“দলের অনেকেরই থাকা না থাকা দোদুল্যমান”, চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের

1265
"দলের অনেকেরই থাকা না থাকা দোদুল্যমান", চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের

শুভেন্দু অধিকারী সহ অনেক তৃণমূল নেতারাই; দল ছেড়ে বিজেপিতে যাবার জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। তৃণমূলের তরফ থেকে বিভিন্ন নেতা; বারবার এইসব খবর অস্বীকার করে বক্তব্য রেখেছেন। তবে এবার, সবাইকে চমকে দিয়ে; হাটে হাড়ি ভাঙলেন; তৃণমূল নেতা ও রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। রবিবার তিনি বললেন, “দলের অনেকেরই থাকা না থাকা দোদুল্যমান”। চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। তৃণমূলের একাধিক নেতার দলবদলের জল্পনার মধ্যেই; এই চমকপ্রদ বয়ান; দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। রবিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে, তিনি স্বীকার করে নেন; দলের অনেকেরই থাকা, না থাকা এখন দোদুল্যমান অর্থাৎ ঝুলে আছে। যা নিয়ে নতুন করে, জল্পনা ছড়িয়েছে; বাংলার রাজনৈতিক মহলে।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ থেকে শুরু করে; দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ; প্রত্যেকেই দাবি করেছেন; তৃণমূলের বেশ কিছু নেতা, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলছেন। তৃণমূলের নেতারা দলে আসার জন্য যোগাযোগ করছে বলে; দীর্ঘদিন দাবি করে আসছে বিজেপি। তার মধ্যে অন্তত হাফ ডজন সাংসদ; রয়েছেন বলে দাবি তাদের। শনিবার, সেই একই কথা বলেন; ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। এতদিন সেই সব দাবিকে, ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিয়েছেন; তৃণমূল নেতারা। তবে, রবিবার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্যে স্পষ্ট হল; কিছুটা অন্তত সারবত্তা রয়েছে বিজেপির দাবিতে।

আরও পড়ুনঃ ভোট প্রচারে প্রাথমিক শিক্ষকদের মাঠে নামাচ্ছে তৃণমূল, “ভ’য় দেখিয়ে” অভিযোগ বাম বিজেপির

রবিবার বেহালায় এক সাংবাদিক বৈঠকে, এক সাংবাদিক পার্থবাবুকে প্রশ্ন করেন; “শোভন চট্টোপাধ্যায় না থাকায়; কি দলের কোনও সমস্যা হবে”? সেই প্রশ্নের উত্তরে তৃণমূল মহাসচিব সবাইকে চমকে দিয়ে বলেন; “অনেকেরই থাকা, না থাকা দোদুল্যমান। আমাদের অসুবিধা তখনই হবে; যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থাকবেন না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া কার কত দৌড়; আমাদের দেখা আছে। রাজনৈতিকভাবে আমরা শক্তিশালী; কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের মাথায় আছেন”।

পার্থবাবুর এদিনের মন্তব্যে পরিষ্কার; দলের নেতাদের এইরকম দলে থাকা-ছাড়া নিয়ে; বেজায় চিন্তায় তৃণমূল। কাকে ধরে বিধানসভা ভোটের পরিকল্পনা করবেন; আর কাকে বাইরে রাখবেন; সেটাই এখন তৃণমূলের মাথাব্যাথার কারণ। নেতাদের থাকা আর না থাকা নিয়ে; ভোটের আগে যে চ’রম সমস্যায় মমতার তৃণমূল; তা দলের মহাসচিবের এই স্বীকারোক্তি-তেই পরিষ্কার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন