মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হুইপ উড়িয়ে, বিধানসভায় গরহাজির তৃণমূল বিধায়করা

2461
মমতা বন্দ্যপাধ্যায় এর হুইপ উড়িয়ে, বিধানসভায় গরহাজির তৃণমূল বিধায়করা
মমতা বন্দ্যপাধ্যায় এর হুইপ উড়িয়ে, বিধানসভায় গরহাজির তৃণমূল বিধায়করা

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর হুইপ উড়িয়ে; বিধানসভায় গরহাজির তৃণমূল বিধায়করা। কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইনের বিরোধিতায় প্রস্তাব গ্রহণ করে; বুধবার থেকে দু-দিনের বিশেষ বিধানসভা অধিবেশন শুরু হল। দু দিনের এই অধিবেশনে, তৃণমূলের সমস্ত বিধায়কের উপস্থিতি; বাধ্যতামূলক করতে আগেই জারি করা হয়েছে হুইপ। ফলে, তৃণমূলের যে বিধায়করা সম্প্রতি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন; কিন্তু বিধানসভার সদস্যপদ থেকে ইস্তফা দেননি; তাঁরা কী করেন, তা নিয়ে কৌতূহল ছিল। আরও আগ্রহ ছিল, যে সমস্ত তৃণমূল নেতারা এখনও বিজেপি যোগ দেন নি; অথচ দলের সমস্ত পদ ত্যাগ করেছেন তাঁদের নিয়ে। এঁদের কেউই এদিন বিধানসভায় আসেন নি।

রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, লক্ষ্মী রতন শুক্লা, প্রবীর ঘোষাল, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য; বৈশালী ডালমিয়া কেউই আসেন নি। অসুস্থ থাকায় আসেন নি; মন্ত্রী অরূপ রায় ও আরও কয়েকজন। রোজই নতুন নতুন অস্বস্তির মুখে; পড়তে হচ্ছে তৃণমূলকে। দলীয় নেতা, কর্মী থেকে বিধায়ক কিংবা সাংসদ; শাসকদলের অন্দরে বাড়ছে ‘বেসুরো’র তালিকা। ভোটের আগে, কেউ পদ ছাড়ছেন; কেউ দল ছাড়ছেন। বিধানসভা ভোটের মুখে এই পরিস্থিতি; তৃণমূলের পক্ষে খুব একটা সুখকর নয় তা বলাই বাহুল্য।

আরও পড়ুনঃ ভোটের বাংলায় বড় খবর, এবার কি তৃণমূল ত্যাগ করে বিজেপি যোগ দিচ্ছেন মমতা

সেই কারণেই দুদিনের এই বিশেষ বিধানসভা অধিবেশনে হাজির থাকার জন্য; তৃণমূল নেত্রীর নির্দেশে রীতিমতো জারি হয়েছিল হুইপ। তবে তাতে কি? আসেন নি বিদ্রোহী বিধায়করা। এদিকে, চলতি বিধানসভার অধিবেশন ‘অসাংবিধানিক’; বলে দাবি করল বাম কংগ্রেস জোট। অধিবেশনের শুরুতেই; এই অভিযোগে সরব বাম, কংগ্রেস। তাঁদের যুক্তি, নতুন বছরে অধিবেশন ডাকার অধিকার রাজ্যপালের। তার আগে অবশ্য অধিবেশন সমাপ্তি ঘোষণা করতে হয়। সরকার পক্ষ তা করেনি। সরকারের এই সিদ্ধান্ত রাজ্যপাল ও বিরোধীদের অধিকারকে; খর্ব করার শামিল বলেই অভিযোগ।

কেন্দ্রীয় কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি ও বিরুদ্ধে প্রস্তাব নিয়ে; আলোচনা করতে বুধবার থেকে শুরু হয়েছে দু-দিনের রাজ্য বিধানসভার অধিবেশন। অধিবেশনের প্রথম দিন শোক প্রস্তাব পেশ করার পর; মুলতুবি করে দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার দুটি বিল ও কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরুদ্ধে; আনা প্রস্তাবের উপর আলোচনা হওয়ার কথা। কিন্তু এই অধিবেশন সংবিধানকে অসম্মান করছে বলে; সরকারের বিরুদ্ধে সরব বাম ও কংগ্রেস।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন