মমতা চান বিধানসভা উপনির্বাচন, বিজেপির লক্ষ্য পুরসভা নির্বাচন, বাংলার মানুষের দাবি লোকাল ট্রেন

505
মমতা চান বিধানসভা উপনির্বাচন, বিজেপির লক্ষ্য পুরসভা নির্বাচন, বাংলার মানুষের দাবি লোকাল ট্রেন
মমতা চান বিধানসভা উপনির্বাচন, বিজেপির লক্ষ্য পুরসভা নির্বাচন, বাংলার মানুষের দাবি লোকাল ট্রেন

মানব গুহ, কলকাতাঃ নেতা-নেত্রীদের দাবি ও চাহিদার সঙ্গে; সাধারণ মানুষের দাবি ও চাহিদার কোন মিল নেই! হ্যাঁ, বাংলার মানুষের অবস্থাটা এখন; অনেকটাই এরকম। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চান; এখনই বিধানসভা উপনির্বাচন। রাজ্য বিধানসভার প্রধান বিরোধী দল; বিজেপি চায় পুরসভা নির্বাচন। আর বাংলার অধিকাংশ মানুষের দাবি; যত তাড়াতাড়ি সম্ভব লাইনে ফিরুক লোকাল ট্রেন। তবে করোনা কমে যাওয়ার দাবি তুলে; বিধানসভা উপনির্বাচনের দাবি তুললেও; মমতার নির্দেশে জুলাই শেষ অব্দি লোকাল ট্রেন চলার সম্ভাবনাই নেই। আর বিরোধী বিজেপির আবার বিধানসভা উপনির্বাচনে উৎসাহ নেই; তাদের লক্ষ্য পুরসভা নির্বাচন।

“বাংলায় করোনা নিয়ন্ত্রণে; ভয়ে উপনির্বাচন করছে না বিজেপি”; নবান্নে জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। “কোভিড নিয়ন্ত্রণে, অনেক জায়গায় জিরো; উপনির্বাচন হতেই পারে”; ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর। বাংলায় উপনির্বাচন করানোর জন্য প্রস্তুত; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আগেই জানিয়েছিলেন যে, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে; নির্বাচন কমিশন সাতদিনের নোটিশে উপনির্বাচন করাতে পারে। তবে লোকাল ট্রেন চালানো নিয়ে সেই মমতাই বলেছেন; “এখন ট্রেন চললে দুনিয়ার লোকের কোভিড হবে; তখন দায় কে নেবে?”

আরও পড়ুনঃ “বাংলায় করোনা নিয়ন্ত্রণে, ভয়ে উপনির্বাচন করছে না বিজেপি”; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

অন্যদিকে, রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি; মমতার লোকাল ট্রেন না চালানো নিয়ে সামান্য প্রতিবাদ করলেও; লোকাল ট্রেন চলল কি চলল না তাতে তাদের কোন দায় নেই। ঘোষণা মত ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে; ২০০ আসন পেয়ে বাংলায় ক্ষমতা দখল করতে না পারায়; এখন আর ৭টি আসনে বিধানসভা উপনির্বাচনেও তাদের কোন উৎসাহ নেই। বরং মমতাকে বিপদে ফেলতে; তারা চায়ও না; বিধানসভা উপনির্বাচন হোক। তাদের দাবি; রাজ্যে পুরসভা ভোট। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে কলকাতা পুরসভা সহ; ১০৭টিরও বেশি পুরসভার নির্বাচন স্থগিত রয়েছে। বর্তমানে এগুলি পরিচালনা করছে; মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন প্রশাসন।

আর বাংলার সাধারণ মানুষের, না মমতার বিধানসভা উপনির্বাচন; না বিজেপির পুরসভা নির্বাচন; কোনটাতেই তেমন কোন উৎসাহ নেই। তাঁদের একমাত্র চাহিদা, লোকাল ট্রেন; বাংলার মানুষের লাইফলাইন। কয়েককোটি মানুষের একমাত্র ভরসা, লোকাল ট্রেন; কবে আবার লাইনে ফিরবে? অবশ্য মানুষের চাহিদা কি; সেটা বোঝার ক্ষমতা রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীদের আদৌ আছে কি? সেটাই এখন; বড় প্রশ্ন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন