পালিয়ে গিয়েও আবার ভবানীপুরে মমতা, খড়দহ থেকে লড়বেন শোভনদেব

1036
পালিয়ে গিয়েও আবার ভবানীপুরে মমতা, খড়দা থেকে লড়বেন শোভনদেব
পালিয়ে গিয়েও আবার ভবানীপুরে মমতা, খড়দা থেকে লড়বেন শোভনদেব

ভবানীপুর থেকে পালিয়ে গিয়েও; আবার ভবানীপুরে লড়বেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে ভবানীপুরে জিতেও পদত্যাগ করে; ফের খড়দা বিধানসভা থেকে ভোটে লড়বেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে পদত্যাগ করেছেন; বিধায়ক শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। ২০২১ সালের বিধানসভা ভোটে নিকটতম বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষকে; প্রায় ৫০ হাজারেরও বেশি ভোটে পরাজিত করেন তিনি। দুদিন আগেই, বিধানসভার স্পিকারের কাছে; পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। সূত্রের খবর, এবার ভবানীপুর কেন্দ্র থেকেই লড়বেন; মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তৃণমূল নেতা কাজল সিনহার মৃত্যুতে ফাঁকা হওয়া; খড়দা কেন্দ্র থেকে ফের লড়বেন কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব।

দিন দুয়েক আগেই, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বার্থে; ভবানীপুরের জেতা আসন ছেড়ে দিয়েছিলেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তখন থেকে গুঞ্জন উঠছিল যে; তিনি এখন কোন আসন থেকে ভোটে লড়বেন? অবশেষে সেই জল্পনার অবসান হল। রবিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতার নির্দেশে তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব সিদ্ধান্ত নেয় যে; শোভনদেব ভোটে দাঁড়াবেন খড়দহ আসন থেকে উপনির্বাচনে।

আরও পড়ুন; অভাবের সংসারে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা, উল্টো বিপদে বিজেপি বিধায়ক

শোভনদেব জানান, “দলের নির্দেশে নেত্রীর জন্যই ভবানীপুর থেকে; স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছি। ফের দলই বলেছে, তাই খড়দহের উপনির্বাচনে লড়াই করব”। বিষয়টি নিয়ে এদিন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা হয়েছে; বলে জানিয়েছেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী। খড়দহ আসনে তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিনহা জয়ী হয়েছিলেন; কিন্তু ফলাফল ঘোষণার আগেই তিনি; করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন। আর এই কারণেই ওই কেন্দ্রে; পুনরায় ভোট হবে। উপনির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী; রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ পুলিশ নিয়ে বিজেপি কর্মীর জমির ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দিলেন তৃণমূল নেতা

দল তৈরির পরে, তৃণমূলের প্রথম বিধায়ক ছিলেন; শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। কংগ্রেসের বিধায়ক পদ ছেড়ে, মমতার একডাকে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে এসেছিলেন তিনি। তৃণমূল তৈরির পর, উপনির্বাচনে জিতে তৃণমূলের একমাত্র বিধায়ক ছিলেন; এই শোভনদেব। নিজের জেতা আসন রাসবিহারী ছেড়ে; প্রশান্ত কিশোরের সমীক্ষায় ‘হারা আসন’ ভবানীপুরে এবার ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। সব আশঙ্কা উড়িয়ে ৫০ হাজারের বেশি ভোটে জিতেছেন শোভনদেব; যার জন্য নিশ্চিত হয়েই ফের ভবানীপুরে লড়বেন মমতা। তৃণমূলের ইতিহাসে, আবার এক ইতিহাস সৃষ্টি করলেন; শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন