আঁকলেন মমতা, প্রথমবার তাঁর আঁকা সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক নয়

1685
আঁকলেন মমতা, প্রথমবার তাঁর আঁকা সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক নয়
আঁকলেন মমতা, প্রথমবার তাঁর আঁকা সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক নয়

লাইন আঁকলেন মমতা; এঁকে শেখালেন কিভাবে লাইন দিতে হয়। আঁকলেন মমতা; এঁকে শেখালেন কি করে বাজার করতে হবে। কিন্তু এই প্রথমবার তাঁর আঁকা ছবি; সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক নয়। এখন শুধুই প্রশংসা। কেন্দ্রীয় সরকার টানা ২১ দিনের; দেশ লক ডাউনের ঘোষণা করেছেন। রাজ্যেও চলছে ৩১ শে মার্চ অব্দি; লক ডাউন। আর এরপরেই দোকানে বাজারে পরে গেছে লাইন। আর সেখানেই মানুষ করছেন ভয়ঙ্কর ভুল। সেটাই ছবি এঁকে হাতে কলমে দেখিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী নিজেই।

সরকারের জারী করা নির্দেশ অমান্য করে; দোকানে বাজারে ভীড় জমাচ্ছে্ন সাধারণ মানুষ। কেউ বা প্রয়োজনে; কেউ আবার অতিরিক্ত জিনিস মজুত রাখতে ভীড় জমাচ্ছেন দোকানে। এই পরিস্থিতিতে আবার সরকার থেকে ঘোষণা করা হয়েছে; বিনামূল্যে চাল ডাল দেওয়া হবে রেশনে। এমনিতেই বাজারে ভিড় করছেন মানুষ। বিনামূল্যে দেওয়ার ব্যবস্থা হলেই; সেখানে একটা বিরাট মানুষের সমাগম হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই এই পরিস্থিতিতে বুধবার নবান্নের এক বৈঠকে; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছবি এঁকে সাধারণ মানুষকে বুঝিয়ে বললেন; কোনো দোকানে গেলে কিভবে নিজেদের মধ্যে; দূরত্ব বজায় রাখবেন।

প্রথম দিকে সাদা কাগজে এঁকে দেখালেও; পরে তিনি একটি সাদা বোর্ডে মার্কার দিয়ে একজন শিক্ষকের মত; এঁকে বুঝিয়ে দিলেন কিভাবে বাজার করবেন। তিনি বললেন; “বাজারে গিয়ে পরস্পরের মধ্যে; একটা দূরত্ব বজায় রাখবেন। এক লাইনে ঘেঁষাঘেষি করে; বেশি মানুষ দাঁড়াবেন না। ভয় পাবেন না। সবজির হোম ডেলিভারি এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের জোগান; সর্বদা অব্যাহত থাকবে। সবজিওয়ালাকে কেউ আটকাবেন না। একজনের সঙ্গে যাতে আর একজনের স্পর্শ না লাগে; তাই দোকানের সামনে অন্তত পক্ষে ২ মিটারের দূরত্ব রেখে; নির্দিষ্ট সরলরেখায় দাঁড়াবেন”।

এই প্রথম এমন ছবি আঁকলেন মমতা; যে প্রথমবার তাঁর আঁকা ছবি; সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক হল না। মানুষ বুঝেছেন এই আঁকাটা তাদের জীবন বাঁচাবার জন্যই।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন