মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির সদস্য, সদস্যপদ নম্বর ৪২৭৯, সাইবার ক্রাইমে তৃণমূল

320
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির সদস্য, সদস্যপদ নম্বর ৯৫১২, আইনের পথে তৃণমূল/The News বাংলা
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির সদস্য, সদস্যপদ নম্বর ৯৫১২, আইনের পথে তৃণমূল/The News বাংলা

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নাকি বিজেপির সদস্য!‌ মমতা বিজেপির সদস্য ও তাঁর সদস্যপদ নম্বর ৪২৭৯। এমন একটি ছবি বিজেপির সোশ্যাল মিডিয়া হয়ে ছড়িয়ে পরেছে গোটা রাজ্যে। মুখ্যমন্ত্রীর ছবির পাশে লেখা তাঁর নাম ও সদস্যপদ নম্বর ৪২৭৯। এতে শুধু মমতা নন, ক্ষুব্ধ তৃণমূলও। সাইবার ক্রাইমের দারস্থ হয়েছে তৃণমূল।

মিস কল দিয়ে সদস্যপদ সংগ্রহ অভিযান; শুরু করেছে গেরুয়া শিবির। একেবারে কর্পোরেট কায়দায় চলছে সদস্যপদ সংগ্রহ। ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’য় একটি অ্যাপসে; একটি লিংকে ক্লিক করলেই খুলে যাচ্ছে একটি ফর্ম। ফর্ম পূরণ করার পর দিতে হচ্ছে ছবি। তারপরই আসছে নাম-ছবি-সহ সদস্যপদের নম্বর। ওই সদস্যপদ ছবিই ফেসবুকে শেয়ার করছেন বিজেপি কর্মীরা।

কিন্তু এবার মমতার ছবি দেওয়া বিজেপির সদস্যকার্ড; ভাইরাল হয়েছে। তাতে বিজেপি পার্টির নাম; দিনদয়াল উপাধ্যায় মার্গের সদর কার্যালয়ের ঠিকানা এবং পদ্মফুলের ছবিও রয়েছে। সেটি ভাইরাল হওয়ায় নড়চড়ে বসেছে তৃণমূল নেতৃত্ব। এমনকী, তাঁর মেম্বারশিপ নম্বর হিসেবে ৪২৭৯ ক্রমিক সংখ্যাটিও; উল্লেখ রয়েছে ওই পোস্টে।

আরও পড়ুনঃ উল্টোডাঙা উড়ালপুল ফাটলের জেরে বন্ধ, জেনে নিন কোন কোন পথে যাচ্ছে গাড়ি/The News বাংলা

এর আগেও বহুবার বিজেপি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবর ছড়িয়েছে; বলে অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর বিরুদ্ধে কুৎসা ও অপপ্রচারও হয়েছে। মমতাকে নিয়ে; ফেক পোস্টের জেরে শাসকদলে তীব্র ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। অসন্তুষ্ট মুখ্যমন্ত্রী নিজেই। কারণ, মমতা বিজেপির সদস্যপদ গ্রহণ করেছেন; এই ফেক পোস্ট বিভ্রান্তির সৃষ্টি করতে পারে।

আরও পড়ুনঃ রাস্তায় নামাজ বন্ধ করতে বদ্ধপরিকর বঙ্গ বিজেপি, চলতে থাকবে হনুমান চালিশা

এই ঘটনাকে বিজেপির ‘রাজনৈতিক নীচতা’ হিসেবে ব্যাখ্যা করে; যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবার বিধানসভায় শিক্ষামন্ত্রী ওই ছবি দেখিয়ে বলেন; “বিজেপি কতটা নীচে নামতে পারে, এতেই তা প্রমাণিত। মমতাকে নিয়ে অপপ্রচার করে; মানুষের মনে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করছে। সাইবার ক্রাইম বিভাগে আমরা অভিযোগ জানাচ্ছি”।

বিজেপি অবশ্য এর দায় নিতে অস্বীকার করেছে। বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদারের প্রতিক্রিয়া; “পার্থবাবুর এই অভিযোগ একেবারেই হাস্যকর। মমতার মুখকে সামনে রেখে; দল যদি বাংলায় মেম্বারশিপ ড্রাইভে যায়; তাহলে দলের পক্ষে সেটা নেগেটিভ এফেক্ট হবে”। তবে সব মিলিয়ে এই নিয়েই এখন সরগরম বাংলার রাজনীতি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন