হাজরায় মমতার মাথায় লাঠির হামলা, বেকসুর খালাস লালু আলম

135
হাজরায় মমতার মাথায় লাঠির হামলা, বেকসুর খালাস লালু আলম/The News বাংলা
হাজরায় মমতার মাথায় লাঠির হামলা, বেকসুর খালাস লালু আলম/The News বাংলা

হাজরায় মমতার মাথায় লাঠির হামলা মামলায়; বেকসুর খালাস পেলেন অভিযুক্ত লালু আলম। ২৮ বছর পর; হাজরা মোড়ে মমতা বন্দ্যোপাধায়ের উপর লালু আলমের হামলা সংক্রান্ত মামলার; বিচারপ্রক্রিয়া শুরুর শুনানি শুরু হয় ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে। আলিপুর আদালতের ষষ্ঠ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা বিচারকের এজলাসে; এই প্রক্রিয়া শুরু হয়৷ রাজ্য সরকার আর এই মামলা লড়তে না চাওয়ায়; বেকসুর খালাস পেলেন; অভিযুক্ত লালু আলম।

স্বাক্ষির অভাবে অভিযুক্তের দোষ প্রমাণিত হয়নি; বৃহস্পতিবার এই রায় দেন বিচারপতি। ১৯৯০ সালের ১৬ অগাস্ট হাজরা মোড়ে; একটি মিছিলে হামলার মুখে পড়েন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন তিনি যুব কংগ্রেসের নেত্রী। তাঁর মাথায় গুরুতর আঘাত লাগে। এক মাস হাসপাতালে থাকতে হয় তাঁকে। অভিযোগ ওঠে; লালু আলম এবং তাঁর সঙ্গীদের বিরুদ্ধে। সুয়ো মোটো মামলা দায়ের করে ভবানীপুর থানা। এরপর ১২ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়ে; আলিপুর আদালতে শুরু হয় বিচারপ্রক্রিয়া।

আরও পড়ুনঃ মুখ্যমন্ত্রী মমতার নিরাপত্তার জন্য টেন্ডার ডাকল রাজ্য সরকার

৯৪ সালে মমতা সাক্ষ্য দিলেও; অভিযুক্তের আইনজীবীদের তাঁকে জেরা করা বাকি ছিল। কিন্তু এই বছরের আগস্টে সেই সাক্ষ্য গ্রহণের বদলে; মামলা না চালানোর কথা জানানো হয় সরকার পক্ষ থেকে। আদালতে লিখিতভাবে এ কথা জানান; মুখ্য সরকারি কৌঁসুলি।

আরও পড়ুনঃ আপনার মোবাইলে টাকা নেই, রিচার্জ করে দেবে স্বয়ং মোদী

আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন; “জাস্টিস ডিলেইড ইজ জাস্টিস ডিনায়েড। ৩০ বছরে মামলার তেমন অগ্রগতি হয়নি। বেশিরভাগ সাক্ষী মারা গিয়েছেন। এই অবস্থায় মামলা চালানোর অর্থ; দুপক্ষকে আরও হেনস্থা করা। এত বছর পর এই মামলার; কোনও আশাপ্রদ ফল পাওয়া যাবে বলে মনে হয় না। তাই আমরা মামলা চালাতে চাই না বলে জানিয়েছি। এর পর আদালত সিদ্ধান্ত নেবে”।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরের ডাল লেকের হাউসবোট এবার চলবে বাংলার গঙ্গায়

এরপরেই দুপক্ষের সম্মতিতে এই মামলা খারিজ করে; অভিযুক্ত লালু আলমকে বেকসুর খালাস করে দিল আলিপুর আদালত। এর ফলে ২৯ বছরের একটি ঘটনার যবনিকাপাত হল এইভাবেই। সত্যের জয় হল; বলেছেন লালু আলম। তবে এই নিয়ে মমতার কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন