাইকোর্ট। আদালতের নির্দেশে চাকরি খুইয়েছিলেন ২৬৯ জন শিক্ষক; এবার সেই মামলার তদন্ত করবে সিবিআইয়ের সিট, কলকাতা হাইকোর্টের নজরদারিতে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন