রাজ্য জুড়ে অস্থিরতার মাঝেই, মহালয়ার বাকি আর মাত্র ১০০ দিন

5203
রাজ্য জুড়ে অস্থিরতার মাঝেই, মহালয়ার বাকি আর মাত্র ১০০ দিন/The News বাংলা
রাজ্য জুড়ে অস্থিরতার মাঝেই, মহালয়ার বাকি আর মাত্র ১০০ দিন/The News বাংলা

রাজ্য জুড়ে ভোট পরবর্তী হিংসা। ভাটপাড়ায় বৃহস্পতিবার মারা গেলেন; দুজন সাধারণ মানুষ। আর এর মাঝেই বাঙালির কাছে খুশির হাওয়া। অপেক্ষার আর মাত্র ১০০ দিন৷ হ্যাঁ বৃহস্পতিবার থেকে; মহালয়ার দূরত্ব মাত্র ১০০ দিনের। মহালয়া অর্থাৎ পিতৃপক্ষের শেষ ও দেবীপক্ষের সূচনা। ব্যস্ততা বৃদ্ধি পুজো উদ্যোক্তাদের মধ্যে।

বাঙালির জীবনে মহালয়ার এক গুরুত্ব বা মাধুর্য আছে৷ সেই গরুর গাড়ির সময়ের থেকে; আজকের ফোর জি যুগে বিন্দুমাত্র ম্লান হয়নি মহালয়ার বন্দনা। ইউটিউব বা অন্য সূত্র থেকে যতই ডাউনলোড করা হোক না; বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রর কণ্ঠে চণ্ডীপাঠ; আজও চিরস্মরণীয়। সময়ে অসময়ে তা শুনতে তা মন্দ লাগেনা।

মহালয়া মানেই পুজোর ঢাকে কাঠি৷ এই দিনই শুরু হয় দেবীর চক্ষুদান। এই সব কিছুই জানান দেয়; পুজোর আর মাত্র কটা দিন। আর মহালয়ার ১০০ দিন বাকি মানেই পুজো উদ্যোক্তাদের কাছে; কাউন্টডাউন শুরু, ব্যস্ততা বৃদ্ধির শুরু।

এই বছরের মহালয়া তিথি ২৯ শে সেপ্টেম্বর পড়েছে। ৩ অক্টোবর তারিখ পড়ছে মহাপঞ্চমী। মানে আর মাত্র ৩ টে মাস। ঝড়ের বেগে কেটে যায় এই ৩টি মাস। শুরু হয়ে গিয়েছে পাড়ায় পাড়ায়; প্যান্ডেল তৈরির কাজ। অবশ্য খুঁটি পুজো থেকেই; শুরু হয়ে যায় পুজোর কাউন্টডাউন। রথযাত্রার দিন থেকেই শুরু হয় খুঁটিপুজো।

মায়ের প্রতিমা তৈরি করতে থাকে কারিগররা। পুজোর এই চারটি দিন বাঙালির জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়। আকাশে বাতাসে ছড়িয়ে পড়ে পুজোর গন্ধ। মহালয়ার সকাল শুরু হয় পিতৃতর্পণ, গঙ্গাস্নান দিয়েই। নীল আকাশে মেঘের ভেলা; পাড়ার মাঠে পুজোর প্যান্ডলের বাঁশ বাঁধার আওয়াজ; শিউলি ফুলের মিষ্টি গন্ধ।

ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের পুজো নিয়ে বাড়তি উন্মাদনা, উৎসাহ; শহর ও শহরতলিতে পুজোর কেনাকাটায় মানুষের ব্যস্ততা; পুজো স্পেশ্যাল সাজসজ্জা, সেলুন বা বিউটি পার্লারের উপচে পড়া ভিড়। মহালয়া মানেই পুজোর শুরু। আর সেই মহালয়ার ১০০ দিন বাকি মানেই; পাড়ার ও ক্লাবের পুজো উদ্যোক্তাদের চিন্তার শুরু।

কাউন্টডাউন শুরু। আর তো কটা দিন। পুজোর আনন্দে শহরতলি থেকে; ঝেঁটিয়ে শহরে আসা প্রবল উৎসাহী মানুষের ভিড়ে; কোথায় যেন হারিয়ে যায় জীবনের নানান দুঃখ, যন্ত্রণা ও না পাওয়ার হাহাকার। বাঙালির জীবনে এই চার পাঁচটি দিনই যেন; লিখে যায় স্বপ্নপূরণের রূপকথা।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন