ভিক্টোরিয়ায় জয় শ্রী রাম, ‘বেইজ্জত করা হয়েছে’, ভাষণ বয়কট করে মোদীকে বললেন মমতা

4346
ভিক্টোরিয়ায় জয় শ্রী রাম, 'বেইজ্জত করা হয়েছে', ভাষণ বয়কট করে মোদীকে বললেন মমতা
ভিক্টোরিয়ায় জয় শ্রী রাম, 'বেইজ্জত করা হয়েছে', ভাষণ বয়কট করে মোদীকে বললেন মমতা

ভিক্টোরিয়ায় জয় শ্রী রাম ধ্বনি; নিমন্ত্রণ করে ডেকে এনে, ‘বেইজ্জত করা হয়েছে’; নিজের ভাষণ বয়কট করে মোদীকে বললেন মমতা। সরকারি অনুষ্ঠানে জয় শ্রীরাম ধ্বনি; তাও আবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধায়ের বক্তৃতার ঠিক আগেই। প্রতিবাদ করে ভাষণই দিলেন না; মুখ্যমন্ত্রী মমতা। প্রতিবাদ করে বললেন; “এটা তো সরকারি অনুষ্ঠান; কোনও রাজনৈতিক দলের অনুষ্ঠান নয়। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ; কলকাতায় এই অনুষ্ঠান করার জন্য। কিন্তু এভাবে আমন্ত্রণ করে এনে; কাউকে অপমান করা উচিত নয়। প্রতিবাদ হিসেবে; আমি কোনও বক্তব্য রাখব না”। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে এদিন নেতাজীর জন্মদিন উপলক্ষে; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গেই ছিলেন, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও কেন্দ্রীয় তথ্য সংস্কৃতি মন্ত্রী প্রফুল্ল প্যাটেল।

এদিন প্রথমেই নেতাজীর মিউজিয়াম; ঘুরে দেখেন মোদী। তখনও সঙ্গেই ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। তাল কাটে ভিক্টোরিয়ায় ভাষণের সময়। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিনে; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতেই; বক্তব্য রাখতে গিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা মঞ্চে ভাষণ দিতে উঠতেই; দর্শকাসন থেকে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান ওঠে। তখনই মেজাজ হারান মমতা। কোনও ভাষণ না দিয়েই মমতা বলেন; “এ ভাবে ডেকে অপমান করার; কোনও মানে হয় না। এটা সরকারি অনুষ্ঠান; একটা ডিগনিটি থাকা উচিত।

আরও পড়ুনঃ দেশের চারটি রাজধানী ও চারটি সংসদের দাবি তুললেন, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা

এরপর শুধুমাত্র ‘জয় হিন্দ-জয় বাংলা’ বলেই; নিজের বক্তব্য শেষ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ঘটনা নিয়েই ভোটের বাজারে; শুরু হয়েছে তুমুল রাজনৈতিক বিতর্ক। তৃণমূলের তরফে বলা হয়েছে; “সরকারি অনুষ্ঠানে ও নেতাজীর জন্মদিনে; জয় শ্রী রাম বলে, কারা এই রাজ্যে বহিরাগত তা প্রমাণ করল বিজেপি”। অন্যদিকে বিজেপির দাবি; “জয় শ্রী রাম বলে মমতাকে কোন অপমান করা হয় নি”।

এদিন দুপুরে কলকাতা বিমানবন্দর এসে; হেলিকপ্টারে রেস কোর্সে নামেন প্রধানমন্ত্রী। সেখান থেকে যান; নেতাজীর বাসভবনে। এরপর যান ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে। বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে যান। সেখানে উদ্বোধন করেন ‘নির্ভীক সুভাষ’ নামে; একটি গ্যালারির। পাশাপাশি, অন্যান্য বিপ্লবীদের নিয়ে; ‘বিপ্লবী ভারত’ নামে আরও একটি গ্যালারিরও উদ্বোধন করেন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন