এগিয়ে বাংলা, দুই আদিবাসী যুবতীকে গণ ধর’ষণ, লজ্জায় মৃত্যু মায়ের

2576
এগিয়ে বাংলা, দুই আদিবাসী যুবতীকে গণ ধর'ষণ, লজ্জায় মৃত্যু মায়ের
এগিয়ে বাংলা, দুই আদিবাসী যুবতীকে গণ ধর'ষণ, লজ্জায় মৃত্যু মায়ের

এগিয়ে বাংলা, দুই আদিবাসী যুবতীকে; রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণ ধর’ষণ। খবর পেয়েই; হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু মায়ের। দুই আদিবাসি যুবতীকে রাস্তা থেকে তুলে; পুকুর পাড়ে নিয়ে গিয়ে গ্যাংরে’পের ঘটনায় উত্তাল মালদা জেলা। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার হবিবপুরের মঙ্গলপুরা গ্রামে। জানা গিরেছে, এদিন দুই আদিবাসী বোন; স্থানীয় এক বিয়ের কন্যাযাত্রী গিরেছিল। এরপর তারা বাড়ি ফেরার জন্য; রওনা দেয়। বাড়ি ফেরার পথেই, রাস্তায় দুইটি মোটরবাইক; দুই বোনের পথ আটকায়। এরপর তাদের রাস্তা থেকে জোর করে তুলে নিয়ে যায়; পাশের একটি পুকুর পাড়ে। সেখানে তাঁদের গণ-ধর’ষন; করা হয় বলেই অভিযোগ।

দুই বোনের চিৎকারে স্থানিয় বাসিন্দারা ছুটে আসতেই; অভিযুক্তরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। ঘটনার কথা শুনে; হার্ট এট্যাক হয় দুই বোনের মায়ের; হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে মৃত্যু হয় মায়ের। ঘটনায় স্থানীয়রা একজনকে ধরে; পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে; হাবিবপুর থানা ও মালদা জেলা পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ ভগবান শিবের হাতে মদের গ্লাস, হিন্দু ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ

মালদা জেলার পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন; “হবিবপুর এলাকায় বিয়ে বাড়ি থেকে ফেরার পথে; দুই বোনকে তুলে নিয়ে যায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে; ছোট বোনকে হে’নস্থা করা হয়েছে। বড় বোনকে গণ-ধর’ষণ করা হয়েছে। তাদের মেডিক্যাল টেস্ট করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে একজনকে; গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজ শুরু হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে”।

আরও পড়ুনঃ “আমার বিয়েই হয়নি, লিভ টুগেদারে ছিলাম”, নুসরতের দাবি চমকে দিল বাংলাকে

এদিকে দুই মেয়েকে গণ-ধর’ষণ করা হয়েছে, খবর পেয়েই হৃদরোগে আক্রান্ত হয় দুই মেয়ের মা। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে; মৃত্যু হয় মায়ের। ঘটনায় শোকের ছায়া আদিবাসী মহলে। ইতিমধ্যেই এই ইস্যু নিয়ে; রাজ্য সরকারের সমালোচনায় নেমেছে মালদা বিজেপি। তবে তৃণমূলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে; পুলিশ করা ব্যবস্থা নিচ্ছে। এই রাজনীতি না করাই ভালো।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন