“ভোটের আগেই হার স্বীকার করে, পালিয়ে গেলেন মমতা”, কটাক্ষ অমিত মালব্যের

4240
"ভোটের আগেই হার স্বীকার করে পালিয়ে গেলেন মমতা"

নন্দীগ্রাম থেকেই; বিধানসভা ভোটে লড়বেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নন্দীগ্রামের তেখালির সভায়; একথা তিনি আগেই জানিয়েছিলেন। শুক্রবার বিধানসভা নির্বাচনে, তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ পাওয়ার পরই জানা গেল; নিজের পাড়া ভবানীপুরে নয়; কেবলমাত্র নন্দীগ্রামেই লড়বেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই, বিরোধী পক্ষে রব ওঠে; হেরে যাবার ভয়ে নিজের কেন্দ্র ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন মমতা। বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা তথা পশ্চিমবঙ্গের সহকারী পর্যবেক্ষক অমিত মালব্যে বলেন; “ভবানীপুর আসন ছেড়ে; হার স্বীকার করলেন মমতা”। “ভোটের আগেই হার স্বীকার করে; পালিয়ে গেলেন মমতা”; কটাক্ষ অমিত মালব্যর।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তৃণমূলের প্রার্থী ঘোষণা করার পরেই; টুইট করেন অমিত মালব্য। সেখানে তিনি লেখেন; “পুরনো আসন ভবানীপুর ছেড়ে; ইতিমধ্যেই হার স্বীকার করে নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রথম ভোট পড়ার আগেই হার। বাংলা পরিবর্তনের জন্য তৈরি”। তিনি আরও জানান; এবার বাংলায় বিজেপির সরকার আসছে; শুধু সময়ের অপেক্ষা মাত্র”।

আরও পড়ুনঃ বিধানসভায় টিকিট না পেয়ে, নিজের অফিসেই আগুন দিলেন তৃণমূল নেতা

এই একই কথা বলেছেন; অন্যন্য বিজেপি নেতারাও। রাজনৈতিক মহলেরও একাংশের দাবি; ভবানীপুরে জেতার সম্ভাবনা খুবই কম, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর জেতার সম্ভাবনা নেই বলেই; নিরাপদ আসন খুঁজছেন মমতা। বিরোধী নেতাদের মতে; নন্দীগ্রামে পালিয়ে যাওয়াই মমতার সব থেকে বড় হার। তবে, বিজেপির এই যুক্তি উড়িয়ে দিয়েছেন; তৃণমূল নেতারা। তাঁদের দাবি, “দুই মেদিনীপুর ও জেলাকে গুরুত্ব দিয়েই; জেলা থেকে ভোটে দাঁড়াচ্ছেন মমতা”।

আরও পড়ুনঃ “দলে আজকে আমার প্রয়োজন ফুরালো”, মমতার প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পরেই তৃণমূল নেতার হতাশা

অন্যদিকে; নন্দীগ্রাম থেকে তৃণমূলের টিকিটে; দুবার জিতেছেন শুভেন্দু অধিকারী। বিজেপির প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা নিয়ে; বৃহস্পতিবার দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার বাসভবনে; দিল্লি ও বাংলার নেতারা বৈঠকে বসে; প্রার্থী চূড়ান্ত করেছেন। সেখানে, বিজেপির টিকিটে নন্দীগ্রাম থেকেই; দাঁড়াবার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন শুভেন্দু। এদিন শুভেন্দু অধিকারী বলেন; “মমতা বুঝে গেছেন তিনি হারবেন; তাই পালিয়ে নন্দীগ্রামে চলে এলেন; এখানে ভবানীপুরের চেয়েও তিনগুন ভোটে হারাব”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন